২০২১ সালের hsc বিএম ১২শ শ্রেণি ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা (২) ৫ম সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর 2021

২০২১ সালের hsc বিএম ১২শ শ্রেণি ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা (২) ৫ম সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর 2021

Assignment এইচ এস সি পরীক্ষা প্রস্তুতি শিক্ষা
শেয়ার করুন:

অ্যাসাইনমেন্ট/ শিরো নাম : কর্মী সংস্থাপনের ধারণা বিশ্লেষণ 

শিখনফল/বিষয়বস্তু :

  • কর্মী সংস্থাপনের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানের লক্ষ্য অর্জনের জন্য প্রয়ােজনীয় মানব সম্পদ সংগ্রহ করতে পারবাে। 
  • কর্মী সংস্থান বা ষ্টাফিং এর মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানের জন্য দক্ষ ও যােগ্য কর্মী বাহিনী গঠন করতে পারবাে।

নির্দেশনা (সংকেত/ ধাপ/ পরিধি): 

  • কর্মী সংস্থাপনের ধারণা ব্যাখ্যা করতে হবে।
  • শিল্প প্রতিষ্ঠানে কিভাবে কর্মী নির্বাচন করা হয়, তা ব্যাখ্যা করতে হবে।
  • পদোন্নতির ভিত্তিসমূহ ব্যাখ্যা করতে হবে।
  • একজন কর্মীকে কেন পদাবনতি দেওয়া হয় তা ব্যাখ্যা করতে হবে।

এসাইনমেন্ট সম্পর্কে যে কোন প্রশ্ন আপনার মতামত জানাতে পারেন আমাদের কে YouTube : Like Page ইমেল : assignment@banglanewsexpress.com

  • কর্মী সংস্থাপনের ধারণা ব্যাখ্যা করতে হবে।

সফলতার সাথে প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম পরিচালনার লক্ষ্যে সংগঠনের কাঠামাে অনুযায়ী বিভিন্ন পদে কর্মী সংগ্রহ, নির্বাচন উন্নয়ন এবং মূল্যায়নের প্রক্রিয়াকে কর্মসংস্থান বলে। কর্মীসংস্থান নবপ্রতিষ্ঠিত সংগঠনে যেমন প্রয়ােজন, তেমনি পুরনাে প্রতিষ্ঠানেও এটি একটি চলমান প্রক্রিয়া।

কেননা কর্মীরাই প্রতিষ্ঠানের চালিকাশক্তি। মূলত যন্ত্রপাতি, কৌশল, পুঁজি, কাঁচামাল ও অন্যান্য উপকরণ যত পর্যাপ্ত পরিমাণে এবং মানসম্পন্ন হােক কেন দক্ষ কর্মীর যােগান না থাকলে উৎপাদনের উপকরণের সঠিক ব্যবহার কখনাে সম্ভব নয়। কর্মসংস্থান সংগঠনে একদল দক্ষ ও উদ্যমী কর্মীবাহিনী গঠনের মাধ্যমে উৎপাদনের অন্যান্য উপকরণ কে অর্থবহ করে তােলে।

এতএব প্রতিষ্ঠান চাহিদা অনুযায়ী কর্মীর উৎস নির্ধারণ, কর্মী নির্বাচন, সংস্থাপন, প্রশিক্ষণ মূল্যায়ন ইত্যাদি মানবসম্পদ ব্যবহারের সম্পর্কিত বিষয়াদি হলাে কর্মসংস্থান ।

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল ©সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

  • শিল্প প্রতিষ্ঠানে কিভাবে কর্মী নির্বাচন করা হয়, তা ব্যাখ্যা করতে হবে।

শিল্প প্রতিষ্ঠানে কর্মী নির্বাচন প্রতিষ্ঠানের অভ্যন্তরীণ ও বাহ্যিক উৎস থেকে শূন্য পদের জন্য সংগৃহীত ব্যক্তিবর্গ বা আবেদনকারীদের মধ্য থেকে সঠিক ব্যক্তিকে সঠিক পদে নিয়ােগের উদ্দেশ্যে চূড়ান্তভাবে বাছাই করার প্রক্রিয়ায় হলাে কর্মী নির্বাচন পদ্ধতি। একটি শিল্প প্রতিষ্ঠানে যেভাবে কর্মী নির্বাচন করা হয় তা নিম্নে তুলে ধরা হলাে:

আদেনপত্র আহ্বান: শিল্প প্রতিষ্ঠান প্রয়ােজন অনুযায়ী বিভিন্ন শূন্যপদ পূরণের উদ্দেশ্যে পদের সংখ্যা | নির্ধারণ করে আবেদনপত্র আহবান করে থাকে। সাধারণত সংবাদপত্রে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের দ্বারা এ

আহ্বান জানানাে হয়। বিজ্ঞপ্তিতে পদের সংখ্যা, যােগ্যতা, অভিজ্ঞতা ইত্যাদি বিষয় এবং ক্ষেত্রবিশেষে বেতনের উল্লেখ থাকে। আবেদনপত্র গ্রহণ

কর্মী নির্বাচনের দ্বিতীয় পর্যায়ে প্রার্থীদের কাছ থেকে আবেদনপত্র গ্রহণ করা হয়। বৃহৎ শিল্প প্রতিষ্ঠানগুলাে। সাধারণত নিজেরাই মুদ্রিত আবেদন ফরম দিয়ে থাকে যা পূরণ করে প্রার্থীরা প্রতিষ্ঠানে জমা দেন। আবেদনপত্র বাছাই করা বিভিন্ন প্রার্থীর কাছ থেকে প্রাপ্ত আবেদন পত্র পাওয়ার পর বাছাই করা হয়। বিজ্ঞাপনের শর্ত অনুযায়ী। আবেদনকারীর সব তথ্য সন্নিবেশ করেছে কিনা, আবেদনপত্র সঠিক সময়ে পাঠিয়েছে কিনা ইত্যাদি বিষয় বাছাইপর্বে দেখা হয়।

বাছাইকৃত প্রার্থীদের তালিকা প্রস্তুত করন: বাছাই করার পর যে সব প্রার্থীর আবেদন পত্র কর্তৃপক্ষের কাছে সঠিক বলে বিবেচিত হয়, তাদের একটি তালিকা তৈরি করা হয়। এ তালিকার ভিত্তিতে পরবর্তী পর্যায়ে প্রার্থীদের সাক্ষাতকার নেয়া হয় কিংবা লিখিত পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হয়। প্রাথমিক বাছাই পরীক্ষা গ্রহণ

এ পর্যায়ে বাছাইয়ের জন্য একটি সংক্ষিপ্ত পরীক্ষা নেওয়া হয়। প্রাথমিক পর্যায়ে যারা টিকতে পারে কিংবা যাদের প্রার্থিতা কাজের উপযুক্ত মনে হয়না তাদের আবেদন এ পর্যায়ে বাতিল করে দেওয়া হয়। এদের লিখিত পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার সুযােগ দেওয়া হয় না। লিখিত পরীক্ষা গ্রহণ।

প্রাথমিক নির্বাচনী পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের বাংলা, ইংরেজি, সাধারণ জ্ঞান ও পছন্দের বিষয়ের উপর পরীক্ষা নেওয়া হয়। এ পরীক্ষার মাধ্যমে বিষয়ভিত্তিক প্রার্থীর মেধা যাচাই করা হয়।

নিয়ােগ দান: চূড়ান্তভাবে নির্বাচিত ও সুপারিশকৃত প্রার্থীদের নিয়ােগকারী কর্তৃপক্ষ ও বিভাগ নির্দিষ্ট পদে যােগদানের জন্য নিয়ােগপত্র প্রদান করে।

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল ©সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

  • পদোন্নতির ভিত্তিসমূহ ব্যাখ্যা করতে হবে।

পদোন্নতির বিষয় সমূহ পদোন্নতি বা পদোন্নয়ন বলতে কোনাে কর্মীকে তার বর্তমানে আসীন পদ হতে উচ্চতর দায়িত্ব ও পদমর্যাদা সম্পন্ন পদে উন্নীত করাকে বুঝায়। যেকোনাে প্রতিষ্ঠানেই পদোন্নয়ন কর্মীদের উত্তম কাজ হিসেবে গন্য করা হয়ে থাকে।

এতে কর্মীদের মনােবল বৃদ্ধি পায় এবং যােগ্যতাসম্পন্ন কর্মীদের প্রতিষ্ঠানে ধরে রাখা সম্ভব হয়।

জ্যেষ্ঠত্বের ভিত্তিতে পদোন্নয়নসম্পাদনা: কোনাে পদ হতে উচ্চতর পদে কাউকে পদোন্নতির ক্ষেত্রে যদি চাকরির মেয়াদ বিবেচনায় বয়ােজ্যষ্ঠ ব্যক্তিকে নিবার্চন করা হয় তবে তাকে জ্যেষ্ঠত্বের ভিত্তিতে পদোন্নয়ন বলে।

যােগ্যতা বা মেধাভিত্তিক পদোন্নয়নসম্পাদনা: পদোন্নতি পাওয়ার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত ব্যক্তিদের মধ্য থেকে অধিকতর যােগ্যতা ও মেধাসম্পন্ন ব্যক্তিকে নির্বাচন করাকেই যােগ্যতা বা মেধাভিত্তিক পদোন্নয়ন বলে।

জ্যেষ্ঠত্ব ও যােগ্যতাভিত্তিক পদোন্নতিসম্পাদনা: যােগ্য ব্যক্তি বাছায়কালে প্রতিষ্ঠানের সম্ভাব্য ব্যক্তিদের মধ্য থেকে ব্যক্তির চাকরিকাল এবং যােগ্যতা উভয় বিষয়টিকে বিবেচনায় নিয়ে, পদোন্নতি প্রদানকেই জ্যেষ্ঠত্ব ও যােগ্যতাভিত্তিক পদোন্নতি বলে।

একজন কর্মীকে বর্তমান পদ থেকে অধিকতর দায়িত্বপূর্ণ ও মর্যাদা সম্পন্ন উচ্চ পদে নিয়ােগ কে পদোন্নতি বলে।

পদোন্নতির মাধ্যমে যােগ্যতা ও দক্ষতা সম্পন্ন কর্মীদেরকে উচ্চ পদে নিয়ােগ দিয়ে প্রতিষ্ঠানের অভ্যন্তরীণ উৎস থেকে কর্মী সংগ্রহ করা হয়ে থাকে।

এতে করে কর্মীর দক্ষতা ও যােগ্যতা কে স্বীকৃতি দিয়ে তার মনােবল উন্নয়ন করা যায়।

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল ©সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

  • একজন কর্মীকে কেন পদাবনতি দেওয়া হয় তা ব্যাখ্যা করতে হবে।

একজন কর্মিকে যে কারনে পদাবনতি দেওয়া হয় যখন কোন কর্মীকে তার উচ্চপদস্থ পদ থেকে সরিয়ে নিম্ন পদে নামিয়ে দেওয়া হয় তখন তাকে পদ অদাবনতি বলা হয়। প্রতিটি প্রতিষ্ঠান গঠিত হয় মুনাফা অর্জনের উদ্দেশ্য নিয়ে। আর এক্ষেত্রে কর্মসংস্থান এক বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। কেননা কোন প্রতিষ্ঠান দক্ষ কর্মী ছাড়া কখনাে সফলতা লাভ করতে পারে না ।

আরে ক্ষেত্রে দক্ষ কর্মীরাই সবচেয়ে বেশি ভূমিকা পালন করে থাকে। ফলে প্রতিষ্ঠানটি এগিয়ে যায় প্রতিযােগিতার দৌড়ে। আর যখন একজন একজন কর্মী মনােযােগ সহকারে কাজ করে সফলতা অর্জন করতে পারে তখন তাকে এক পথ থেকে অন্য পদে দেওয়া হয় যা পদোন্নতি নামে পরিচিত।

এর ফলে ওই কর্মী তার কাজের প্রতি আরও আগ্রহ বেড়ে যায় এবং এতে করে প্রতিষ্ঠানটি আরাে সফলতা অর্জন করতে পারে ।

অন্যদিকে একজন কর্মী যখন প্রতিষ্ঠানের কথা চিন্তা না করে নিজের ইচ্ছা মত চলাফেরা করে, নিজের ইচ্ছা মত কাজ করে, কাজে অবহেলা করে তবে একটি প্রতিষ্ঠান কখনাে সফলতা অর্জন করতে পারবে না এতে করে প্রতিষ্ঠানটি ধ্বংসের মুখে পড়ে যাবে।

অর্থাৎ যখন একজন কর্মী তার নিজের খেয়াল-খুশি মতাে কাজ করে এবং প্রতিষ্ঠানে কথা চিন্তা করে না, তখন তাকে পদোন্নতি দেওয়া হয় না বরং তাকে পদাবনতি করে দেয়া হয় তার শাস্তি স্বরূপ। অবশেষে বলা যায় পদাবনতি হচ্ছে এক ধরনের শাস্তি।

যা কর্মী তার নিজের দোষের জন্য পেয়ে থাকে। আর এজন্য তাঁকে উচ্চপদস্থ পথটি হারিয়ে নিম্ন পদে ফিরে আসতে হয়।

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল ©সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

এসাইনমেন্ট সম্পর্কে যে কোন প্রশ্ন আপনার মতামত জানাতে পারেন আমাদের কে YouTube : Like Page ইমেল : assignment@banglanewsexpress.com

অন্য সকল ক্লাস এর অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর সমূহ :-

  • ২০২১ সালের SSC / দাখিলা পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ২০২১ সালের HSC / আলিম পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ভোকেশনাল: ৯ম/১০ শ্রেণি পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • HSC (বিএম-ভোকে- ডিপ্লোমা-ইন-কমার্স) ১১শ ও ১২শ শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ২০২২ সালের ১০ম শ্রেণীর পরীক্ষার্থীদের SSC ও দাখিল এসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ২০২২ সালের ১১ম -১২ম শ্রেণীর পরীক্ষার্থীদের HSC ও Alim এসাইনমেন্ট উত্তর লিংক

৬ষ্ঠ শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ , ৭ম শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ ,

৮ম শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ , ৯ম শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় SSC এসাইনমেন্ট :

বিজ্ঞান ১ম ও ২য় বর্ষের এসাইনমেন্ট, ব্যবসায় ১ম ও ২য় বর্ষের এসাইনমেন্ট, মানবিক ১ম ও ২য় বর্ষের এসাইনমেন্ট

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় HSC এসাইনমেন্ট :

মানবিক ১ম ও ২য় বর্ষের এসাইনমেন্ট, বিজ্ঞান ১ম ও ২য় বর্ষের এসাইনমেন্ট , ব্যবসায় ১ম ও ২য় বর্ষের এসাইনমেন্ট

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *