hsc (bm) 12 class business organization (2) 15th week assignment solution / answer 2021, hsc বিএম ১২শ শ্রেণির ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা (২) ১৫তম সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্টের সমাধান ২০২১

hsc (bm) 12 class business organization (2) 15th week assignment solution / answer 2021, hsc বিএম ১২শ শ্রেণির ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা (২) ১৫তম সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্টের সমাধান ২০২১

Assignment এইচ এস সি পরীক্ষা প্রস্তুতি শিক্ষা
শেয়ার করুন:
শ্রেণি: ১২শ / HSC বিএম -2021 বিষয়: ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা (২) এসাইনমেন্টেরের উত্তর 2021
এসাইনমেন্টের ক্রমিক নংঃ 10 বিষয় কোডঃ 1827
বিভাগ: ভোকেশনাল শাখা
বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস// https://www.banglanewsexpress.com/

এসাইনমেন্ট শিরোনামঃ ব্যবস্থাপনার প্রকৃতি ও সামাজিক দায়িত্ব বােধ বিশ্লেষণ।

শিখনফল/বিষয়বস্তু :

  • ব্যবস্থাপকের সামাজিক দায়িত্ব সম্পর্কে ধারণা পাবাে।

নির্দেশনা :  

  • “ব্যবস্থাপনা সর্বজনী” ব্যাখ্যা করতে হবে।,
  • হেনরি ফেয়ল এর ব্যবস্থাপনা নীতি বা আর্দশ সমূহ ব্যাখ্যা করতে হবে।,
  • ব্যবস্থাপনার সামাজিক দায়িত্ব আলােচনা করতে হবে।,
  • ব্যবস্থাপনা ও প্রশাসনের মধ্যে পার্থক্য বের করতে হবে।,

এসাইনমেন্ট সম্পর্কে প্রশ্ন ও মতামত জানাতে পারেন আমাদের কে Google News <>YouTube : Like Page ইমেল : assignment@banglanewsexpress.com

  • “ব্যবস্থাপনা সর্বজনী” ব্যাখ্যা করতে হবে।,

সার্বজনীন বলতে বুঝায় যা সবার কাছে গ্রহণযোগ্য। ব্যবস্থাপনার মৌলিক কার্যাবলী পরিরকল্পনা, সংগঠন, কর্মীসংস্থান, নির্দেশনা, প্রেষণা, সমন্বয়সাধন এবং নিয়ন্ত্রণ যে কোন প্রতিষ্ঠানের জন্য অপরিহার্য। তাছাড়া ব্যবস্থাপনার যে নীতি ও তত্ত্ব রয়েছে তাও সর্বক্ষেত্রে সবার কাছে গ্রহণযোগ্য।

পরিবার থেকে শুরু করে শিল্প কারখানা, মসজিদ, মন্দির, গির্জা, স্কুল কলেজ ও বিশ^বিদ্যালয় সর্বক্ষেত্রে ব্যবস্থাপনা অপরিহার্য। প্রয়োগের ক্ষেত্রে কিছুটা পার্থক্য দেখা গেলেও সর্বক্ষেত্রে ব্যবস্থাপনার কাজগুলো একই।

দলবদ্ধ যে কোন কাজের জন্য ব্যবস্থাপনা প্রয়োজন। সব সমাজেই ব্যবস্থাপনার কজের ধরণ ও প্রকৃতি একই রকম। তাই বলা হয়, ব্যবস্থাপনা সার্বজনীন।

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল ©সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

  • হেনরি ফেয়ল এর ব্যবস্থাপনা নীতি বা আর্দশ সমূহ ব্যাখ্যা করতে হবে।,

ব্যবস্থাপনা নীতিমালা হচ্ছে ব্যবস্থাপকীয় কার্যাবলী সুষ্ঠুভবে সম্পাদনের নির্দেশিকা স্বরূপ। কেউ যদি প্রশ্ন করে বা জানতে চায় যে, ব্যবস্থাপনা কোন কোন নীতির ওপর দাঁড়িয়ে আছে বা ব্যবস্থাপনার মূলনীতি কী কী। এরকম প্রশ্নের সুনির্দিষ্ট কোনো উত্তর দেওয়া সব সময়ই কঠিন যেহেতু আজ পর্যন্ত এর কোনো ধরা বাঁধা নিয়ম-নীতি নির্দিষ্ট করা সম্ভব হয়নি। তবে আধুনিক ব্যবস্থাপনার জনক হেনরি ফেয়ল (Henry Fayol) ১৯১৬ সালে ফ্রান্সে তাঁর যুগান্তকারী গ্রন্থ জেনারেল অ্যান্ড ইনডাসট্রিয়াল ম্যানেজমেন্ট  (General and Industrial Management) এ ১৪টি ব্যবস্থাপনা নীতি প্রদান করেছেন; এই নীতিগুলোই এখন পর্যন্ত সবচেয়ে গ্রহণযোগ্য ও  গুরুত্বপূর্ণ মূলনীতি হিসেবে মানা হয়।

নিচে হেনরি ফেয়লের ব্যবস্থাপনার ১৪ টি নীতি আলোচনা করা হলো:

১. কার্যবিভাগ (Division of work)

কার্যবিভাগ নীতি প্রতিষ্ঠানের যাবতীয় ব্যবস্থাপকীয় ও কারিগরী সংক্রান্ত কার্যাবলীর ক্ষেত্রে প্রয়োগ করার কথা বলেছেন হেনরি ফেয়ল। হেনরি ফেয়ল প্রদত্ত এই নীতি অনুযায়ী প্রত্যেক কর্মীর কাজের আওতা সুনির্দিষ্ট হওয়া আবশ্যক।

২. কর্তৃত্ব ও দায়িত্ব (Authority and Responsibility)

হেনরি ফেয়ল বলেছেন যে, কর্তৃত্ব ও দায়িত্ব পরস্পর ঘনিষ্ঠতার সাথে সম্পর্কিত। কোনো কর্মীকে কার্য সম্পাদন করার জন্য কর্তৃত্ব অর্পন করার সাথে সাথে প্রয়োজনীয় দায়িত্ব ও প্রদান করতে হবে। আবার এরূপ কর্তৃত্ব ও দায়িত্বের মধ্যে ভারসাম্য থাকা উচিত অন্যথায় কার্যক্ষেত্রে সমস্যা দেখা দেয়।

৩. শৃঙ্খলা বা নিয়মানুবর্তিতা (Dicipline)

শৃঙ্খলা বলতে হেনরি ফেয়ল বুঝিয়েছেন মান্যতা, প্রয়োগ, শক্তি ও শ্রদ্ধার সংমিশ্রণ। যে-কোনো প্রতিষ্ঠানের প্রতিটি ক্ষেত্রেই শৃঙ্খলা অপরিহার্য। শৃঙ্খলা হলো উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ তার অধীনস্থ কর্মচারীদের হতে কী প্রত্যাশা করেন তা সংশ্লিষ্ট সকলকে অবগত করানো কার্য সম্পাদনের জন্য উপযুক্ত তদারকির ব্যবস্থা করা এবং ঐসব কাজ সম্পাদিত না হলে প্রয়োজনীয় শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া।

৪. আদেশের ঐক্য (Unity of Command)

আদেশেত ঐক্য নীতির মূল কথা হলো প্রতিষ্ঠানের প্রত্যেক কর্মী শুধু একজন বসের (Boss) অধীনে থাকবে এবং তার আদেশ গ্রহণ করবে। কারণ একাধিক বসের অধীনে একজন কর্মী সুষ্ঠুভাবে কাজ করতে পারে না। এক্ষেত্রে বিশৃঙ্খলা এবং সমস্যাই দেখা দেয়।

৫. নির্দেশনার ঐক্য (Unity of Direction)

সংগঠনের প্রতিটি উদ্দেশ্যের জন্য শুধু একজন প্রধান ও একটি পরিকল্পনা থাকবে; একই উদ্দেশ্য বিশিষ্ট কার্যাবলীর জন্য একটি পরিকল্পনা থাকবে এবং ঐ সকল কার্য সম্পাদনের নির্দেশ প্রদান করবেন ও একজন কর্মকর্তা; এটিই হলো নির্দেশনা ঐক্য।

৬. সাধারণ স্বার্থের জন্য নিজের স্বার্থ ত্যাগ (Subordination of individual to general interest)

প্রাতিষ্ঠানিক বৃহৎ স্বার্থকে ব্যক্তিস্বার্থের উর্ধ্বে স্থান দেওয়াকে আবশ্যল বলে মনে করেন হেনরি ফেয়ল। তবে সাংগঠনিক উদ্দেশ্য ও ব্যক্তির উদ্দেশ্যের মধ্যে যাতে কোনো রকমের বিরোধ বা অসংগতি বা সংঘাত না থাকে সেটিও নিশ্চিত করতে হবে।

৭. পারিশ্রমিক (Remuneration)

ন্যায্য বেতন এবং মজুরি নিয়োজিত শ্রমিক-কর্মীদের প্রাপ্য। তাই বেতন ও মজুরির একটি উপযুক্ত কাঠামোর প্রবর্তন করে শ্রমিক-কর্মীদেরকে সর্বাধিক সন্তুষ্টি প্রদানের ব্যবস্থা করতে হবে। হেনরি ফেয়লের মতে, পারিশ্রমিক ন্যায্য হতে হবে এবং তা প্রদান করার যুক্তিসংগত বা সঠিক পন্থা থাকতে হবে। 

৮. কেন্দ্রীকরণ (Centralisation)

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল ©সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

প্রতিষ্ঠানে উচ্চ পর্যায়ের সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষমতা কেন্দ্রীভূত থাকে এবং নিম্নস্তরের সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষমতা বিকেন্দ্রিভূত থাকে। হেনরি ফেয়ল এক্ষেত্রে বলেন, কর্তৃত্বের কেন্দ্রীকরণ ও বিকেন্দ্রীকরণের পরিমাণ প্রতিষ্ঠানের প্রয়োজনে বৈজ্ঞানিক বিশ্লেষণের মাধ্যমে নির্ধারণ করা উচিৎ। 

৯. জোড়া-মই-শিকল (Scalar Chain)

প্রতিষ্ঠানের সর্বোচ্চ স্তর থেকে সর্বনিম্ন স্তর পর্যন্ত কর্তৃত্ব প্রবাহের একটি শিকল বা চেইন থাকবে। এই শিকল কর্তৃত্বের প্রবাহ ও যোগাযোগের উর্ধ্বগতি বা নিম্নগতি নির্দেশ করে। জরুরি কাজে সংগঠনের নীচু স্তরের মধ্যে সরাসরি যোগাযোগ স্থাপনের ব্যবস্থা থাকবে। 

১০. বিন্যাস (Order) 

একটি একটি প্রতিষ্ঠানের অনুকূল কর্ম সংস্কৃতি রাখার জন্য একটি সঠিকভাবে সংজ্ঞায়িত এবং উপযুক্ত বিন্যাস বজায় রাখা উচিত। বিন্যাস নীতির মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে প্রত্যেক কর্মী ও উপাদান (মানবীয় ও অমানবীয় বা বস্তুগত) যাতে তাদের স্ব-স্ব স্থানে থেকে সুষ্ঠু নিরবচ্ছিন্ন ভাবে কাজ করতে পারে তার ব্যবস্থা করা। 

১১. সাম্য (Equity) 

সকল শ্রমিক ও কর্মীর প্রতি সমান এবং সম্মানজনক আচরণ করা উচিত। একজন ব্যবস্থাপক বা প্রশাসকের দায়িত্ব হলো প্রতিষ্ঠানে নিয়োজিত কেউ যেন  বৈষম্যের সম্মুখীন না হয়। 

১২. চাকরির স্থায়িত্ব (Stability of tenure) 

কর্মীদেরকে আশ্বস্ত করতে হবে যে, প্রতিষ্ঠানে তারা স্থায়ীভাবে কাজ করবেন বা দীর্ঘমেয়াদে কাজ করবেন। অকারণে বা সামান্য কারণে কর্মীদের ঘনঘন বদলী বা ছাঁটাই করা অনুচিৎ, এটি ব্যবস্থাপনারই ব্যর্থতা। নির্বাহী ও সাধারণ কর্মীবাহিনীর চাকরীকালের স্থিতিশীলতা রক্ষা করে তাদের দক্ষতা বৃদ্ধি করা ব্যবস্থাপনার অন্যতম নীতি। 

১৩. উদ্যোগ (Initiative)

নতুন নতুন পদ্ধতি বা উপায় উদ্ভাবন ও আবিস্কার করার পক্ষে কর্মীদেরকে উৎসাহ প্রদান করা হেনরি ফেয়লের গুরুত্বপূর্ণ একটি নীতি। এই নীতি বাস্তবায়নের জন্য যথোপযুক্ত সুযোগ সৃষ্টি করতে হবে। এতে প্রতিষ্ঠানের প্রতি কর্মীদের আগ্রহ বাড়ে এবং উন্নত কর্মনৈপুণ্য প্রদর্শন করা তাদের পক্ষে সম্ভব হয়। 

১৪. একতাই বল (Esprit de corps/Unity Is Strength) 

যেখানে একতা সেখানেই শক্তি। ব্যবস্থাপনার অন্যতম প্রধান নীতি হলো একে অপরকে  অনুপ্রাণিত করা এবং নিয়মিতভাবে একে অপরের সহায়ক হওয়া। একটি প্রতিষ্ঠান বা সংগঠনের সদস্যদের মধ্যে পারস্পরিক বিশ্বাস এবং বোঝাপড়ার বিকাশ একটি ইতিবাচক ও প্রত্যাশিত কর্মপরিবেশ ও ফলাফলের দিকে পরিচালিত করবে। ব্যবস্থাপকের উচিৎ তার অধীনস্থ কর্মচারীদের দলগত প্রচেষ্টা, একতা ও ভ্রাতৃত্ব বোধে উদ্বুদ্ধ করতে হবে এবং এভাবেই প্রতিষ্ঠানের উদ্দেশ্য অর্জন করা সম্ভব।

সারাংশ

  • ব্যবস্থাপনার নীতিমালা প্রবর্তক আধুনিক ব্যবস্থাপনার জনক হেনরি ফেয়ল। 
  • ব্যবস্থাপনার মোট নীতিমালা ১৪টি।
  • ব্যবস্থাপনার প্রথম নীতি হলো কার্যবিভাগ।
  • হেনরি ফেয়ল ১৯১৬ সালে ফ্রান্সে তাঁর লেখা গ্রন্থে সর্বপ্রথম নীতিমালাগুলো উল্লেখ করেন।
  • হেনরি ফেয়লের মৃত্যুর পর তাঁর ব্যবস্থাপনা তত্ত্ব আধুনিক ব্যবস্থাপনার নীতিমালা হিসেবে স্বীকৃতি পায়।
  • আদেশের ঐক্যের মূল কথা হলো প্রত্যেক কর্মী একজন ব্যবস্থাপক বা ম্যানেজার বা বসের অধীনে থাকবে। 
  • নির্দেশনার ঐক্য বলতে বুঝায় একজন প্রধান ব্যক্তি থাকবে এবং তার কাছ থেকেই নির্দেশনা আসবে।

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল ©সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

  • ব্যবস্থাপনার সামাজিক দায়িত্ব আলােচনা করতে হবে।,

ব্যবসার উন্নয়নে আধুনিক প্রবণতা দীর্ঘদিন ধরে একটি সামাজিক অভিযোজনের প্রয়োজনীয়তা নিশ্চিত করেছে। উদ্যোক্তারা কেবল মুনাফা অর্জনের জন্যই নয়, সামাজিক সমস্যা সমাধানে সমাজকে সম্ভাব্য সব ধরনের সহায়তা প্রদানের চেষ্টা করে। কিন্তু এই দিকের একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান রয়েছে, যা সকলে বিবেচনায় নেয় না। যেকোনো সামাজিক ভিত্তিক ইভেন্টের উপকারিতা, বস্তুগত বা অদম্য হওয়া উচিত, কিন্তু এটি অবশ্যই দীর্ঘমেয়াদে উপকারী হতে হবে। বেশ কয়েকটি কৌশল রয়েছে যা আপনাকে এই প্রভাবটি অর্জন করতে দেয়, উদ্যোক্তাদের জানা উচিত এবং সেগুলি অনুশীলনে প্রয়োগ করা উচিত।

ব্যবসার সামাজিক দায়বদ্ধতা কি

ব্যবসা করার সামাজিক অভিযোজন সংগঠনের ব্যয়ে পরিচালিত সমাজের কল্যাণের লক্ষ্যে কিছু ব্যবস্থা বাস্তবায়নের সাথে জড়িত। তাদের সহায়তায়, জনসংখ্যার কিছু অংশ বা তাদের কোম্পানির কর্মচারীদের জীবন উন্নত করতে সামাজিকভাবে উল্লেখযোগ্য কর্মসূচি বাস্তবায়িত হয়। এই জাতীয় সংস্থার ফলাফলগুলি বৃদ্ধি, চিত্রের উন্নতি, বিকাশ, শিল্পীর মুনাফা বৃদ্ধি, অর্থাৎ এন্টারপ্রাইজে অবদান রাখে।

পরিকল্পনা সামাজিক ব্যবস্থাতার আছে স্বাতন্ত্র্যসূচক বৈশিষ্ট্য… এটি ক্রমাগত সংশোধিত এবং অনুযায়ী পরিবর্তন করা হয় বর্তমান প্রবণতাসমাজের উন্নয়ন। এই ধরনের পরিকল্পনা স্বতন্ত্রভাবে এবং স্বেচ্ছায় ব্যক্তিগত উদ্যোগ গ্রহণ করে। এটি প্রকল্পের অন্যান্য অংশীদারদের সাথেও সমন্বয় করা যেতে পারে। সমাজমুখী কার্যক্রমের ফলস্বরূপ, নিম্নলিখিত লক্ষ্যগুলি অর্জন করা হয়:

  • নির্ধারিত স্তরে কোম্পানির খ্যাতি উন্নত করা নির্ধারিত শ্রোতাএবং পুরো বসতি;
  • কোম্পানির ভাবমূর্তি উন্নত করা;
  • উত্পাদিত এবং বিক্রিত পণ্যের পরিমাণ বৃদ্ধি;
  • এন্টারপ্রাইজের পরিষেবা বা পণ্যের গুণমান উন্নত করা;
  • কর্পোরেট ব্র্যান্ডের উন্নয়ন এবং শক্তিশালীকরণ;
  • নতুন অংশীদারিত্বের উত্থান এবং শক্তিশালীকরণ, ব্যবসা, সরকার, নাগরিক সমিতি এবং সংস্থার প্রতিনিধিদের সাথে সংযোগ।

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল ©সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

  • ব্যবস্থাপনা ও প্রশাসনের মধ্যে পার্থক্য বের করতে হবে।,

ব্যবস্থাপনা বা Management হল কোন ব্যাক্তি বা বস্তুকে নিয়ন্ত্রণ বা লেনদেন সংক্রান্ত কাজ বা পদ্ধতি। আর, প্রশাসন বা Administration হলো কোনো ব্যাবসা বা অর্গানাইজেশন কে নির্দেশনা প্রদানকারী বা চালনাকারীর এক্টিভিটি।

অন্যের কাছ থেকে কাজটি করার দক্ষতা হিসাবে বোঝা যায়। এটা ঠিক যেমন হয় না প্রশাসনযা পুরো সংস্থাটিকে কার্যকরভাবে পরিচালিত করার প্রক্রিয়াটিকে ইঙ্গিত করে। প্রশাসনের চেয়ে পরিচালনার চেয়ে পৃথক হওয়া সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি হ’ল প্রাক্তন সংস্থাটির পরিচালনা পরিচালনা বা দিকনির্দেশনার সাথে সম্পর্কিত, যেখানে পরবর্তী ব্যক্তিরা নীতিমালা অবলম্বন এবং সংস্থার উদ্দেশ্যগুলি প্রতিষ্ঠায় জোর দিয়ে থাকেন।

বিস্তৃতভাবে বলতে গেলে, পরিচালন পরিচালনার পরিচালনা ও নিয়ন্ত্রণের কার্যাদি বিবেচনা করে, যেখানে প্রশাসন পরিকল্পনা এবং সংগঠনের কাজ সম্পর্কিত।

সময়ের সাথে সাথে, এই দুটি শর্তের মধ্যে পার্থক্য ঝাপসা হয়ে যাচ্ছে, কারণ ব্যবস্থাপনায় পরিকল্পনা, নীতি নির্ধারণ এবং বাস্তবায়নও অন্তর্ভুক্ত রয়েছে, এইভাবে প্রশাসনের কার্যাদি অন্তর্ভুক্ত করা হয়। এই নিবন্ধে, আপনি পরিচালনা এবং প্রশাসনের মধ্যে সমস্ত উল্লেখযোগ্য পার্থক্য পাবেন।

তুলনা রেখাচিত্র

তুলনা করার জন্য বেসব্যবস্থাপনাপ্রশাসন
অর্থএকটি ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের লোক এবং জিনিস পরিচালনার একটি সুসংহত পদ্ধতি যাকে ম্যানেজমেন্ট বলা হয়।একদল লোকের দ্বারা একটি সংস্থা পরিচালনার প্রক্রিয়া প্রশাসন হিসাবে পরিচিত।
কর্তৃপক্ষমধ্য এবং নিম্ন স্তরশীর্ষ স্তর
ভূমিকাকার্যনির্বাহীসিদ্ধান্তমূলক
সঙ্গে সংশ্লিষ্টনীতি বাস্তবায়ননীতিমালা প্রণয়ন
পরিচালনার ক্ষেত্রএটি প্রশাসনের অধীনে কাজ করে।এটি প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রমের উপর সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ রাখে।
প্রযোজ্যমুনাফা অর্জনকারী সংস্থা, অর্থাত্ বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান।সরকারী অফিস, সামরিক, ক্লাব, ব্যবসায়িক উদ্যোগ, হাসপাতাল, ধর্মীয় এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।
সিদ্ধান্ত নেয়কাজটি কে করবে? এবং এটি কিভাবে করা হবে?কি করা উচিত? এবং কখন করা উচিত?
কাজপরিকল্পনাগুলি এবং নীতিগুলি কার্যকর করা।পরিকল্পনা প্রণয়ন, নীতিমালা প্রণয়ন এবং লক্ষ্য নির্ধারণ
লক্ষ্য করাপরিচালনার কাজসীমিত সংস্থার সর্বোত্তম সম্ভাব্য বরাদ্দ করা।
দ্বার রক্ষকম্যানেজারপ্রশাসক
প্রতিনিধিত্বকর্মচারীরা, যারা পারিশ্রমিকের জন্য কাজ করেনমালিকরা, যারা তাদের বিনিয়োগকৃত রাজধানীতে একটি রিটার্ন পান।
ফাংশনএক্সিকিউটিভ এবং গভর্নিংআইনী এবং নির্ধারক

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল ©সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

সবার আগে Assignment আপডেট পেতে Follower ক্লিক করুন

এসাইনমেন্ট সম্পর্কে প্রশ্ন ও মতামত জানাতে পারেন আমাদের কে Google News <>YouTube : Like Page ইমেল : assignment@banglanewsexpress.com

অন্য সকল ক্লাস এর অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর সমূহ :-

  • ২০২১ সালের SSC / দাখিলা পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ২০২১ সালের HSC / আলিম পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ভোকেশনাল: ৯ম/১০ শ্রেণি পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ২০২২ সালের ভোকেশনাল ও দাখিল (১০ম শ্রেণির) অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • HSC (বিএম-ভোকে- ডিপ্লোমা-ইন-কমার্স) ১১শ ও ১২শ শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ২০২২ সালের ১০ম শ্রেণীর পরীক্ষার্থীদের SSC ও দাখিল এসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ২০২২ সালের ১১ম -১২ম শ্রেণীর পরীক্ষার্থীদের HSC ও Alim এসাইনমেন্ট উত্তর লিংক

৬ষ্ঠ শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ , ৭ম শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ ,

৮ম শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ , ৯ম শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১

বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস// https://www.banglanewsexpress.com/

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় SSC এসাইনমেন্ট :

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় HSC এসাইনমেন্ট :

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *