‘মানুষ’ কবিতার আলোকে মানুষের যথার্থ পরিচয় নির্ধারণ, জাতি, ধর্ম, বর্ণ, গোত্র নির্বিশেষে সকল মানুষের প্রতি মমতা ও প্রীতির মনোভাব প্রদর্শনের গুরুত্ব ব্যক্ত করতে হবে।

‘মানুষ’ কবিতার আলোকে মানুষের যথার্থ পরিচয় নির্ধারণ, জাতি, ধর্ম, বর্ণ, গোত্র নির্বিশেষে সকল মানুষের প্রতি মমতা ও প্রীতির মনোভাব প্রদর্শনের গুরুত্ব ব্যক্ত করতে হবে।

এসএসসি পরীক্ষা প্রস্তুতি শিক্ষা
শেয়ার করুন:
শ্রেণি: ১০ম ভোকেশনাল দাখিল2022 বিষয়: বাংলা (২) এসাইনমেন্টেরের উত্তর 2021
এসাইনমেন্টের ক্রমিক নংঃ 02 বিষয় কোডঃ 1921/1721
বিভাগ: ভোকেশনাল শাখা
বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস// https://www.banglanewsexpress.com/

এসাইনমেন্ট শিরোনামঃ ‘মানুষ’ কবিতার আলোকে মানুষের যথার্থ পরিচয় নির্ধারণ

শিখনফল/বিষয়বস্তু :

  • জাতি, ধর্ম, বর্ণ, গোত্র নির্বিশেষে সকল মানুষের প্রতি মমতা ও প্রীতির মনোভাব প্রদর্শনের গুরুত্ব ব্যক্ত করতে হবে।,
  • মানবতা বিরোধী কাজের সঙ্গে মানবিক মূল্যবোধের তুলনা করতে হবে।,

নির্দেশনা :  

  • ১. জাতি-ধর্ম, অর্থ -বিত্তের বাইরে মানুষের পরিচয় নির্ধারণ করতে হবে। ,
  • ২. সাম্য ও মানবতার বাণী প্রতিষ্ঠা করতে মানুষ হিসেবে আমাদের করণীয় ব্যাখ্যা করতে হবে। ,
  • ৩. মানুষের প্রতি ক্সবষম্যমূলক আচরণের কোনো বাস্তব দৃষ্টান্ত তুলে ধরতে হবে।,
  • ৪. মানুষের প্রতি ভালো আচরণ করার ক্ষেত্রে তুমি বা তোমার পরিবার কীভাবে ভূমিকা রাখতে পারো, এ বিষয়ে একটি প্রকল্প/পরিকল্পনা উপস্থাপন করতে হবে।,

এসাইনমেন্ট সম্পর্কে প্রশ্ন ও মতামত জানাতে পারেন আমাদের কে Google News <>YouTube : Like Page ইমেল : assignment@banglanewsexpress.com

  • ১. জাতি-ধর্ম, অর্থ -বিত্তের বাইরে মানুষের পরিচয় নির্ধারণ করতে হবে। ,

‘মানুষ’ কবিতাটি বিদ্রোহী ও জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ‘সাম্যবাদী’ কাব্যগ্রন্থ থেকে সম্পাদনা করে সংকলিত হয়েছে। কবিতাটিতে মানব সেবার মধ্য দিয়েই যে মনুষ্যত্বের বড় পরিচয় নিহিত রয়েছে তা উপস্থাপন করা হয়েছে।

‘মানুষ’ কবিতায় কবি কাজী নজরুল ইসলাম মানবতার জয়গান গেয়েছেন। তাঁর মতে পৃথিবীর সকল মানুষ এক ধর্মের। মানুষের মধ্যে ভেদাভেদকে তিনি অস্বীকার করেছেন। পৃথিবীতে মানুষে মানুষে কোনাে পার্থক্য নেই। তারা একই রক্ত-মাংসের তৈরি। মানুষের সব থেকে বড় পরিচয় সে মানুষ।

আর মানুষের একটাই ধর্ম তা হচ্ছে মানব ধর্ম। বস্তুত কবি কাজী নজরুল ইসলাম ‘মানুষ’ কবিতায় ‘অভেদ ধর্মজাতি’ বলতে মানুষের এই অভিন্নতাকে

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল ©সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

  • ২. সাম্য ও মানবতার বাণী প্রতিষ্ঠা করতে মানুষ হিসেবে আমাদের করণীয় ব্যাখ্যা করতে হবে। ,

সাম্য ও মানবতার বাণী প্রতিষ্ঠায় করণীয় নিন্মে আলােচনা করা হলােঃ

১. সমাজের সকল স্থর থেকে অসাম্য দূর করতে হবে।

২. বৈষম্যহীন মানবসমাজ গড়ে তুলতে হবে। অত্যাচারিতদের অপিরমেয় শক্তির উদ্ভোধন করতে হবে।

৩. সাম্য সত্য আর অসাম্য হলাে দৈত্যরূপী মিথ্যা। দৈত্যের হাত থেকেসত্যকে মুক্ত করে সুন্দর পৃথিবী প্রতিষ্ঠার সংগ্রাম করতে হবে।

৪. প্রতিটি মানুষকে আপন স্রষ্টাকে নিজের মাঝে আবিষ্কার করতে হবে।

৫. প্রতিটি মানুষকে তার নিজের অধিকার প্রতিষ্ঠায় সমদায়িত্বসম্পন্ন হতে হবে।

৬. সাম্য ও মানবতার বাণী সমাজের প্রতিটি স্তরে পৌঁছে দিতে হবে।

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল ©সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

  • ৩. মানুষের প্রতিবৈষম্যমূলক আচরণের কোনো বাস্তব দৃষ্টান্ত তুলে ধরতে হবে।,

কবি কাজী নজরুল ইসলামও ‘মানুষ’ কবিতায় মনুষ্যত্বের বিকাশ ঘটাতে চেয়েছেন। কবিতাটিতে তার প্রতিপক্ষ ছিল নিষ্ঠুর ও স্বার্থবাদী মােল্লা শ্রেণি। তারা মসজিদ ও মন্দিরে দান হিসাবে পাওয়া গােশতরুটি ও প্রসাদ-মিষ্টান্ন একাই দখল করে বসে আছে। তারা অন্নহীন ভুখা মানুষকে তাড়িয়ে দিয়েছে নিষ্ঠুরভাবে।

মন্দির ও মসজিদে দুয়ার বন্ধ করে তালা লাগিয়ে দিয়েছে। কবি তার প্রতিবাদী

ভাষায় এসব অনাচারের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন। তিনি মসজিদমন্দিরের দুয়ার খুলে এসব নিরন্ন মানুষকে খাবার দিতে বলেছেন।

নজরুল ইসলামের ভাষায় প্রতিবাদের চেতনা প্রবল হয়ে উঠেছে। মানুষ’ কবিতায় ধর্মের আড়ালে কিছু মানুষের স্বার্থসিদ্ধির বিষয়টি উন্মােচিত হয়েছে। পূজারী তার ধর্মের লেবাস ধরে নিজের আখের গােছাতে ব্যস্ত। অসহায় ক্ষুধার্ত মানুষের কথা ভাবার সময় তার নেই।

সে ভুখারির সামনে মন্দিরের দরজা বন্ধ করে দিয়েছে। আবার মসজিদের মােল্লা সাহেবও স্বার্থপরতার চরম দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। অনাহারক্লিষ্ট একজন মানুষকে এক টুকরাে রুটি না দিয়ে সে গােশত-রুটি নিয়ে মসজিদে তালা দিয়ে দিয়েছে। যেখানে ধর্মের চর্চা হয়, মানবিকতার চর্চা হয় সেখানে বসে তারা ব্যক্তিগত সুখ স্বাচ্ছন্দ্যের কথা ভেবেছে।

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল ©সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

  • ৪. মানুষের প্রতি ভালো আচরণ করার ক্ষেত্রে তুমি বা তোমার পরিবার কীভাবে ভূমিকা রাখতে পারো, এ বিষয়ে একটি প্রকল্প/পরিকল্পনা উপস্থাপন করতে হবে।,

মানুষের প্রতি ভালো আচারন ক্ষেত্রে আমি বা আমার পরিবার যেভাবে ভূমিকা রাখতে পারি নিচে তার একটি তালিকা উপস্থাপন করা হলােঃ

১. মানব-সমাজে ধর্ম-বর্ণ-গােত্রের যে ভেদাভেদ আছে সেই ভেদাভেদ যেন না হয় তার জন্য আমি ও আমার পরিবার বন্ধু আত্নীয়স্বজন সবাইকে সচেতন করে তুলব।

২. আমার প্রতিবেশীরা যেন কেও না খেয়ে থাকে সেই দিকে দৃষ্টি রাখব।

৩. স্বার্থের জন্য কেউ যেন ধর্মের নীতি লঙ্ঘন করতে না পারে সেই বিষয় টা । আমার পক্ষ হতে যতটা সম্ভব আমি প্রতিহত করব।।

৪. মানুষের মর্যাদা ও সাম্য প্রতিষ্ঠার জন্য নিজেকে সদা সক্রিয় রাখব।

৫. প্রতিটি মানুষের সমভাবে ভােগের ও বাঁচার সম অধিকার আছে তাই আমি | এটা বাস্তবায়নের চেষ্টা করে যাব আমার নিজের আয়ত্বের মাঝে থেকে।

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল ©সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

সবার আগে Assignment আপডেট পেতে Follower ক্লিক করুন

এসাইনমেন্ট সম্পর্কে প্রশ্ন ও মতামত জানাতে পারেন আমাদের কে Google News <>YouTube : Like Page ইমেল : assignment@banglanewsexpress.com

অন্য সকল ক্লাস এর অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর সমূহ :-

  • ২০২১ সালের SSC / দাখিলা পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ২০২১ সালের HSC / আলিম পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ভোকেশনাল: ৯ম/১০ শ্রেণি পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ২০২২ সালের ভোকেশনাল ও দাখিল (১০ম শ্রেণির) অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • HSC (বিএম-ভোকে- ডিপ্লোমা-ইন-কমার্স) ১১শ ও ১২শ শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ২০২২ সালের ১০ম শ্রেণীর পরীক্ষার্থীদের SSC ও দাখিল এসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ২০২২ সালের ১১ম -১২ম শ্রেণীর পরীক্ষার্থীদের HSC ও Alim এসাইনমেন্ট উত্তর লিংক

৬ষ্ঠ শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ , ৭ম শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ ,

৮ম শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ , ৯ম শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১

বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস// https://www.banglanewsexpress.com/

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় SSC এসাইনমেন্ট :

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় HSC এসাইনমেন্ট :

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *