বিগত ৩০ বছরে বাংলা সাহিত্য ও ব্যাকরণ নিয়োগ পরীক্ষায় আষার সকল MCQ নৈবিত্তিক প্রশ্ন সমাধান এক সাথে, নিয়োগ পরীক্ষায় বাংলা থেকে আসা প্রশ্নগুলোর সমাধান, বাংলা সাহিত্য ও ব্যাকরণ নিয়োগ পরীক্ষা, নিয়োগ পরীক্ষা প্রস্তুতি বাংলা ভাষা ও ব্যাকারণ

বিগত ৩০ বছরে বাংলা সাহিত্য ও ব্যাকরণ নিয়োগ পরীক্ষায় আষার সকল MCQ নৈবিত্তিক প্রশ্ন সমাধান এক সাথে, নিয়োগ পরীক্ষায় বাংলা থেকে আসা প্রশ্নগুলোর সমাধান

জানা অজানা নিয়োগ পরীক্ষা পরীক্ষা প্রস্তুতি শিক্ষা সাজেশন
শেয়ার করুন:

নিয়োগ পরীক্ষায় বাংলা থেকে আসা প্রশ্নগুলোর সমাধান

  • তাতা শব্দটির বিপরীত শব্দ – ঠান্ডা।
  • প্রমথ চৌধুরীর সাহিত্যিক ছদ্দনাম – বীরবল।
  • কোন বাক্যটি শুদ্ধ – তুমি চিরজীবী হও।
  • পরিভাষা শব্দের অর্থ কী – সংক্ষেপণার্থ।
  • মুখর এর বিপরীত শব্দ – মৌনী।
  • কোনটি শুদ্ধ – সমীচীন।
  • শরৎচন্দ্র চট্রোপাধ্যায়কে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কোন ডিগ্রি প্রদান করে – সম্মানসূচক ডি.লিট।
  • কবর কবিতাটি প্রথম যখন স্কুলপাঠ্য হিসেবে অন্তভুক্ত হয় তখন জসীমউদ্দীন ছিলেন – বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র।
  • বাংলা ভাষার যতি চিহ্নর প্রচলন করেন – ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর ।
  • সংশয় এর বিপরীতর্থক শব্দ – প্রত্যয়।
  • কবি সুফিয়া কামলের পৈতৃক নিবাস কোন জেলায় – কুমিল্লায়।
  • যে নারীর সন্তান হয না ‘ তাকে এক কথায় কি বলে – বন্ধ্যা।
  • ’ফেলো কড়ি, মাখো তেঁল ‘ বলতে বোঝায় – আবদারহীন নগদ কারবার।
  • সমভিব্যাহার শব্দের অর্থ কী – একত্রে গমন।
  • রাত্রিকালীন যুদ্ধের সংক্ষিপ্ত রুপ- সৌপ্তিক।
  • প্রমথ চৌধুরীর মতে, সাহিত্যের উদ্দেশ্য হলো – আনন্দ দান।
  • নিচের কোন বানানটি শুদ্ধ – নির্মীলিত।
  • ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের মৌলিক গ্রন্থ কোনটি – প্রভাবতী সম্ভাষন।
  • আলাওলের রচনা নয় কোনটি – ইউসুফ- জোলাখা ( বাংলা সাহিত্যের প্রথম মুসলমান কবি শাহ মুহাম্মদ সগীর।
  • বাংলা ভাষার ২০০ + যুক্ত বর্ণের একটি তালিকা পিডিএফ ডাউনলোড
  • রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জীবনী AtoZ সহ সকল প্রশ্ন সমাধান পিডিএফ ডাউনলোড
  • বঙ্গভাষা শীর্ষক সনেট রচনায় মাইকেল মধুসূদন দত্ত অবলম্বন করেছেন কোন রীতি – শেক্সপীয়রীয় ও পেত্রার্কীয়
  • ’কাকভূষন্ডি’ বাগধারর অর্থ কী – দীর্ঘায়ু ব্যক্তি।
  • কোনটি চাঁদের সমার্থ শব্দ নয় – তুরগ ( ঘোরা) ।
  • বাংলা সাহিত্যে ‘অন্ধকার যুগ’ সম্পর্কিত ধারনাকে খন্ডন করেছেন – আহমদ শরীফ।
  • কোনটি পর্তুগিজ শব্দ নয় – আলবেলা।
  • টষ্কার বলতে বোঝায় – ধনুকের ধ্বনি।
  • নিচের কোনটি মৌলিক শব্দ – মুখ।
  • জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম রচিত কোনটি – কুহেলিকা।
  • সত্য যে কঠিন , কঠিনেরে ভালোবাসিলাম -সে কখনো করে না বঞ্চনা। কবিতাংশটি কার – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।
  • পৌ + অক = পাবক।
  • বলার ইচ্ছা’কে এক কথায় কি বলে – বিবক্ষা।
  • মা-বাবার সেবা কর। এটি কি ধরনের বাক্য – অনুজ্ঞাসূচক।
  • ইতিকথা শব্দের অর্থ কি – ইতিহাস।
  • বহুকেন্দ্রিক এর ইংরেজী – polycentric.
  • নিপাতনে সিদ্ধ সন্ধির উদাহরণ – তস্কর।
  • যে বাগধারাটি অন্যগুলো থেকে স্বতন্ত্র- মানিকজোড়।
  • পর কে পালন করে যে – পরভৃৎ।
  • প্রত্যয়বাচক শব্দের দৃষ্টান্ত – শোওয়া।
  • লাইলী-মজনু প্রণয়োনখ্যান সম্পাদনা করেন – আহমদ শরীফ।
  • বিভুঁই শব্দে ’বি’ উপসর্গ যে অর্থে ব্যবহৃত হয়েছে – ভিন্নতা।
  • উত্তম পুরুষ উপন্যাসের রচিয়তা – রশিদ করিম।
  • মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক উপন্যাস নয় – অহিংসা,(মানিক বন্দোপাধ্যায়)।
  • ‘বিদেশী ভাষা শিখিব মাতৃভাষায় শিক্ষত হইবার পর,আগে নয়।’ লেখাটি কার – আবুল মনসুর আহমদের।
  • ঠিক বানানটি হলো- পূর্বাহ্ণ।
  • সামরিক শাসন বিরোধী দৃষ্টিভঙ্গি প্রকাশিত হয়েছে যে উপন্যাসে – ওস্কার।
  • OMBUDSMAN ‘ এর বাংলা পরিভাষা হলো – ন্যায়পাল।
  • ‘to kick the bucket এর সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ শব্দবন্ধ – পটল তোলা।
  • আসাদের শার্ট কবিতাটির রচয়িতা – শামসুর রহমান।
  • লিপিকা যে ধরনের গ্রন্থ – গদ্য।
  • ‘যাকে ভাষায় প্রকাশ করা যায় না’ – তাকে এককথায় বলে – অনির্বচনীয়।
  • দুরারোগ্য ব্যাধির শিকার হয়ে কাজী নজরুল ইসলাম বাকশক্তি হারিয়ে ফেলেন কত বছর বয়সে – তেতাল্লিশ ।
  • বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশন – কম্পিউটার টাইপিস্ট।
  • কোনটি বানানটি শুদ্ধ – স্বায়ত্তশাসন।
  • ‘নকশী কাঁথার মাঠ’ কার লেখা – জসিমউদ্দিন।
  • ফল পাকলে যে গাছ মরে যায় – ওষধি।
  • গবেষণা এর সন্ধি-বিচ্ছেদ- গো+ এষনা।
  • কোনটি শুদ্ধ বানান – সন্ন্যাসী।
  • আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রয়ারি গানটির প্রথম সুরকার কে -আবদুল লতিফ।
  • বাংলার গদ্যের জনক বলা হয় – ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরকে।
  • কোন বাক্যে অনুরোধ বোঝানো হয়েছে – তুমি ভাই আমার কাজটি করে দিও তো।
  • কোন শব্দটি শুদ্ধ বানানো লেখা হয়েছে – দ্বন্দ্ব।
  • জাহানারা ইমাম রচিত ডায়েরিমূলক লেখা কোনটি – একাত্তরের দিনগুলি।
  • কোনটি মধ্যযুগের রচনা – মনসামঙ্গল।
  • বাংলা সাহিত্যের ইতিহাসমূলক শিশুকিশোর রচনা কোনটি – লাল নীল দীপাবলি।
  • ভাষা আন্দোলনের ভিত্তিক ‘কবর’ গ্রন্থটির রচয়িতা কে – মুনীর চৌধুরী।
  • ‘ঘর’ শব্দটির সমার্থক কোনটি – সদন।
  • প্রমিত চলিত রীতির বাক্য কোনটি – খেয়ে দেয়ে শুয়ে পড়লাম।
  • এককথায় প্রকাশ করুন: ফল পাকলে যে গাছ মরে যায় – ওষধি।
  • লাবণ্য কোন উপন্যাসের চরিত্র – শেষের কবিতা।
  • নিচের কোনটি সমরেশ বাবুর ছদ্দনাম – কালকূট।
  • নিচের কোনটি ক্রমবাচক সংখ্যা – সপ্তম।
  • সন্ধি ব্যাকরণের কোন অংশের আলোচিত বিষয় – ধ্বনিতত্ত্ব।
  • সংশয় এর বিপরীত শব্দ – প্রত্যয়।
  • স্বাগত শব্দের সন্ধি বিচ্ছেদ – সু+আগত।
  • মুক্তিযুদ্ধ – ভিত্তিক শামসুর রাহমানের কাব্যগ্রন্থটি হলো – বন্দী শিবির থেকে।
  • চলিত গদ্য রীতির ধারা প্রবর্তন করে কোন পত্রিকা – সবুজপত্র।
  • খাঁচার ভিতর অচিন পাখি কেমনে আসে যায় – মরমি গানটির রচয়িতা কে – লালন শাহ।
  • বাংলা সাহিত্যের প্রথম সার্থক ট্রাজেডি নাটক – কৃষ্ণকুমারী ।
  • সৈয়দ মুজতবা আলী রচিত ‘দেশে বিদেশে’ একটি – ভ্রমন কাহিনী।
  • পায়ের আওয়াজ পাওয়া যায় নাটকের উপজীব্য বিষয় হলো – মুক্তিযুুদ্ধ।
  • বাগধার অর্থ নির্ণয় করুন:ঘটিরাম – মূর্খ।
  • ক্ষ এর বিশ্লিষ্ট রুপ – ক+ষ।
  • যা বলার যোগ্য নয় , এক কথায় বলা হয় – অকথ্য।
  • ইত্যাদি শব্দের সন্ধি বিচ্ছেদ – ইতি + আদি।
  • কোন বানানটি শুদ্ধ – দূষনীয়।
  • পিতামাতা শব্দটি কোন সমাস – দ্বন্দ্ব সমাস।
  • ‘গোড়ায় গলদ’ বাগধারটির অর্থ কি – শুরুতে ভুল।
  • কোনটি সঠিক – ভদ্রোচিত।
  • বকলম শব্দটি বাংলা ভাষায় এসেছে – ফারসি ভাষা থেকে।
  • এপিটাফ শব্দের অর্থ – সমাধি-লিপি।
  • অকালে যাকে জাগরণ করা হয় তাকে এক কথায় কিবলে – অকালবোধন।
  • জাতি+অভিমান – জাত্যভিমান।
  • সংশয় এর বিপরীত শব্দ – প্রত্যয়।
  • যার কোনো মূল্য নেই-এর সমার্থক বাগধারা কোনটি – ঢাকের বাঁয়া।
  • একাদশে বৃহষ্পতি অর্থ- সুসময়।
  • নিচের কোন বানানটি শুদ্ধ -নীরস।
  • বিড়ালের আড়াই পা বাগধারাটির অর্থ- বেহায়াপনা।
  • সমাস নিষ্পন্ন পদটিকে কি বলা হয় – সমস্ত পদ।
  • নিচের কোন স্ত্রীবাচক শব্দের দুটি পুরুষবাচক শব্দ আছে – ননদ।
  • কোনটি সঠিক সন্ধি বিচ্ছেদ – সম+চয়= সঞ্চয়।
  • গোঁপ খেজুরে কোন সমাস – ব্যধিকরণ বহুব্রীহি।
  • সম্পৃক্ত শব্দটির সঠিক অর্থ – সংযুক্ত।
  • অগ্রজ-এর বিপরীতার্থক শব্দ কোনটি – অনুজ।
  • তপুকে আবার ফিরে পাব, একথা ভুলেও ভাবিনি কোন দিন, নিম্মের কোনটি থেকে নেয়া – একুশের গল্প।
  • নিরানব্বইয়েল ধাক্কা বাগধারাটির অর্থ – সঞ্চয়ের প্রবৃত্তি।
  • আপণ শব্দটির অর্থ – দোকান।
  • যার কোন কিছু থেকেই ভয় নেই-এক কথায় প্রকাশ কি – অকুতোভয়।
  • শুদ্ধ বানান কোনটি – বিভীষিকা।
  • সওগাত শব্দের অর্থ- উপহার।
  • বাক্যের মৌলিক উপাদান কোনটি – শব্দ।
  • কোন বানানটি শুদ্ধ – নিরীহ।
  • “মেঘে বৃষ্টি হয়” একানে মেঘ কোন কারক – অপাদান কারক।
  • ‘মা , তোর বদলখানি মলিন হলে আমি নয়নজলে ভাসি’ – চরনটির রচয়িতা – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।
  • ’সবার উপর মানুষ সত্য , তাহার উপর নাই- পঙক্তিটি কে রচনা করেন – চন্ডীদাস।
  • ‘কুয়াসার বুকে ভেসে একদিন আসিব এ কাঁঠালছায়ায়’- কে আসবেন – জীবনানন্দ দাশ।
  • সেলিনা হোসেন কোন গ্রন্থ অবলম্বনে চলচ্চিত্র নির্মিত হয়েছে – পোকামাকড়ের ঘরবসতি।
  • কর্মধারয় সমাসের উদাহরণ কোনটি – নীলপদ্ম।
  • নিচের কোন বানানটি সঠিক – বিভীষিকা।
  • জসীমউদ্দীন কবর কবিতাটি কোন কাব্যগ্রন্থের অন্তর্ভূক্ত – রাখালী।
  • চাঁদ শব্দের সমার্থক কোনটি – বিধু।
  • কুল কাঠের আগুন এর সঠিক অর্থ কোনটি – তীব্র জ্বালা।
  • তিলে তৈল হয় এখানে তিলে কোন কারকে কোন বিভক্তি – অপাদানে ৭মী।
  • নিচের কোনটি সঠিক -সুধী।
  • ‘তুমি আমার সঙ্গে প্রপঞ্চ করেছো’ বাক্যটি কোন দোষে দুষ্ট – দুর্বোধ্যতা।
  • নিচের কোনটি মিশ্র শব্দ – খ্রিষ্টাব্দ।
  • মৌলিক স্বরধ্বনি কোনটি – ই।
  • নিচের কোনটি প্রবন্ধের বই – কালান্তর।
  • সৌম্য এর বিপরীত শব্দ – উগ্র।
  • অশুদ্ধ বানান কোনটি – ভূল ( সঠিকটি-ভুল)।
  • খক্ষ-এর সমার্থাক শব্দ নয় কোনটি – ভল্ল।
  • নিচের কোন বানানটি শুদ্ধ – সংশ্রব/ধস।
  • ষড়ঋতু শব্দের সঠিক সন্ধি বিচ্ছেদ – ষট্+ ঋতু।
  • সিংহাসন শব্দটি কোন সমাস – মধ্যপদলোপী কর্মধারয়।
  • জেলে এর সঠিক প্রকৃতি প্রত্যয় কী – জাল + ইয়া।
  • মকমক হলো – ব্যাঙের ডাক।
  • Jingling of anklet এর বাংলা কি – নূপুরের ঝুনুঝুনু।
  • দুটো বাক্যের মধ্যে ভাবের সম্বন্ধ থাকলে তাদের মাঝে কি চিহ্ন বসে – সেমিকোলন
  •  
  • কারক ও বিভক্তি মনে রাখার কৌশল
  • কারক ৬ প্রকার:
  • ১. কর্তৃকারক
  • ২. কর্মকারক
  • ৩. করণকারক
  • ৪. সম্প্রদান কারক
  • ৫. অপাদান কারক
  • ৬. অধিকরণ কারক
  • ১। কর্তৃকারক: যে কাজ করে সেই কর্তা বা কর্তকারক।
  • যেমন: আমি ভাত খাই। বালকেরা মাঠে ফুটবল খেলছে। এখানে মনে রাখার উপায় হচ্ছে ‘কে’ বা ‘কারা’ দিয়ে প্রশ্ন করলে যে উত্তর পাওয়া যায়, সেটিই কর্তা বা কর্তৃকারক। কে ভাত খায়? উত্তর হচ্ছে আমি। কারা ফুটবল খেলছে? উত্তর হচ্ছে-বালকেরা। তাহলে আমি এবং বালকেরা হচ্ছে কর্তৃকারক।
  • ২। কর্মকারক: কর্তা যাকে অবলম্বন করে কার্য সম্পাদন করে সেটাই কর্ম বা কর্মকারক।
  • যেমন: আমি ভাত খাই। হাবিব সোহলকে মেরেছে। এখানে মনে রাখার উপায় হচ্ছে ‘ কি’ বা ‘কাকে’ দিয়ে প্রশ্ন করলে যে উত্তর পাওয়া সেটিই কর্ম বা কর্মকারক। আমি কি খাই? উত্তর হচ্ছে-ভাত। হাবিব কাকে মেরেছে? উত্তর হচ্ছে-সোহেলকে।
  • ৩। করণ কারক: ক্রিয়া সম্পাদনের যন্ত্র বা উপকরণ বুঝায়।
  • যেমন: নীরা কলম দিয়ে লেখে। সাধনায় সিদ্ধি লাভ হয়। এখানে মনে রাখার উপায় হচ্ছে ‘ কীসের দ্বারা’ বা ‘কী উপায়ে’ দিয়ে প্রশ্ন করলে যে উত্তর পাওয়া যায় সেটিই করণ কারক। নীরা কীসের দ্বারা লেখে? উত্তর হচ্ছে-কলম । কী উপায়ে বা কোন উপায়ে কীর্তিমান হওয়া যায়? উত্তর হচ্ছে-সাধনায়।
  • ৪। সম্প্রদান কারক: স্বত্ব ত্যাগ করে দান বা অর্চনা বুঝালে সম্প্রদান কারক হয়। স্বত্ব ত্যাগ না করলে কর্মকারক। যেমন: ভিক্ষারীকে ভিক্ষা দাও। গুরুজনে কর নতি। মনে রাখার উপায় হচ্ছে- কর্মকারকের মত কাকে দিয়ে প্রশ্ন করলে রে উত্তর পাওয়া যায়। তবে এখানে স্বত্ব থাকবেনা। যেমন মানুষ ভিক্ষারীকে দান করে কোন স্বত্ব ছাড়াই যাকে বলে নি:শর্ত ভাবে। আবার গুরুজনকে মানুষ সম্মান করে কোন স্বার্থ ছাড়াই।
  • ৫। অপাদান কারক: হতে, থেকে বুঝালে অপাদান কারক হবে।
  • যেমন: গাছ থেকে পাতা পড়ে। পাপে বিরত হও। এখাছে কোথা থেকে পাতা পড়ে? উত্তর হচ্ছে-গাছ । কি হতে বিরত হও? উত্তর হচ্ছে – পাপ ।
  • ৬। অধিকরণ কারক: ক্রিয়ার সম্পাদনের সময় বা স্থানকে অধিকরণ কারক বলে। যেমন: আমরা রোজ স্কুলে যাই। প্রভাতে সূর্য ওঠে। মনে রাখার উপায় হচ্ছে- কোথায় এবং কখন দিয়ে প্রশ্ন করলে যে উত্তর পাওয়া যায়। আমরা রোজ কোথায় যাই? উত্তর হচ্ছে-স্কুলে। আর স্কুল একটি স্থান। কখন সূর্য ওঠে? উত্তর হচ্ছে-প্রভাতে। আর প্রভাত একটি কাল বা সময়।
  • বাংলার কিছু অতি গুরুপ্তপুর্ন MCQ মনে রাখার চেষ্টা করবেন
  • একটি পূর্ণাঙ্গ মঙ্গলকাব্যের কতটি অংশ থাকে ?
  • উঃ ৫
  • মঙ্গলকাব্যের সন্ধান পাওয়া কবির সংখ্যা
  • উঃ ৬২
  • জাত মহাকাব্য
  • উঃ ৪টি
  • বৈষ্ণব পদকর্তা ‘ চন্ডীদাস’ কতজন ?
  • উঃ ৪
  • বৈষ্ণব পদাবলীর প্রধান কবি
  • উঃ ৪
  • সাহিত্য রস
  • উঃ ৯
  • সাহিত্য অলঙ্কার
  • উঃ ২
  • চতুর্দশপদী কবিতাবলী’তে কতটি কবিতা সংকলিত
  • হয়
  • উঃ ১০২টি।
  • চর্যাপদে পদের সংখ্যা
  • = ৫১ টি । পাওয়া গেছে সাড়ে চেচল্লিশটি । যায়নি ( ২৩ এর অর্ধেক , ২৪ , ২৫, ৪৮)
  • চর্যাপদের কবির সংখ্যা
  • উঃ ২৩/২৪
  • চর্যাপদের প্রবাদ বাক্য
  • উঃ ৬টি
  • ছন্দ
  • উঃ ৩
  • রামায়ণের খণ্ড সংখ্যা
  • উঃ ৭
  • মেঘনাদবধ’ মহাকাব্যের সর্গ সংখ্যা
  • উঃ ৯টি।
  • ‘বীরাঙ্গনা’ কাব্যে পত্র আছে
  • উঃ ১১টি।
  • শ্রীকৃষ্ণকীর্
  • তন কাব্যের খণ্ড সংখ্যা
  • উঃ ১৩
  • শ্রীকৃষ্ণকীর্রতন কাব্যের পদসংখ্যা
  • উঃ ৪১৮
  • প্রধান মঙ্গলকাব্য কতটি
  • উঃ ৩
  • রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর মোট কতটি উপন্যাস রচনা করেন ?
  • উঃ ১২টি।
  • রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর কতটি ছদ্মনামে গ্রন্থ রচনা
  • করেন
  • উঃ ৯টি।
  • মহাশ্মশান’ মহাকাব্যের সর্গ সংখ্যা
  • উঃ ৬০
  • কবর’ কবিতায় মোট কতটি চরণ আছে.?
  • উঃ ১১৮টি।
  • গীতাঞ্জলি’তে মোট কবিতা ও গান আছে
  • উঃ ১৫৭টি।
  • শেষের কবিতায় কয়টি কবিতা আছে?
  • উঃ ১৬ টি।
  • কাজী নজরুল ইসলামের কতটি গ্রন্থ নিষিদ্ধ হয়
  • উঃ ৫টি।
  • অগ্নিবীণায় কাব্যে কতটি কবিতা রয়েছে ?
  • উঃ ১২টি
  • কাজী নজরুল ইসলামের বাঁধনহারা উপন্যাসে পত্র সংখ্যা কতটি
  • উঃ ১৮ টি
  • ফররুখ আহমেদের ‘ সাত সাগরের মাঝি” কাব্যে কতটি কবিতা রয়েছ বিষাদসিন্ধু’র খণ্ড
  • উঃ ৩
  • মৈমনসিংহ গীতিকা’কতটি ভাষায় অনূদিত হয়েছে
  • উঃ ২৩টি।
  • মৈমনসিংহ গীতিকার কতটি পালা জসিমউদ্দীন সংগ্রহ
  • করেন
  • উঃ ৩০টি
  • বাংলা ভাষার ২০০ + যুক্ত বর্ণের একটি তালিকা পিডিএফ ডাউনলোড
  • রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জীবনী AtoZ সহ সকল প্রশ্ন সমাধান পিডিএফ ডাউনলোড

তৎসম, অর্ধতৎসম, তদ্ভব, বিদেশী ও দেশি শব্দগুলো মনে রাখার সহজ পদ্ধতিঃ-

———————————————

★তৎসম শব্দ★

———————————————

“হস্ত” এ যদি থাকে “শক্তি”

“চন্দ্র” “সূর্য” “নক্ষত্র” করবে “ভক্তি”।

“ভবনের” “পত্র” “ধর্ম”,

“লাভ” “ক্ষতি” “মনুষ্য” “পর্বত” এর “কর্ম”।

“সন্ধায়” করো না “ভোজন” “শয়ন” “গমন”।

———————————————

★ অর্ধতৎসম শব্দ ★

———————————————

“গিন্নী” “মাগগী” “জ্যোছনা” “কুৎসিত” “গতর” এ “বোষ্টম” এর বাড়ীতে “নেমন্তন” খেতে যান।

“পুরুত” ও “কেষ্ট” “খিদে” পেয়ে “আদা” খান।

———————————————

★তদ্ভব শব্দ ★

———————————————

“আখি” “আজ” করেছে “কাজ”,

“মৌ” পরেছে “বিয়ে” র “সাজ”।

“বৌমা” এনেছে “মাছ” “ভাত”।

“মাথা” য় “হাত” ”কান” এ “দাত”,

“চাঁদ” ‘সই” করা “তদ্ভব” এর “কাজ”।

———————————————

★ পর্তুগিজ শব্দ ★

———————————————

“পর্তুগাল” এর “পাদ্রী” সাহেব “চাবি” দিয়ে “গীর্জা” খুলল,

তিনি ১ “বালতি” “আটা” “আনারস” “আলপিন” “পেঁপে” “পেঁয়ারা” “পাউরুটি” “আচার” “সাগু” ও “সালসা” “আলমারি” তে রেখে দিলো।

“বিন্তি” “সাবান” ও “তোয়ালে” নিয়ে “কামরা” য় ঢুকলো। সে ঝর্না ছাড়িয়া তার “কামিজ” এর “বোতাম” ও “ফিতা” খুলিতে লাগলো। এমন সময় “আতা” “জানালা” য় “টোকা” মারিল।

“কেরানী” ও “আয়া” “বারান্দা” র। ”কেদারা” য় বসে ফালতু মস্করা করে একটি গান গাইলো:-

স্বামী আর “ইস্তিরি”

“পেরেক” মারে “মিস্ত্রি”।

———————————————

★ তুর্কি শব্দ ★

———————————————

“বিবি” “বেগম” “কোর্মা” খায়,

“বাবা” “বাহাদুর” দেশ চালায়।

“দারোগা” “বাবু” তাকিয়ে দেখে,

“গালিচা” য় “কুলি” র “লাশ”।

“চাকু” হাতে “বাবুর্চি” তাই দেখে হতবাক।

———————————————

★ দেশি শব্দ ★

——————————————-

*** এক গঞ্জের কুড়ি ডাগড় টোপর মাথায় দিয়ে চোঙ্গা হাতে পেটের জ্বালায় চুলা কুলা ডাব ও ডিংগা নিয়ে টং এর মাচায় উঠল।

*** গঞ্জ , কুড়ি, ডাগড়, টোপর, চোঙ্গা,চুলা, কুলা, ডাব, ডিংগা,টং ,মাচা ইত্যাদি।

বাগধারা এবং প্রবাদ-প্রবচনের সকল প্রশ্ন

সমাধান একসাথে

1. ‘অন্তর টিপুনী’ বাগধারাটির অর্থ কি?

ক. বিপদ

খ. গভীর

গ. গোপন ব্যথা

ঘ. হিংসা

উত্তরঃ গ

2. ‘অন্ধকার দেখা’ বাগধারাটির সঠিক অর্থ কোনটি?

ক. দুর্লভ বস্তু

খ. হতবুদ্ধি

গ. দৃষ্টি শক্তিহীন

ঘ. স্বার্থে আঘাত লাগা

উত্তরঃ খ

3. ‘অর্ধচন্দ্র’ এর অর্থ-

ক. গলাধাক্কা দেয়া

খ. অমাবস্যা

গ. দ্বিতীয়ত

ঘ. কাস্তে

উত্তরঃ ক

4. ‘অরণ্যে রোদন’ কথাটির অর্থ কী?

ক. অবিরাম কান্না

খ. ছিঁদকাঁদুনে

গ. বৃথা চেষ্টা

ঘ. বারংবার চেষ্টা করা

উত্তরঃ গ

5. নিচের বাক্যসমূহের মধ্যে কোনটি বিশিষ্টার্থক বাক্যযুক্ত নির্দেশ করুন-

ক. বাংলাদেশীরা আলস বলে পরিচিত

খ. ঘাড়ে কিলিয়েও ওকে দিয়ে কাজ করাতে পারবে না

গ. সমুদ্রে লোনা পানির ঢেউ উঠেছে

ঘ. বুড়ীর নাতিটা ঠিল অন্ধের যষ্ঠি, সেও মারা গেল

উত্তরঃ ঘ

6. নিচের বাগধারা যুগলদের মধ্যে কোন জোড়া সর্বাধিক সমাচ্যবাচক?

ক. অমাবস্যার চাঁদ, আকাশ কুসুম

খ. আকাশে তোলা, আষাঢ়ে গল্প

গ. অহিনকুল সম্বন্ধ, আদায় কাঁচকলায়

ঘ. অগ্নিপরীক্ষা, অদৃষ্টের পরিহাস

উত্তরঃ গ

7. ‘আদিখ্যেতা’ বাগধারাটির অর্থ কি?

ক. মারা যাওয়া

খ. না জেনে কিছু করা

গ. অপদার্থ

ঘ. ন্যাকামি

উত্তরঃ ঘ

8. ‘আগড়ম বাগড়ম’ বাগধারা অর্থ-

ক. সুন্দর কথা

খ. প্রচুর কথা

গ. রাগের কথা

ঘ. অর্থহীন কথা

উত্তরঃ ঘ

9. ‘আক্কেল সেলামি’-এর প্রকৃত অর্থ কোনটি?

ক. অত্যন্ত বৃদ্ধিমান

খ. অতি চালাক

গ. হাঁদরাম

ঘ. নির্বুদ্ধিতার দণ্ড

উত্তরঃ ঘ

10. ‘আকাশ ভেঙ্গে পড়া’ বাগধারাটির সঠিক অর্থ কোনটি?

ক. মন্দভাগ্য

খ. আশ্চয হওয়া

গ. হঠাৎ বিপদ হওয়া

ঘ. কঠিন পরীক্ষা

উত্তরঃ গ

11. বাগধারা বা বাগ্বিধি কোনো শব্দ বা শব্দগুচ্ছের-

ক. আভিধানিক অর্থ প্রকাশ করে

খ. বিশেষ অর্থ প্রকাশ করে

গ. আক্ষরিক অর্থ প্রকাশ করে

ঘ. অতিরিক্ত অর্থ প্রকাশ করে

উত্তরঃ খ

12. সাধারণ অর্থের বাইরে যা বিশিষ্ট অর্থ প্রকাশ করে থাকে তাকে বলে-

ক. বাগ্বিধি

খ. সমার্থক শব্দ

গ. ভিন্নার্থক শব্দ

ঘ. বিপরীতার্থক শব্দ

উত্তরঃ ক

13. ‘অকাল কুস্মাণ্ড’ বাগধারাটির অর্থ কোনটি?

ক. অকর্মা

খ. কর্মবিমুখ

গ. বোকা

ঘ. মূর্খ

উত্তরঃ ক

14. বাগধারার অর্থ নির্ণেয় করুন: ‘অক্কা পাওয়া’

ক. দুর্লভ বস্তু

খ. স্বার্থপর

গ. বেহায়া

ঘ. মরা

উত্তরঃ ঘ

15. ‘অমাবস্যার চাঁদ’ বাগধারাটির অর্থ কি?

ক. সহজলভ্য

খ. দুর্লভ বস্তু

গ. লুকিয়ে থাকা

ঘ. অমাবস্যার রাতে চাঁদ

উত্তরঃ খ

16. ‘দুর্লভ বস্তু’ বাগধারাটির অর্থ কি?

ক. আকাশ

খ. অমাবস্যার চাঁদ

গ. একাদশে বৃহস্পতি

ঘ. অরণ্যে রোদন

উত্তরঃ খ

17. ‘অগস্ত্য যাত্রা’ বাগধারাটির অর্থ কি?

ক. শুরু করা

খ. বিশ্রাম করা

গ. তাড়াতাড়ি শেষ করা

ঘ. শেষ বিদায়

উত্তরঃ ঘ

18. ‘অজগর বৃত্তি’ বাগধারাটির অর্থ কি?

ক. লোভী

খ. আলসেমি

গ. অপদার্থ

ঘ. প্রচণ্ড গরম

উত্তরঃ খ

19. ‘অকালে বাদলা’ বাগধারার অর্থ কি?

ক. অপ্রত্যাশিত বাধা

খ. যা সচরাচর ঘটে না

গ. পৌষ-মাস মাসের বৃষ্টি

ঘ. নিত্যনৈমিত্তিক বিষয়

উত্তরঃ ক

20. ‘অনুরোধে ঢেঁকি গেলা’ বাগধারাটির সঠিক অর্থ হচ্ছে-

ক. অনুরোধে পড়ে অসাধ্য সাধন করা

খ. অনুরোধে অনিচ্ছা সত্ত্বেও কিছু করা

গ. চাপে পড়ে অন্যায় কাজ করে ফেলা

ঘ. অনুরোধে ঢেঁকি গিলে ফেলা

উত্তরঃ খ

21. ‘আকাশ কুসুম’ বাগধারার অর্থ নির্ণয় কর?

ক. হতবুদ্ধি

খ. সুদূরদর্শী

গ. সুন্দর ফুল

ঘ. কোনোটিই নয়

উত্তরঃ ঘ

22. ‘আকাশ কুসুম’ শব্দের অর্থ কোনটি?

ক. অলীক ভাবনা

খ. অদ্ভুত জিনিস

গ. সুন্দর কল্পনা

ঘ. স্বপ্ন

উত্তরঃ ক

23. ‘আকাশ পাতাল’ বাগধারাটির অর্থ কি?

ক. বিশৃঙ্খলা

খ. শত্রুতা

গ. প্রচুর ব্যবধান

ঘ. অবাস্তব

উত্তরঃ গ

24. ‘আষাঢ়ে গল্প’ বলতে কী বোঝায়?

ক. আষাঢ় মাসের গল্প

খ. বৃষ্টির গল্প

গ. গাজাখুরি গল্প

ঘ. শ্রাবণ মাসের গল্প

উত্তরঃ গ

25. ‘আট কপালে’ বাগধারার অর্থ-

ক. হতভাগ্য

খ. ভাগ্যবান

গ. সরু কপাল

ঘ. চওড়া কপাল

উত্তরঃ ক

26. কোন প্রবচনটি ‘হতভাগ্য’ অর্থে ব্যবহৃত?

ক. আট কপালে

খ. উড়নচণ্ডী

গ. ছা-পোষা

ঘ. ভূশণ্ডির কাক

উত্তরঃ ক

27. ‘আমড়া কাঠের ঢেঁকি’ কে কি বলে?

ক. নরম

খ. অপদার্থ

গ. বোকা

ঘ. অসম্ভব বস্তু

উত্তরঃ খ

28. ‘কুঁড়ে স্বভাব’ কোন বাগধারা দ্বারা বোঝানো হয়?

ক. ঊনপঞ্চাশ বায়ু

খ. আঠারো মাসে বছর

গ. অকাল কুস্মাণ্ড

ঘ. অল্পবিদ্যা ভয়ঙ্করী

উত্তরঃ খ

29. ইঁদুর কপালে কী?

ক. প্রবাদ

খ. বাগধারা

গ. সমস্তপদ

ঘ. ব্যাসবাক্য

উত্তরঃ খ

30. উজানের কৈ- এই বাগধারাটির অর্থ কি?

ক. বিরাট আয়োজন

খ. সহজলভ্য

গ. অপদার্থ

ঘ. সামান্য পার্থক্য

উত্তরঃ খ

31. ‘ঊনকোটি চৌষট্টি’ এ বাগধারার অর্থ হলো-

ক. অপদার্থ

খ. পাগলামি

গ. অপব্যয়ী

ঘ. প্রায় সম্পূর্ণ

উত্তরঃ ঘ

32. ‘ঊনপঞ্চাশ বায়ু’ বাগধারাটির অর্থ কি?

ক. ঘৃণা

খ. বিরক্তি

গ. বদমেজাজ

ঘ. পাগলামি

উত্তরঃ ঘ

33. ‘ঊনপাঁজুরে’ বাগধারাটির অর্থ কি?

ক. সৌভাগ্যবান

খ. হতভাগ্য

গ. সুসময়

ঘ. এর কোনোটিই নয়

উত্তরঃ খ

34. ‘ঊনপাঁজুরে’ শব্দের অর্থ-

ক. সৌভাগ্যবান

খ. লোভী

গ. কর্মঠ

ঘ. দুর্বল

উত্তরঃ ঘ

35. কোন বাগধারাটি ‘দুর্বল’ অর্থ প্রকাশক-

ক. অকাল কুস্মাণ্ড

খ. গোবর গণেশ

গ. ঊনপাঁজুরে

ঘ. কূপমণ্ডুক

উত্তরঃ গ

36. ‘একাদশে বৃহস্পতি’ কী?

ক. প্রবাদ

খ. বাগধারা

গ. সমস্তপদ

ঘ. ব্যাসবাক্য

উত্তরঃ খ

37. ‘একাদশে বৃহস্পতি’ এর অর্থ কি?

ক. সৌভাগ্যের বিষয়

খ. আশার কথা

গ. মজা পাওয়া

ঘ. আনন্দের বিষয়

উত্তরঃ ক

38. ‘একাদশে বৃহস্পতি’ অর্থ-

ক. সুসময়

খ. দুঃসময়

গ. অলীক বস্তু

ঘ. শেষ রক্ষা

উত্তরঃ ক

39. সৌভাগ্যের বিষয় কোন বাগধারাটি দ্বারা বোঝানো হয়েছে?

ক. কাঁচা পয়সা

খ. কেঁচো খুঁড়তে সাপ

গ. একাদশে বৃহস্পতি

ঘ. এসপার ওসপার

উত্তরঃ গ

40. ইঁদুর কাপালে-

ক. নিতান্ত মন্দ ভাগ্য

খ. অনধিকারের অধিকার

গ. ভাগ্যাহত

ঘ. ভাগ্যহীন

উত্তরঃ ক

41. উঁদুর কপালে-এর বিপরীত বাগধারা কোনটি?

ক. অদৃষ্টের পরিহাস

খ. একাদশে বৃহস্পতি

গ. অন্ধকার দেখা

ঘ. কেউকেটা

উত্তরঃ খ

42. ‘ইতর’ শব্দ কোনটি?

ক. বদমেজাজী

খ. হতচ্ছাড়া

গ. গেঁজানো

ঘ. মড়াদাহ

উত্তরঃ ক

43. ‘ইতর বিশেষ’ বাগধারাটির অর্থ-

ক. অভদ্র

খ. ভেদাভেদ

গ. ঝগড়াটে

ঘ. অপছন্দনীয়

উত্তরঃ খ

44. ‘উপরোধে ঢেঁকি গেলা’ বাগধারাটির সঠিক অর্থ হচ্ছে-

ক. অনুরোধে পড়ে অসাধ্য সাধন করা

খ. অনুরোধে অনিচ্ছা সত্ত্বেও কিছু করা

গ. চাড়ে পড়ে অন্যায় কাজ করে ফেলা

ঘ. অনুরোধে ঢেঁকি গিলে ফেলা

উত্তরঃ খ

45. ‘উড়ে এসে জুড়ে বসা’ এর অর্থ কি?

ক. হঠাৎ আবির্ভাব

খ. দূর থেকে আসা

গ. অনধিকার চর্চা

ঘ. অধিকার প্রতিষ্ঠা করা

উত্তরঃ গ

46. ‘উত্তম মধ্যম’ বলতে কি বুঝায়?

ক. সম্মান

খ. মাঝামাঝি

গ. প্রহার

ঘ. ওপর-নিচে

উত্তরঃ গ

47. কোন বাগধারাটি ভিন্নার্থক?

ক. অহি-নকুল

খ. উত্তম-মধ্যম

গ. সাপে-নেউলে

ঘ. আদায়-কাঁচকলায়

উত্তরঃ খ

48. ‘উড়নচণ্ডী’ বাগধারাটির অর্থ নির্ণয় কর।

ক. অমিতব্যয়ী

খ. উচ্ছৃঙল

গ. অবাধ্য

ঘ. কোনোটিই নয়

উত্তরঃ ক

49. ‘উলুবনে মুক্তা ছাড়ানো’- এর সঠিক অর্থ-

ক. অজায়গায় গমন করা

খ. অপাত্রে সম্প্রদান করা

গ. অস্থানে যোগাযোগ করা

ঘ. অপাত্রে অনুসন্ধান করা

উত্তরঃ খ

উচ্চারণ একই রকমের কিন্তু বানান ও অর্থ ভিন্ন পিডিএফ ডাউনলোড

Vocabulary

উচ্চারণ একই; অর্থ ভিন্ন!

1 Ad (বিজ্ঞাপন)

2 Add (যোগ করা)

3 Advice (উপদেশ)

4 Advise (উপদেশ দেওয়া)

5 Adapt (খাপ খাওয়ানো / মানিয়ে নেওয়া)

6 Adept (পারদর্শী / সুদক্ষ)

7 Adopt (অবলম্বন করা / পোষ্যগ্রহণ করা)

8 Amend (সংশোধন করা / সংস্কার করা)

9 Emend (লিখিত বা ছাপা অক্ষরের ভুল সংশোধন করা)

10 Appraise (যাচাই করা / মূল্য নির্ধারণ করা)

11 Apprise (জ্ঞাত করা / অবগত করান)

12 Accept (গ্রহন করা)

13 Except (ব্যতীত)

14 Aspect (দৃষ্টিভঙ্গি)

15 Expect (প্রত্যাশা করা)

16 Access (প্রবেশের অধিকার)

17 Excess (অতিরিক্ত)

18 Accede (রাজী হওয়া)

19 Exceed (অতিক্রম করা)

20 Ascent (আরহণ)

21 Assent (সম্মতি)

22 Assay (চেষ্টা করা / পরীক্ষা করা)

23 Essay (রচনা / প্রবন্ধ )

24 Affect (প্রভাব্ ফেলা)

25 Effect (ফল / পরিণতি)

26 Accomplice (দূস্কর্মে সহযোগী / দোসর)

27 Accomplish (সম্পাদন করা / সমাধান করা )

28 Angle (কোণ / দৃষ্টি কোণ)

29 Angel(ফেরেস্তা / দেবদূত)

30 Allusion (উল্লেখ / ইঙ্গিত)

31 Illusion (বিভ্রম / ঘোর)

32 Along (বরাবর)

33 Alone (একাকী)

34 Altar (বেদী)

35 Alter (পরিবর্তন করা)

36 Allowed (অনুমতি)

37 Aloud (সশব্দে / উচ্চ স্বরে )

38 Allude (পরক্ষভাবে উল্লেখ করা)

39 Elude (এড়িয়ে যাওয়া)

40 Bad (খারাপ)

41 Bed (বিছানা)

42 Bag (থলে / ব্যাগ)

43 Beg (প্রার্থনা করা)

44 Bat (খেলার ব্যাট / বাদুর)

45 Bet (বাজি ধরা)

46 Beat (প্রহার করা / আঘাত করা)

47 Beet (বীট / এক প্রকার সবজী)

48 Bare (খালি / নগ্ন / নাঙ্গা)

49 Bear (বহন / সহ্য করা / ভালুক)

50 Beach (সমুদ্র উপকুল)

51 Beech (বৃক্ষ বিশেষ)

52 Breach (লঙ্ঘন)

53 Beside (পাশে / নিকটে)

54 Besides (অধিকন্তু / তাছাড়া)

55 Brake (যানবাহনের গতিরোধ করিবার যন্ত্র)

56 Break (বিরতি / ভেঙ্গে যাওয়া)

57 Bone (হাড়)

58 Boon (অনুগ্রহ)

59 Born (জন্মগত / স্বভাবসিদ্ধ)

60 Borne (জন্মদেওয়া / বাহিত)

61 Board (কাষ্ঠফলক /সরকারি বিভাগ )

62 Bored (উদাস / বিষণ্ণ)

63 Birth (জন্ম / সূত্রপাত)

64 Berth (জাহাজ /ট্রেনে ঘুমানোর আসন, নোঙ্গরস্থান)

65 Capital (রাজধানী / প্রধান শহর)

66 Capitol (সরকারী ভবন / আইনসভা ভবন)

67 Canon (কানুন / বিধি)

68 Cannon (বড় কামান )

69 Career (পেশা / অগ্রগতি)

70 Carrier (বাহক / বহনকারী)

71 Calendar (পজ্ঞিকা)

72 Calender (কাপড় ইস্ত্রীর যন্ত্র)

73 Council (পরিষদ / কমিটি )

74 Counsel (পরামর্শ / উপদেশ)

75 Confidant (অন্তরঙ্গ বন্ধু)

76 Confident (নিঃসংশয় / অতিবিশ্বাসী)

77 Complement (পূরক)

78 Compliment (প্রশংসা)

79 Contact (যোগাযোগ / সংযোগ)

80 Contract (চুক্তি / ঠিকা)

81 Corps (সৈন্যদল)

82 Corpse (মূতদেহ)

83 Coarse (সাদামাটা / মোটা)

84 Course (পথ / রুট)

85 Coma (অবচেতন অব্স্থা)

86 Comma (কমা / বিরাম চিহৃ)

87 Censure (নিন্দা / ভৎতসনা)

88 Censor (নিয়ন্ত্রণ / সম্পাদনা)

89 Currant (কিচমিচ)

90 Current (চলতি / প্রচলিত)

91 Childish (শিশু সূলব আচরণ)

92 Childlike (শিশুরমত সরল)

93 Check (নিয়ন্ত্রণ করা / পরীক্ষা করে দেখা)

94 Cheque (বাংকের চেক)

95 Custom (প্রথা)

96 Costume (পরিচ্ছেদ)

97 Dairy (দুগ্ধ খামার)

98 Diary (দিনলিপি / ডায়েরি)

99 Dear (প্রিয়)

100 Deer (হরিণ)

101 Deference (সশ্রদ্ধ বাধ্যতা / বশ্যতাস্বীকার)

102 Difference (পার্থক্য / ভিন্নতা / তফাৎ)

103 Different (বিভিন্ন / পৃথক / আলাদা)

104 Defer (স্থগিত রাখা / মুলতবি করা)

105 Differ (পৃথক হওয়া / ভিন্নমত হওয়া)

106 Defuse (নিরাপদে বিস্ফোরক অপসারণ)

107 Diffuse (বিকীর্ণ করা / ছড়ানো)

108 Device (যন্ত্র / নকশা)

109 Devise (উদ্ভাবন করা / উইল)

110 Desert (মরুভূমি)

111 Dessert (মিষ্টান্ন)

112 Die (মৃত্যুবরণ কর)

113 Dye (রং করা)

114 Disease (রোগ)

115 Decease (মৃত্যু)

116 Discreet (বিচক্ষণ)

117 Discrete (স্বতন্ত্র)

118 Dominate (আয়ত্তকরা)

119 Dominant (প্রভাবশালী)

120 Dual (দ্বৈত)

121 Duel (দ্বন্দ্ব)

122 Draft (খসড়া / মুসাবিদা)

123 Draught (এক চুমুকে / টানিয়া লত্তয়া)

124 Drought (খরা / অনাবৃষ্টি)

125 Envelop (মোড়ক দ্বারা আবৃত করা)

126 Envelope (খাম / মোড়ক)

127 Ensure (নিশ্চিত করা)

128 Insure (বীমা করা / নিরাপদ করা)

129 Eminent (বিশিষ্ট / প্রখ্যাত)

130 Imminent (আসন্ন)

131 Emerge (উত্থিত হওয়া)

132 Immerge (মুগ্ধ করা)

133 Elicit (প্রকাশ করা / টানিয়া বাহির করা)

134 Illicit (অবৈধ / নিষিদ্ধ)

135 Eligible (যোগ্য / উপযুক্ত)

136 Illegible (অস্পষ্ট / দুষ্পাঠ্য)

137 Fast (দ্রুত)

138 First (প্রথম)

139 Far (দূরবর্তী / দূরে)

140 Fur (পশম / পশুর লোম)

141 Fair (সুশ্রী / ন্যায্য / মেলা)

142 Fare (পাবলিক যানবাহন ভাড়া)

143 Farm (খামার / কৃষি চত্ত্বর)

144 Firm (দৃঢ় / ব্যবসা প্রতিষ্ঠান)

145 Farther (অধিক দূর / দূরবর্তী)

146 Further (আরও / অধিকতর)

147 Flash (আলোর ঝলক / বিদ্যুৎ চমকানি)

148 Flesh (মাংস / শারীরিক বৃত্তি)

149 Flu (ইনফ্লুঞ্জা)

150 Flue (চিমনী)

151 Flaw (ত্রুটি / খুঁত)

152 Form (গঠন / আকৃতি)

153 From (হইতে / থেকে)

154 Follow (অনুসরণ করা)

155 Flow (প্রবাহিত হওয়া)

156 Forbear (বিরত থাকা / রাখা)

157 Forebear (পূর্বপূরুষ)

158 Foreword (ভূমিকা / অনুক্রমণী)

159 Forward (অগ্রবর্তী / এগিয়ে যাওয়া)

160 Formerly (ইতিপূর্বে / সেকালে)

161 Formally (আনুষ্ঠানিকভাবে)

162 Flower (ফুল)

163 Flour (ময়দা)

164 Fraction(ভগ্নাংশ)

165 Friction (ঘষর্ণ /সংঘর্ষ)

166 Fiction (কল্পিত কাহিনী)

167 Faction (বিরোধ / দলাদলি)

168 Fussy (অত্যন্ত খুঁতখুতে)

169 Fuzzy (অস্পষ্ট / ঝাপসা)

170 Gender (লিঙ্গ /কোন ব্যক্তির পুংত্ত্ব বা স্ত্রী-ত্ব)

171 Gander (রাজহাঁস)

172 Gale (ঝড় / বাত্যা)

173 Goal (উদ্দেশ্য / লক্ষ্য)

174 Grate (ঘর্ষণ করা / বিরক্ত করা)

175 Great (মহান / বিশাল)

176 Gloss (চাকচিক্য / মসৃণ উজ্জলতা)

177 Gloze (দোষ ঢাকা / দোষ লাঘব করা)

178 Hang (ফাঁসি দেত্তয়া /সাময়িক কাযকারিতা হারানো)

179 Hung (ঝুলান / দেত্তয়ালে টাঙ্গান / উঁচুতে লাগানো)

180 Hard (কঠিন / শক্ত)

181 Herd (পশুর পাল / একত্র চালিত করা)

182 Hail (শিলাবৃষ্টি / তুষারবৃষ্টি)

183 Hale (সুস্থ / নীরোগ / শক্তিশালী)

184 Hole (গর্ত)

185 Whole (সমগ্র)

186 Hoard (গুপ্ত ভাণ্ডার /জমা করা )

187 Horde (বড় দল / যাযাবর জাতিবিশেষ)

188 Honorary (অবৈতনিক)

189 Honorarium (দক্ষিণা / সম্মানী)

190 Human (মানবীয়)

191 Humane (দয়ালু)

192 Historic (ইতিহাস প্রসৃদ্ধ)

193 Historical (ঐতিহাসিক)

194 Hear (শোনা / শ্রবণ)

195 Here (এখানে)

196 Instance (উদাহরণ / দৃষ্টান্ত)

197 Instant (ত্বরিত / তাত্ক্ষনিক)

198 Industrious (পরিশ্রমী)

199 Industrial (শিল্পসংক্রান্ত)

200 Indict (আইন অনুযায়ী অভিযুক্ত করা)

201 Indite (রচনা লেখা / চিঠি লেখা)

202 Immigrant (অর্থ-বসবাসের জন্য বিদেশ থেকে আগমনকারী / অভিবাসী)

203 Emigrant (অর্থ-বসবাসের জন্য বিদেশে গমনকারী / দেশান্তরী)

204 Jealous (হিংসা করা)

205 Zealous (প্রবল উদ্দিপনাপূর্ণ)

206 Karat (স্বর্ণের বিশুদ্ধতার একক)

207 Carat (মণিরত্নের মাপবিশেষ)

208 Carrot (গাজর)

209 Later (অধিকতর বিলেম্ব)

210 Latter (পরবর্তী)

211 Letter (চিঠি / বর্ণ)

212 Lay (শোয়ানো / স্থাপন করা / ডিমপাড়া)

213 Lie (মিথ্যা / শয়ন করা / হেলান দেত্তয়া)

214 Licence (অনুজ্ঞাপত্র)

215 License (অনুজ্ঞাপত্র দেত্তয়া)

216 Lessen (কমানো / হ্রাস করা)

217 Lesson (শিক্ষা / পাঠ দান)

218 Lifelong (আজীবন)

219 Livelong (সুদীর্ঘ)

220 Least (কমপক্ষে / অন্তত)

221 Lest (পাছে / নইলে)

222 Level (স্থর / সমতল)

223 Label (তথ্য সম্পর্কিত স্টিকার)

224 Leave (ত্যাগ করা / যাত্রা করা / ছুটি)

225 Live (বাস করা / জীবন্ত / সরাসরি)

226 Loss (ক্ষতি)

227 Lose (হারানো)

228 Loose (শিতিল)

229 Marry (বিয়ে করা)

230 Merry (প্রফুল্ল / হাসিখুশি)

231 Massage (মালিশ / অঙ্গমদর্ন)

232 Message (বার্তা / বাণী)

233 Main (প্রধান)

234 Mane (কেশর)

235 Meat (মাংস)

236 Meet (সাক্ষাত করা)

237 Meter (পরিমাপক / মিটার)

238 Metre (ছন্দ / মাত্রা)

239 Moral (নৈতিক)

240 Morale (মনোবল)

241 Miner (খনির শ্রমিক)

242 Minor (গৌণ / ছোট)

243 Naval (নৌবাহিনী-সংক্রান্ত / জাহাজী)

244 Navel (নাভি / কেন্দ্রবিন্দু)

245 Novel (উপন্যাস)

246 Nobel (নোবেল)

247 Noble (উন্নতচরিত্র)

248 Official (অফিসসম্বন্ধীয়)

249 Officious (অনধিকার চর্চা)

250 Ordinance (জারিকরা আদেশ / অধ্যাদেশ)

251 Ordnance (গোলাবারুদ / যুদ্ধাস্ত্র)

252 Opposite (বিরুদ্ধ / বিরোধী)

253 Apposite (যথায়োগ্য / প্রাসঙ্গিক)

254 Object (উদ্দেশ্য / কর্ম)

255 Abject (হতভাগা / নিতান্ত হীন)

256 Obstruct (ব্যাঘাত ঘটান / বাধা সূষ্টি করা)

257 Abstract (ভাববাচক / পৃথক্ করা)

258 Payroll (নিয়জিত কর্মচারির বেতনসহ তালিকা)

259 Parole (বন্দীর অঙ্গীকার / শর্তাধীন মুক্তি)

260 Part (অংশ / ভাগ)

261 Pert (অকালপক্ক / ধৃষ্ট)

262 Pair (জুড়ি / জোড়া)

263 Pare (ছাঁটা / কেটে ফেলা)

264 Peal (নিনাদ / উচ্চ শব্দ)

265 Peel (খোসা ছাড়ানো)

266 Pill (খাবার বড়ি)

267 Patrol (চৌকি)

268 Petrol (পেট্রল)

269 Personal (ব্যক্তিগত)

270 Personnel (নিয়জিত কর্মিবৃন্দ)

271 Personality (ব্যক্তিত্ব)

272 Personalty (ব্যক্তিগত সম্পত্তি)

273 Precede (পূর্ববর্তী হওয়া)

274 Proceed (অগ্রসর হত্তয়া)

275 Precedent ( পূর্ব নজির / দৃষ্টান্ত)

276 President (রাষ্ট্রপতি / সভাপতি)

277 Prevision (দূর দৃষ্টি / পূর্বজ্ঞান)

278 Provision (ব্যবস্থা করে দেয়া / বিধান)

279 Plain (সমভূমি / রূপসজ্জাহীন)

280 Plane (সমতল / উড়োজাহাজ)

281 Plunk (সশব্দে পড়ে যাওয়া)

282 Plank (তক্তা)

283 Peak (সরু উপরিভাগ / চূড়া শিখর)

284 Peek (উঁকি মারা)

285 Pray (প্রার্থনা করা)

286 Prey (শিকার / লুন্ঠন)

287 Principle (নীতি)

288 Principal (প্রধান)

289 Presence (উপস্থিতি / হাজির)

290 Presents (উপহার)

291 Prescribe (ব্যবস্থা দেওয়া / বিধান করা)

292 Proscribe (নিষেধাজ্ঞা / বর্জনীয়)

293 Prophecy (ভবিষ্যদ্বাণী)

294 Prophesy (ভবিষ্যদ্বাণী করা)

295 Physic (ঔষুধ / চিকিত্সাবিজ্ঞান)

296 Physics (প্রদার্থবিদ্যা)

297 Physique (দেহের গঠন)

298 Pan (কড়াই)

299 Pen (কলম)

300 Pat (মৃদু আঘাত করা / চাপড়ান)

301 Pet (প্রিয় / সযত্নে লালিত / পোষা)

302 Peace (শান্তি)

303 Piece (টুকরা)

304 Paper (কাগজ)

305 Pepper (মরিচ)

306 Person (ব্যক্তি)

307 Parson (পাদ্রী)

308 Populous (জনবহুল)

309 Popular (জনপ্রিয়)

310 Pity (করুণা / দয়া)

311 Piety (ভক্তি / ধার্মিকতা)

312 Practice (অনুশীলন)

313 Practise (অনুশীলন করা)

314 Quiet (শান্ত)

315 Quite (সম্পূর্ণভাবে)

316 Rash (চুলকানি / হঠকারী)

317 Rush (দ্রুত ছুটে যাওয়া / নলখাগড়া)

318 Rear (লালন পালন করা)

319 Rare (দূর্লভ)

320 Register (তালিকা বা রেকর্ড বই)

321 Registrar (নিবন্ধরক্ষক / নিয়ামক)

322 Refuge (আশ্রয়স্থল)

323 Refuse (প্রত্যাখ্যান করা)

324 Rise (উদিত হওয়া / ওঠা)

325 Raise (উত্থাপন করা / মানোন্নয়ন করা)

326 Role (ভূমিকা / চরিত্র)

327 Roll (নামের তালিকা / ক্রমিক)

328 Rout (ছত্রভঙ্গ করা / সম্পূর্ণ পরাজিত করা)

329 Route (নিত্য যাতায়াতের পথ / গন্তব্য / রুট)

330 Sale (বিক্রয়)

331 Sell (বিক্রয় করা)

332 Set (স্থাপন করা / ঠিক করা)

333 Sit (বসা / উপবেশন করা)

334 See (দেখা)

335 Sea (সমুদ্র)

336 Seen (দেখা / দৃষ্ট)

337 Scene (দৃশ্য / ঘটনাস্থল)

338 Secret (গোপন / গুপ্ত)

339 Secrete (গোপন করা / নিঃসৃত করা)

340 Session (অধিবেশন / সভা / বৈঠক)

341 Cession (স্বত্বত্যাগ / ছেড়ে দেওয়া)

342 Sight (দৃষ্টিশক্তি / দৃশ্য)

343 Site (নির্মাণ-ভূমি / জায়গা)

344 Cite (উল্লেখ করা / উদ্ধৃত করা)

345 Sweat (ঘাম)

346 Sweet (মিষ্টি)

347 Sometime (একদা)

348 Sometimes (কখনও কখনও)

349 Social (সামাজিক)

350 Sociable (মিশুক)

351 Soul (আত্না / প্রেরণাদাতা)

352 Sole (একমাত্র / জুতার তলি)

353 Steal (চুরি করা)

354 Steel (ইস্পাত / স্টীল)

355 Style (শৈলী / ধরণ)

356 Stile (প্রাচীরের সঙ্গে লাগানো মই)

357 Staff (প্রতিষ্ঠানে নিয়োজিত কর্মী)

358 Stuff (উপাদান)

359 Story (গল্প / কাহিনী)

360 Storey (গৃহতল / তলা)

361 Straight (সোজা / সরল)

362 Strait (কঠোর / সঙ্কীর্ণ)

363 Stationary (স্থির / নিশ্চল)

364 Stationery (মনিহারী / স্টেশনারি)

365 Ship (সমুদ্রগামী জাহাজ)

366 Sheep (ভেড়া)

367 Suit (বিশেষ পোশাক / মকদ্দমা)

368 Suite (সেট / মানানসই / যন্ত্রসঙ্গীত)

369 Summary (সারাংশ / সংক্ষিপ্ত)

370 Summery (গ্রীষ্মের বৈশিষ্ট্যপূর্ণ)

371 Success (সফলতা)

372 Succeed (সফল হওয়া)

373 Special (বিশেষ / বিশিষ্ট / অসাধারণ)

374 Spatial (দূরত্বসংক্রান্ত / স্থান-সংক্রান্ত)

375 This (ইহা / এই)

376 These (এই সকল)

377 Their (তাদের)

378 There (সেখানে)

379 Then (পরে / তারপর / অতএব)

380 Than (চেয়ে / তুলনা বুঝাতে)

381 Taught (শেখানো)

382 Taut (শক্ত / আঁটো)

383 Tale (গল্প)

384 Tell (বলা)

385 Tail (লেজ / মুদ্রার উলটা দিক)

386 Test (পরীক্ষা)

387 Taste (স্বাদ)

388 Testy (খিটখিটে)

389 Tasty (সুস্বাদু)

390 Thrash (অত্যাধিক প্রহার করা)

391 Thresh (শস্য থেকে তুষ আলাদা করা)

392 Urban (শহুর সম্বন্ধীয় )

393 Urbane (ভদ্র ও রুচিশীল)

394 Unwanted (অনাবশ্যক / অবাঞ্চিত)

395 Unwonted (অনভ্যস্ত / বিরল)

396 Vacation (অবকাশ / ছুটি)

397 Vocation (পেশা / বৃত্তি)

398 Vertex (চূড়া / শীর্ষ)

399 Vortex (পানি বা বাতাশের ঘুরপাক গতি)

400 Vain (বৃথা / নিষ্ফল)

401 Vein (শিরা / ধমনী)

402 Wander (ঘুরে ঘুরে বেড়ানো)

403 Wonder (বিস্ময়)

404 Warship (রণতরী / যুদ্ধ-জাহাজ )

405 Worship (উপাসনা করা / পূজা করা)

406 Weak (দুর্বল / শক্তিহীন)

407 Week (সপ্তাহ)

408 Wick (পলতে / শলিত)

409 Wear (পরিধান করা)

410 Wire (তার)

411 Word (শব্দ / কখা)

412 Ward (ওয়ার্ড / এলাকা)

413 Wait (অপেক্ষা করা)

414 Wet (ভেজা / আর্দ্র)

415 Whole (সমগ্র)

416 Hole (গর্ত)

417 Weather (আবহাওয়া)

418 Whether (কিনা)

419 Write (লেখা / লিখা)

420 Right (শুদ্ধ / সঠিক)

421 Yolk (ডিমের কুসুম)

422 Yoke (জোয়াল)

ধারণ জ্ঞান – বাংলা সাহিত্য বিষয়ক কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন ও উত্তর

✬প্রশ্ন: “সারদামঙ্গল” কোন যুগের কাব্য গ্রন্থ?

উত্তর: আধুনিক যুগের।

✬প্রশ্ন: বঙ্গিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় রচিত প্রথম উপন্যাস কোনটি?

উত্তর: দুর্গেশনন্দিনী।

✬প্রশ্ন: বঙ্কিমচন্দ্র মােট কতটি উপন্যাস লিখেছেন?

উত্তর: ১৪টি।

✬প্রশ্ন: বিধবা বিবাহ নিয়ে রহিতকরণ বিষয়ে কে কমলযুদ্ধ শুরু করেন?

উত্তর: প্যারীচাঁদ মিত্র।

✬প্রশ্ন: “নীল দর্পণ” নাটকের রচয়িতা কে?

উত্তর: দীনবন্ধু মিত্র।

✬প্রশ্ন: “নীল দর্পন” কোন ধরনের রচনা ?

উত্তর: নাটক।

✬প্রশ্ন: “নীল দর্পণ” ইংরেজিতে অনুবাদ করেন কে?

উত্তর: মাইকেল মধুসূদন দত্ত।

✬প্রশ্ন: কোন গ্রন্থের মাধ্যমে বাংলা সাহিত্যে নতুন যুগের সূচনা হয়?

উত্তর: বেতাল পঞ্চবিংশতি।

✬প্রশ্ন: “সংবাদ প্রভাকর” পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ছিলেন কে?

উত্তর: ঈশ্বরচন্দ্র গুপ্ত।

✬প্রশ্ন: মাইকেল মধুসূদন দত্ত প্রবর্তিত নতুন ছন্দের নাম কি?

উত্তর: অমিত্রাক্ষর।

✬প্রশ্ন: ঈশ্বরচন্দ্র গুপ্ত সম্পর্কে কোন বক্তব্যটি সর্বাধিক গ্রহনযোগ্য ?

উত্তর: দুই যুগের মিলনকারী।

✬প্রশ্ন: “ঠক চাচা” চরিত্র টি কোন উপন্যাসের লেখা?

উত্তর: আলালের ঘরে দুলাল।

✬প্রশ্ন: বাংলা ভাষায় প্রকাশিত প্রথম সাময়িকী পত্র কোনটি?

উত্তর: দিগদর্শন।

✬প্রশ্ন: বাংলা সাহিত্যের প্রথম মহিলা কবি কে?

উত্তর: চন্দ্রাবতী।

✬প্রশ্ন: “শকুন্তলা” গ্রন্থটি কার লেখা?

উত্তর: ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর।

✬প্রশ্ন: “একে কি বলে সভ্যতা” কে লিখেছেন ?

উত্তর: মাইকেল মধুসূদন দত্ত।

✬প্রশ্ন: মাইকেল মধুসূদন দত্তের প্রধান অবদান কি?

উত্তর: সনেটের প্রবর্তন।

✬প্রশ্ন: কোন নাট্যকার বাংলা নাটকের পথিকৃৎ ?

উত্তর: মাইকেল মধুসূদন দত্ত।

✬প্রশ্ন: “বিষাদ সিন্ধু” কার রচনা ?

উত্তর: মীর মোশাররফ হোসেন।

✬প্রশ্ন: “বিষাদ সিন্ধু” কোন ধরনের রচনা ?

উত্তর: উপন্যাস।

✬প্রশ্ন: “বিষাদ সিন্ধু” কোন যুগের গ্রন্থ?

উত্তর: আধুনিক।

✬প্রশ্ন: বাংলা গদ্যের জনক বলা হয় কাকে?

উত্তর: ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর।

✬প্রশ্ন: ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর কোন গ্রন্থটি বাংলায় অনুবাদ করেন ?

উত্তর: ভ্রান্তিবিলাস।

✬প্রশ্ন: বাংলা সাহিত্যে গদ্যের সূচনা হয় কত শতকে?

উত্তর: উনিশ শতকে।

✬প্রশ্ন: “বুড় শালিকের ঘাড়ে রোঁ” কোন জাতীয় শিল্পকর্ম ?

উত্তর: প্রহসন।

✬প্রশ্ন: ফোর্ট উইলিয়াম কলেজের বাংলা বিভাগের অধ্যক্ষ কে ছিলেন?

উত্তর: উইলিয়াম কেরি।

✬প্রশ্ন: ফোর্ট উইলিয়াম কলেজে বাংলা বিভাগ চালু হয় কবে ?

উত্তর: ১৮০১ সালে।

✬প্রশ্ন: ফোর্ট উইলিয়াম কলেজে কে বাংলা ভাষার চর্চা করতেন?

উত্তর: রামরাম বসু।

✬প্রশ্ন: “সবুজপত্র” কে সম্পাদনা করেন?

উত্তর: প্রমথ চৌধুরী।

✬প্রশ্ন: কাজী নজরুল ইসলাম কে বাংলাদেশের জাতীয় কবি ঘোষনা করা হয় কত সালে?

উত্তর: ১৯৭৪ সালে।

✬প্রশ্ন: বাংলা কাব্যে অমিত্রাক্ষর ছন্দের প্রবর্তক কে?

উত্তর: মাইকেল মধুসূদন দত্ত।

✬প্রশ্ন: মধ্যযুগের বাংলা সাহিত্যের শ্রেষ্ঠ কবি কে?

উত্তর: ভারতচন্দ্র।

✬প্রশ্ন: “বীরবলের হালখাতা” গ্রন্থটি কোন ধরনের রচনা?

উত্তর: প্রবন্ধ।

✬প্রশ্ন: শামসুর রাহমানের আত্মজীবনী কি?

উত্তর: কালের ধুলোয় লেখা।

✬প্রশ্ন: রবিন্দ্রনাথ ঠাকুর “নাইট” উপাধি ত্যাগ করেন কত সালে?

উত্তর: ১৯১৯ সালে।

✬প্রশ্ন: কায়কোবাদের প্রথম কাব্যগ্রন্থ কোনটি?

উত্তর: বিরহবিলাপ।

✬প্রশ্ন: “সেজুতি” কাব্যগ্রন্থটির রচয়িতা কে?

উত্তর: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।

✬প্রশ্ন: “ময়নামতির চর” কাব্যগ্রন্থ টি কে লিখেছেন ?

উত্তর: বন্দে আলী মিয়া।

✬প্রশ্ন: জীবনানন্দ দাশের প্রথম কাব্যগ্রন্থ কোনটি?

উত্তর: ঝরা পালক।

✬প্রশ্ন: ঢাকার মুসলিম সাহিত্য সমাজের প্রতিষ্ঠা কোন সালে?

উত্তর: ১৯২৬সালে।

✬প্রশ্ন: “The Field of Embroidered Quilt” কাব্যটি কবি জসিমউদ্দিনের কোন কাব্যের ইংরেজি অনুবাদ ?

উত্তর: নকশি কাঁথার মাঠ।

✬প্রশ্ন: “শকুন্তলা” কে অনুবাদ করেন ?

উত্তর:বিদ্যাসাগর।

✬প্রশ্ন: “অন্নদামঙ্গল” কাব্য কে রচনা করেন?

উত্তর: ভারতচন্দ্র রায়গুণাকর।

✬প্রশ্ন: কে যুগ সন্ধিক্ষণের কবি?

উত্তর: ঈশ্বরচন্দ্র গুপ্ত।

✬প্রশ্ন: চাঁদ সওদাগর কোন মঙ্গলকাব্যের নায়ক?

উত্তর: মনসামঙ্গল।

✬প্রশ্ন: কোন দেবীর কাহিনী নিয়ে মঙ্গলকাব্য রচিত ?

উত্তর: মনসা দেবী।

✬প্রশ্ন: মনসামঙ্গল কাব্যের আদি কবি কে?

উত্তর: কানাহরি দত্ত।

✬প্রশ্ন: “ভাঁড়ুদত্ত” কোন কাব্যের চরিত্র ?

উত্তর: চণ্ডীমঙ্গল।

✬প্রশ্ন: কোন দুজন আরাকান রাজসভার কবি ?

উত্তর: মহাকবি আলাওল ও দৌলত কাজী।

✬প্রশ্ন: সতীময়না ও লোরচন্দ্রানী কাব্যটির রচয়িতা কে?

উত্তর: দৌলত কাজী।

✬প্রশ্ন: “গুল-ই-বকাওলী” গ্রন্থের রচয়িতা কে?

উত্তর: ইজ্জাতুলা।

✬প্রশ্ন: বাংলা অনুবাদ কাব্যের সূচনা হয় কোন যুগে ?

উত্তর: মধ্যযুগে।

✬প্রশ্ন: রোমান্টিক প্রণয়োখ্যান ধারার প্রথম কবি কে?

উত্তর: শাহ মুহাম্মদ সগীর।

✬প্রশ্ন: “লাইলী-মজনু” কাব্যটির অনুবাদক কে?

উত্তর: দৌলত উজির বাহরাম খান।

✬প্রশ্ন: পদাবলীর প্রথম কবি কে ?

উত্তর: বিদ্যাপতি।

✬প্রশ্ন: “মুর্দা ফকির” চরিত্রটি কোন গ্রন্থের?

উত্তর: কবর।

✬প্রশ্ন: “এলেবেলে” বইটি কার লেখা?

উত্তর: হুমায়ূন আহমেদ।

✬প্রশ্ন: প্রথম বাঙালি মুসলমান কবি কে?

উত্তর: শাহ মুহাম্মদ সগীর।

✬প্রশ্ন: শাহ মুহাম্মদ সগীরের উল্লেখযোগ্য কাব্য কোনটি?

উত্তর: ইউসুফ-জোলেখা।

ভুল থাকলে কমেন্টে জানাবেন।

বিভিন্ন নিয়োগ পরীক্ষার প্রস্তুতি MCQ 

প্রশ্ন ১। বাংলা ভাষা ও সাহিত্যের আধুনিকতম শাখা কোনটি?

ক. কাব্য

খ. নাটক

গ. ছোটগল্প

ঘ. উপন্যাস

উত্তর: গ. ছোটগল্প

প্রশ্ন ২। বাঙালি রচিত বাংলা সাহিত্যের প্রথম মুদ্রিত গ্রন্থ কোনটি?

ক. কথোপকথন

খ. ইতিহাসমালা

গ. রাজা প্রতাপাদিত্য চরিত

ঘ. হিতোমপদেশ

উত্তর: গ. রাজা প্রতাপাদিত্য চরিত

প্রশ্ন ৩। কোন সাহিত্যেকর্মে সান্ধ্যভাষার প্রয়োগ আছে?

ক. পদাবলী

খ. রামায়ণ

গ. মহাভারত

ঘ. চর্যাপদ

উত্তর: ঘ. চর্যাপদ

প্রশ্ন ৪। বাংলা সাহিত্যের প্রাচীনতম কবি কে?

ক. কাহ্নপা

খ. লুইপা

গ. সরহ পা

ঘ. শবর পা

উত্তর: খ. লুইপা

প্রশ্ন ৫। চর্যাপদের ভাষা যে বাংলা – এটি প্রথম কে প্রমাণ করেন ?

ক. হরপ্রসাদ শাস্ত্রী

খ. সুকুমার সেন

গ. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ

ঘ. ড. সুনীতিকুমার চট্টোপাধ্যায়

উত্তর: ঘ. ড. সুনীতিকুমার চট্টোপাধ্যায়

প্রশ্ন ৬। হরপ্রসাদ শাস্ত্রী ‘চর্যাপদ’ যে গ্রন্থে প্রকাশ করেছিলেন তার নাম কী ?

ক. চর্যাপদাবলি

খ. চর্যাগীতিকা

গ. চর্যাচর্যবিনিশ্চয়

ঘ. হাজার বছরের পুরাণ বাঙালা ভাষায় বৌদ্ধগান ও দোহা

উত্তর: ঘ. হাজার বছরের পুরাণ বাঙালা ভাষায় বৌদ্ধগান ও দোহা

প্রশ্ন ৭। ১৯১৬ সালে চর্যাপদ প্রথম কোথা থেকে প্রকাশিত হয় ?

ক. বঙ্গীয় মুসলিম সাহিত্য পরিষদ

খ. বাংলা একাডেমি

গ. এশিয়াটিক সোসাইটি

ঘ. শ্রীরামপুর মিশন

ঙ. বঙ্গীয় সাহিত্য পরিষদ

উত্তর: ঙ. বঙ্গীয় সাহিত্য পরিষদ

প্রশ্ন ৮। চর্যাপদে কয়টি প্রবাদ বাক্য পাওয়া যায় ?

ক. ৪টি

খ. ৫টি

গ. ৬টি

ঘ. ৭টি

উত্তর :গ. ৬টি

প্রশ্ন ৯ । ‘মনসামঙ্গল’ কাব্যের আদি কবি কে?

ক. কৃত্তিবাস

খ. মালাধর বসু

গ. মানিক দত্ত

ঘ. কানাহরি দত্ত

উত্তর: ঘ. কানাহরি দত্ত

প্রশ্ন ১০ । ‘চণ্ডীমঙ্গল’ কাব্যের প্রধান /শ্রেষ্ঠ কবি কে?

ক. কানা হরিদত্ত

খ. শাহ মুহম্ম সগীর

গ. মুকুন্দরাম চক্রবর্তী

ঘ. ভারতচন্দ্র রায়গুণাকর

উত্তর: গ. মুকুন্দরাম চক্রবর্তী

প্রশ্ন ১১। মধ্যযুগের বাংলা সাহিত্যের শ্রেষ্ঠ কবি কে?

ক. বিজয়গুপ্ত

খ. ভারতচন্দ্র রায়গুণাকর

গ. মুকুন্দরাম চক্রবর্তী

ঘ. কানাহরি দত্ত

উত্তর: খ. ভারতচন্দ্র রায়গুণাকর

প্রশ্ন ১২। মধ্যুযুগের বাংলা সাহিত্য মুসলমান কবিগণের সর্বাপেক্ষা উল্লেখযোগ্য অবদান কোনটি?

ক. লোক সাহিত্য

খ. পুঁথি সাহিত্য

গ. বাংলা গীতিকা

ঘ. রোমান্টিক প্রণয়োপখ্যান

উত্তর: ঘ. রোমান্টিক প্রণয়োপখ্যান

প্রশ্ন ১৩। মধ্যযুগের সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য মুসলমান কবি কে?

ক. দৌলত কাজী

খ. সৈয়দ সুলতান

গ. আলাওল

ঘ. নাসির মাহমুদ

উত্তর: গ. আলাওল

প্রশ্ন ১৪। বাংলা ভাষায় বৈষ্ণব পদাবলীর আদি রচয়িতা কে ?

ক. গোবিন্দদাস

খ. জ্ঞানদাস

গ. চণ্ডীদাস

ঘ. বিদ্যাপতি

উত্তর: গ. চণ্ডীদাস

প্রশ্ন ১৫। আধুনিক কবিদের মধ্যে কে পদাবলী লিখেছেন ?

ক. মাইকেল মধুসূদন দত্ত

খ. ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর

গ. ঈশ্বরচন্দ্র গুপ্ত

ঘ. রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

উত্তর: ঘ. রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

প্রশ্ন ১৬। ‘সোনাভান’ কাব্যগ্রন্থটির রচয়িতা কে?

ক. সৈয়দ হামজা

খ. মীর মোহম্মদ সফী

গ. শাহ মুহাম্মদ গরীবুল্লাহ

ঘ. আলাওল

উত্তর: গ. শাহ মুহাম্মদ গরীবুল্লাহ

প্রশ্ন ১৭। ড. দীনেশচন্দ্র সেন কর্তৃক সম্পাদিত ‘মৈমনসিংহ গীতিকা’ য় কতটি গীতিকা রয়েছে?

ক. ২৩টি

খ.১০টি

গ. ২৫টি

ঘ. ৩০টি

উত্তর: খ.১০টি

প্রশ্ন ১৮ । সুরেশ, মহিম, অচলা কোন উপন্যাসের চরিত্র ?

ক. কৃষ্ণকান্তের উইল

খ. গৃহদাহ

গ. বিষবৃক্ষ

ঘ. যোগাযোগ

উত্তর: খ. গৃহদাহ

প্রশ্ন ১৯। প্রাচীন বাংলার জনপদ ও অর্থনীতির পরিচয় প্রথম কার কোন গ্রন্থ গুরুত্বসহ উল্লেখ করা হয় ?

ক. নীহাররঞ্জন রায়ের ‘বাঙালীর ইতিহাস’

খ. আহমদ শরীফের ‘বাঙালী ও বাঙালা সাহিত্য’

গ. অতুল সুরের ‘বাঙালির নৃতাত্বিক ইতিহাস’

ঘ. দীনেশচন্দ্র সেনের বৃহৎবঙ্গ

উত্তর: ক. নীহাররঞ্জন রায়ের ‘বাঙালীর ইতিহাস’

প্রশ্ন ২০। ‘তেইশ নম্বর তৈলচিত্র’ উপন্যাসটির রচয়িতা ?

ক. মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়

খ. সুকান্ত ভট্টাচার্য

গ. হুমায়ুন আহমেদ

ঘ. আলাউদ্দিন আল আজাদ

উত্তর: ঘ. আলাউদ্দিন আল আজাদ

History of Bengali Literature Questions and Answersপ্রশ্ন: আধুনিক বাংলা ভাষার পরিধি কত সাল থেকে শুরু হয়েছে ?

উঃ ১৮০১ সাল থেকে। (প্রস্তুতিপর্বঃ ১৮০০-১৮৬০, বিকাশপর্বঃ ১৮৬০-১৯০০, রবীন্দ্রপর্বঃ ১৯০০-১৯৩০, রবীন্দ্রোত্তরঃ ১৯৩০-১৯৪৭ ও বাংলাদেশঃ ১৯৪৭-)

প্রশ্ন: বাংলা ভাষার উৎপত্তি কোন শতাব্দীতে?

উঃ সপ্তম শতাব্দী।

প্রশ্ন: পানিনি রচিত গ্রন্থের নাম কি?

উঃ ব্যাকরণ অষ্টাধয়ী।

প্রশ্ন: পানিণি কোন ভাষার ব্যাকরণকে শৃঙ্খলাবদ্ধ করেন?

উঃ সংস্কৃত ভাষা।

প্রশ্ন: বাংলা ভাষার মূল উৎস কোনটি?

উঃ বৈদিক।

প্রশ্ন: বাংলা ভাষার আদি সাহিত্যিক নিদর্শন কি?

উঃ শ্রীকৃষ্ণকীর্তন কাব্য।

প্রশ্ন: বাংলা ভাষা কোন আদি বা মূল ভাষা গোষ্ঠীর অর্ন্তগত?

উঃ ইন্দো-ইউরোপীয় ভাষা গোষ্ঠী।

প্রশ্ন: বাংলা ভাষার উদ্ভব ঘটে কোন দশকে?

উঃ খ্রিষ্টিয় দশম শতকের কাছাকাছি সময়ে।

প্রশ্ন: ভারতীয় আর্য ভাষার প্রাচীন রূপ কোথায় পাওয়া যায়?

উঃ প্রাচীন গ্রন্থ ঋগে¦দের মন্ত্রগুলোতে।

প্রশ্ন: বাংলা গদ্যের ব্যাপক ব্যবহার শুরু হয় কখন থেকে?

উঃ আধুনিক যুগে।

প্রশ্ন: বাংলা গদ্যের ব্যাপক ব্যবহার শুরু হয় কখন থেকে?

উঃ আধুনিক যুগে।

প্রশ্ন: ড. মুহাম্মদ শহীদুল্লাহর মতে খ্রীষ্টপূর্ব কত পর্যন্ত বাংলা ভাষার অস্তিত্ব ছিল?

উঃ পাঁচ হাজার বছর।

প্রশ্ন: আর্য ভারতীয় গোষ্ঠীর প্রাচীনতম সাহিত্যেক ভাষার নাম কি?

উঃ বৈদিক ও সংস্কৃত ভাষা।

প্রশ্ন: বাংলা ভাষার মূল উৎস কোন ভাষা?

উঃ বৈদিক ভাষা।

প্রশ্ন: বৈদিক ভাষা থেকে বাংলা ভাষা পর্যন্ত বিবর্তনের প্রধান তিনটি ধারা কি কি?

উঃ প্রচীন ভারতীয় আর্য, মধ্য ভারতীয় আর্য ও নব্য ভারতীয় আর্য।

প্রশ্ন: কোন ভাষা বৈদিক ভাষা নামে স্বীকৃত?

উঃ আর্যগণ যে ভাষায় বেদ-সংহিতা রচনা করেছেন।

প্রশ্ন: কোন ব্যাকরণবিদের কাছে সংস্কৃত ভাষা চূড়ান্তভাবে বিধিবদ্ধ হয়?

উঃ ব্যাকরণবিদ পানিনির হাতে।

প্রশ্ন: সংস্কৃত ভাষা কত অব্দে চূড়ান্তভাবে বিধিবদ্ধ হয়?

উঃ খ্রিষ্টপূর্ব ৪০০ দিকে।

প্রশ্ন: কোন ভাষাকে প্রাকৃত ভাষা বলে?

উঃ খ্রিষ্টপূর্ব ৮০০ খ্রীঃ দিকে বৈদিক ভাষা বির্বতনকালীণ সময়ে জনসাধারন যে ভাষায় নিত্য নতুন কথা বলত।

প্রশ্ন: প্রাকৃত ভাষা বিবর্তিত হয়ে শেষ যে স্তরে উপনীত হয় তার নাম কি?

উঃ অপভ্রংশ।

প্রশ্ন: সুনীত কুমার চট্টোপাধ্যায়ের মতে বাংলা ভাষার উদ্ভর কোন অপভ্রংশ থেকে কোন সময় কালে?

উঃ পূর্ব ভারতে প্রচলিত মাগবী অপভ্রংশ এবং খ্রিষ্টিয় দশম শতকের কাছাকাছি সময়ে বাংলা ভাষার উদ্ভব হয়।

প্রশ্ন: ড. মুহাম্মদ শহীদুল্লাহর মতে বাংলা ভাষার উৎস কোন অপভ্রংশ থেকে?

উঃ গৌড় অপভ্রংশ থেকে।

প্রশ্ন: কোন ভাষা থেকে বাংলা ভাষার উৎপত্তি?

উঃ মাগধী প্রাকৃত।

প্রশ্ন: প্রাচীন ভারতীয় আর্য ভাষার স্তর কয়টি?

উঃ তিনটি।

প্রশ্ন: বৈদিক ভাষা হতে বাংলা ভাষায় বিবর্তনের প্রধান ধারা কয়টি?

উঃ তিনটি।

প্রশ্ন: বাংলা ভাষা কোন গোষ্ঠীর বংশধর?

উঃ হিন্দ-ইউরোপী গোষ্ঠীর।

প্রশ্ন: কোন যুগে বাংলা লিপির গঠনকার্য স্থায়ীরূপ লাভ করে?

উঃ প্রাচীন যুগে।

প্রশ্ন: বাংলার প্রথম মুদ্রন প্রতিষ্ঠানের নাম কি ?

উঃ শ্রীরামপুর মিশন।

প্রশ্ন: কত সালে ‘শ্রীরামপুর মিশন’ প্রতিষ্ঠিত হয় ?

উঃ ১৮০০ খ্রিষ্টাব্দে।

প্রশ্ন: বাংলা ছাড়া ব্রাহ্মী লিপি থেকে আর কোন লিপির উদ্ভদ ঘটেছে ?

উঃ সিংহলী, শ্যামী, নবদ্বীপি, তিব্বতী ইত্যাদি।

প্রশ্ন: বাংলা অক্ষর বা বর্ণমালা কোন সময়ে একচ্ছত্র প্রভাব বিস্তার লাভ করে ?

উঃ খ্রিঃ দশম ও একাদশ শতাব্দীর মধ্যে।

প্রশ্ন: ব্রাহ্মী লিপির বিবর্তনের ধারায় কোন বর্নমালা থেকে বাংলা বর্নমালার উৎপত্তি ?

উঃ পূর্ব ভারতীয় বর্ণমালা কুটিল থেকে।

প্রশ্ন: ব্রাহ্মী লিপির পূর্ববর্তী লিপি কোনটি?

উঃ খরোষ্ঠী লিপি।

প্রশ্ন: ভারতীয় লিপিশালার প্রাচীনতম রূপ কোনটি?

উঃ দুইটি।

প্রশ্ন: খ্রিষ্টপূর্ব ৩য় শতকে কোন শাসকের শাসনমালা ব্রাহ্মী লিপিতে উৎকীর্ন পাওয়া যায়?

উঃ সম্রাট অশোক।

প্রশ্ন: বাংলা লিপি ও বর্ণমালার উদ্ভব হয়েছে কোন লিপি থেকে?

উঃ কুটিল লিপি।

প্রশ্ন: ব্রাহ্মী লিপির পূর্ববর্তী লিপি কোনটি ?

উঃ খরোষ্ঠী লিপি।

প্রশ্ন: কোন যুগে বাংলা লিপি ও অক্ষরের গঠনকার্য শুরু হয় ?

উঃ সেন যুগে।

প্রশ্ন: কোন কোন লিপির উপর বাংলা লিপির প্রভাব বিদ্যমান ?

উঃ উড়িষ্যা মৈথিলি ও আসামী লিপির উপর।

প্রশ্ন: বাংলা গদ্যের বিকাশে বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করে-?

উঃ সাময়ীক পত্র।

প্রশ্ন: বাংলা সাহিত্যের প্রথম নিদর্শন কি?

উঃ চর্যাপদ।

প্রশ্ন: চর্যাপদ রচনা করেন কারা ?

উঃ বৌদ্ধ সিদ্ধাচার্যগণ।

প্রশ্ন: চর্যাপদ কোন যুগের নিদর্শন?

উঃ আদি/ প্রাচীন যুগ।

প্রশ্ন: চর্যাপদের পুঁথিকে কোথা কে এবং কখন আবিস্কার করেন?

উঃ মহামহোপাধ্যায় হরপ্রসাদ শাস্ত্রী ১৯০৭।

প্রশ্ন: চর্যাপদের রচনা কাল কত?

উঃ সপ্তম -দ্বাদশ শতাব্দী।

প্রশ্ন: চর্যাপদ কোন ভাষায় রচিত হয়?

উঃ বঙ্গকামরুপী ভাষায়।

প্রশ্ন: চর্যাপদ কোথায় পাওয়া যায়?

উঃ নেপালের রাজ দরবারের গ্রন্থাগারে।

প্রশ্ন: টীকাকার মুনিদত্তের মতানুসারে চর্যাপদের নাম কি ?

উঃ আশ্চর্য চর্যাচয়।

প্রশ্ন: নেপালে প্রাপ্ত পুঁথিতে পদগুলির কি নাম দেযা হয়েছে ?

উঃ চর্যাচর্য বিনিশ্চয়।

প্রশ্ন: বাংলা ভাষার সঙ্গে মিল খুঁজে পাওয়া যায় কোন ভাষার?

উঃ মুন্ডা ভাষার।

প্রশ্ন: কোন লিপি থেকে বাংলা লিপির উদ্ভব ঘটেছে?

উঃ ব্রহ্মী লিপি।

প্রশ্ন: ভারতীয় লিপিমালার প্রাচীনতম রূপ কয়টি ও কি কি?

উঃ দুইটি ক. খরোষ্ঠী, খ. বাহ্মী।

প্রশ্ন: ভারতের মৌলিক লিপি কোন লিপিকে বলা বলে?

উঃ ব্রাহ্মী লিপি।

প্রশ্ন: চর্যাপদের ভাষাকে কে বাংলা ভাষা দাবি করেছেন?

উঃ অধ্যাপক সুনীতি কুমার চট্টোপাধ্যয়।

প্রশ্ন: আধুনিকের পন্ডিতগণের মতে, নেপালে প্রাপ্ত চর্যাপদের পুঁথির নাম কি ?

উঃ চর্যাগীতি কোষ।

প্রশ্ন: চর্যার প্রাপ্ত কোন সংখ্যক পদটি টীকাকার কর্তৃক ব্যাখ্যা হয় নি ?

উঃ ১১ সংখ্যক পদ।

প্রশ্ন: চর্যার প্রাপ্ত পুঁথিতে কোন কোন সংখ্যক পদে সম্পূর্ন পাওয়া যায় নি ?

উঃ ২৪, ২৫, ৪৮ সংখ্যক পদ।

প্রশ্ন: চর্যার প্রাপ্ত কোন পদটির শেষাংশে পাওয়া যায় নি ?

উঃ ২৩ সংখ্যক পদ।

প্রশ্ন: চর্যাগীতিকা হরপ্রসাদ শাস্ত্রী কর্তৃক কবে প্রকাশিত হয়েছিল ?

উঃ ১৯১৬ সালে।

প্রশ্ন: চর্যা সংগ্রহটিতে সর্বসমেত কয়টি চর্যাগীতি ছিল?

উঃ ৫১ টি।

প্রশ্ন: চর্যাপদের তিব্বতী অনুবাদ কে আবিস্কার করেন?

উঃ ডঃ প্রবোধচন্দ্র বাগচী।

প্রশ্ন: চর্যাপদের ভাষায় কোন অঞ্চলের নমুনা পরিলক্ষিত হয়?

উঃ পশ্চিম বাংলার প্রাচীনতম কথ্য ভাষার।

প্রশ্ন: ডঃ সুনীতি কুমার চট্টোপাধ্যয় কবে চর্যাপদে ভাষা বাংলা বলে প্রমান করেন?

উঃ ১৯২৬ সালে।

প্রশ্ন: চর্যাপদের প্রতিপাদ্য বিষয় কি?

উঃ চর্যাপদের মূল প্রতিপাদ্য বিষয় বৌদ্ধ সহজিয়া সিদ্ধাদের গুহ্য সাধনতত্ত্ব এবং তৎকালীন সমাজ ও জীবনের পরিচয়।

প্রশ্ন: চর্যাপদ কোন ছন্দে রচিত ?

উঃ মাত্রাবৃত্তে ছন্দে।

প্রশ্ন: চর্যাপদের পুঁথি নেপালে যাবার কারন কি?

উঃ তুর্কী আক্রমনকারীদের ভয়ে পন্ডিতগণ তাদের পুুথি নিয়ে নেপালে পালিয়ে গিয়ে শরনার্থী হয়েছিলেন।

প্রশ্ন: কীর্তিলতা পুরুষ পরীক্ষা বিভাগসার প্রভৃতি সাহিত্যকর্মের রচয়িতা কে?

উঃ মিথিলার কবি বিদ্যাপতি।

প্রশ্ন: কবীন্দ্রবচন সমুচ্চয় ও সদুক্তি কর্ণামৃত কাব্য কোন যুগে রচিত?

উঃ সেনযুগে।

প্রশ্ন: সর্বসমেত কয়টি চর্যাগীতি পাওয়া গিয়েছে?

উঃ সাড়ে ছেচল্লিশটি।

প্রশ্ন: সবচেয়ে বেশী পদ কে রচনা করেছেন ?

উঃ কাহ্নপা-১৩ টি।

প্রশ্ন: চর্যাপদের রচয়িতা কে বা কারা ?

উঃ কাহ্নপা, লুইপা, কুক্কুরীপা, ভুসুকু, সরহপাদ সহ মোট ২৪ জন।

প্রশ্ন: চর্যাপদ কোন সময়ে রচিত হয় ?

উঃ সপ্তম থেকে দ্বাদশ শতাব্দীর মধ্যবর্তী সময়ে।

প্রশ্ন: চর্যাপদের পদগুলো কোন কোন ভাষায় রচিত বলে দাবি করা হয়?

উঃ বাংলা, হিন্দী, মৈথিলী, অসমীয় ও উড়িয়া ভাষায়।

প্রশ্ন: রাজা লক্ষন সেনের রাজসভার পঞ্চরত কে কে ছিলেন?

উঃ উমাপতিধর, শরণ, ধোয়ী, গোবর্ধন আচার্য ও জয়দেব।

প্রশ্ন: বাংলা ছাড়া কোন কোন বাব্যগ্রন্থে বাঙালী জীবনের চিত্র রয়েছে?

উঃ গাথা সপ্তপদী ও প্রাকৃত পৈঙ্গলের।

প্রশ্ন: চন্ডীদাস সমস্যা কি?

উঃ বাংলা সাহিত্য একাধিক পদকর্তা নিজেকে চন্ডীদাস পরিচয় দিয়ে যে সমস্যা সৃষ্টি করেছেন তাই চন্ডীদাস সমস্যা ।

প্রশ্ন: বাংলা সাহিত্যে স্বীকৃত চন্ডীদাস কয়জন?

উঃ তিনজন। বড়ু চন্ডিদাস, দীন চন্ডিদাস এবং দ্বীজ চন্ডিদাস।

প্রশ্ন: শ্রীকৃষ্ণ কীর্তন কাব্য কোথা থেকে উদ্ধার করা হয়?

উঃ পশ্চিম বঙ্গের বাকুড়া জেলার কাকিলা গ্রামের এক গৃহস্থ বাড়ীর গোয়ালঘর থেকে উদ্ধার করেন।

প্রশ্ন: বৈষ্ণব পদাবলীর আদি রচয়িতা কে?

উঃ বড়ু চন্ডিদাস।

প্রশ্ন: আদি যুগে লোকজীবনের কথা বিধৃত সর্বপ্রথম সাহিত্যক নিদর্শন কোনটি?

উঃ ডাক খনার বচন।

প্রশ্ন: মধ্যযুুগের বাংলা সাহিত্যর প্রধান দুটি ধারা কি ?

উঃ ১। কাহিনীমূলক ও ২। গীতিমূলক।

প্রশ্ন: শ্রী চৈতন্যর নামানুসারে মধ্যযুগের বিভাজন কিরূপ?

উঃ চৈতন্য পূর্ববর্তী যুগ (১২০১-১৫০০ খ্রিঃ), চৈতন্য যুগ (১৫০১-১৬০০) ও চৈতন্য পরবর্তী যুগ (১৬০১-১৮০০)

প্রশ্ন: গীত গোবিন্দ কাব্যগ্রন্থের রচয়িতার নাম কি ?

উঃ জয়দেব।

প্রশ্ন: ব্রজবুলি ভাষার বিখ্যাত সাহিত্যিকের/শ্রেষ্ঠ কবি নাম কি?

উঃ বিদ্যাপতি এবং জয়দেব।

প্রশ্ন: চৈতন্য পরবর্তী যুগ বা মধ্যযুগের শেষ কবি কে?

উঃ ভারতচন্দ্র রায়গুনাকর।

প্রশ্ন: আধুনিক যুগের উদগাতা কে?

উঃ মাইকেল মধুসুদন দত্ত।

প্রশ্ন: কোন যুগকে অবক্ষয়ের যুগ বলা হয় ?

উঃ ১৭৬০-১৮৬০সাল পর্যন্ত

প্রশ্ন: বাংলা সাহিত্যর আধুনিক যুগের সময়কাল কয়পর্বে বিভক্ত ও কি কি?

উঃ চারটি পর্বে বিভক্ত। যেমন- ১. প্রস্তুতি পর্ব (১৮০১-১৮০৫)খ্রিঃ, ২. বিকাশ পর্ব (১৮৫১-১৯০০) খ্রিঃ, ৩.রবীন্দ্র পর্ব (১৯০১-১৯৪০) খ্রিঃ ও ৪.অতি-আধুনিক যুগ (১৯০১ বর্তমান কালসীমা)।প্রশ্ন: আধুনিক যুগ কোন সময় পর্যন্তু বিস্তৃত?

উঃ ১৮০১ সাল থেকে বর্তমান।প্রশ্ন: যুগ সন্ধিক্ষনের কবি কে ?

উঃ ঈশ্বরচন্দ্র দত্ত।প্রশ্ন: ব্রজবুলী ভাষার উদ্ভব কখন হয়?

উঃ কবি বিদ্যাপতি যখন মৈথিল ভাষায় রাধাকৃষ্ণ লীলার গীতসমূহ রচনা করেন।প্রশ্ন: ব্রজবুলি ভাষা কোন জাতীয় ভাষা?

উঃ মৈথলী এবং বাংলা ভাষার মিশ্রনে যে ভাষার সৃষ্টি হয়।প্রশ্ন: ব্রজবুলি কোন স্থানের উপভাষা ?

উঃ মিথিলার উপভাষা ।প্রশ্ন: বাংলা ভাষায় রামায়ন কে অনুবাদ করেন?

উঃ কৃত্তিবাস।প্রশ্ন: রামায়নের আদি রচয়িতা কে?

উঃ কবি বাল্মীকি।প্রশ্ন: বাংলা ভাষায় মহাভারত কে অনুবাদ করেন?

উঃ কাশীরাম দাস।প্রশ্ন: মহাভারতের আদি রচয়িতা কে?

উঃ বেদব্যাস।প্রশ্ন: গীতি কাব্যের রচয়িতা কে?

উঃ গোবিন্দ্রচন্দ্র দাস।প্রশ্ন: পুঁথি সাহিত্যের প্রথম সার্থক কবি কে?

উঃ ফকির গরিবুল্লাহ।প্রশ্ন: মধ্যযুগের বাংলা সাহিত্যের শ্রেষ্ঠ কবি কে?

উঃ মুকুন্দরাম চক্রবর্তী।প্রশ্ন: বাংলা ভাষা ও সাহিত্যর প্রাচীনতম শাখা কোনটি?

উঃ কাব্য।প্রশ্ন: বাংলা গদ্য সাহিত্য কখন শুরু হয়?

উঃ আধুনিক যুগে।প্রশ্ন: আলাওল কোন যুগের কবি?

উঃ মধ্য যুগের।প্রশ্ন: মধ্যযুগের অবসান ঘটে কখন?

উঃ ঈশ্বর গুপ্তের মৃত্যুর সঙ্গে।প্রশ্ন: উনিশ শতকের সবচেয়ে খ্যাতনামা বাউল শিল্পী কে?

উঃ লালন শাহ।প্রশ্ন: বাংলা গদ্যের জনক কে?

উঃ ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর।প্রশ্ন: আধুনিক যুগের শ্রেষ্ঠ প্রতিভু কে?

উঃ বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।প্রশ্ন: বাংলা ভাষার আদি কবি ?

উঃ কানা হরিদত্ত।প্রশ্ন: বাংলা গদ্যর উৎপত্তি কখন?

উঃ আঠার শতকে।প্রশ্ন: কাঙ্গাল হরিনাথ কখন আবির্ভূত হন?

উঃ উনিশ শতকের শেষার্ধে।প্রশ্ন: বিষাদসিন্ধু কোন যুগের গ্রন্থ?

উঃ আধুনিক যুগের।প্রশ্ন: মধ্যযুগের অন্যতম সাহিত্য নিদর্শন কি?

উঃ পদ্মাবতী ও অন্নদামঙ্গল।প্রশ্ন: চন্ডীদাস কোন যুগের কবি ?

উঃ মধ্যযুগের।প্রশ্ন: আধুনিক বাংলা গীতি কবিতার সূত্রপাত?

উঃ টপ্পাগান।প্রশ্ন: টপ্পা গানের জনক কে?

উঃ নিধুবাবু (রামনিধি গুপ্ত)।প্রশ্ন: মীর মোশাররফ সাহিত্য ক্ষেত্রে আবির্ভূত হন?

উঃ উনিশ শতকের শেষার্ধে।প্রশ্ন: বাংলা সাহিত্যে মহাকাব্য ধারার অন্যতম মহাকবি?

উঃ মাইকেল মধুসুদন দত্ত।প্রশ্ন: বাংলা সাহিত্যে গীতিকাব্য ধারার প্রথম কবি?

উঃ বিহারীলাল চক্রবর্তী।প্রশ্ন: বাংলা সাহিত্যের মধ্যযুগের প্রথম নির্দশন কি?

উঃ শ্রীকৃষ্ণ কীর্তন।প্রশ্ন: শ্রীকৃষ্ণ কীর্তনকাব্য কে রচনা করেন?

উঃ বড়– চন্ডীদাস।প্রশ্ন: শ্রীকৃষ্ণ কীর্তন কাব্য কোন যুগের নিদর্শন?

উঃ চৈতন্যপূর্ব যুগ।প্রশ্ন: বড়– চন্ডীদাসের শ্রীকৃষ্ণ কীর্তন কাব্য কে উদ্ধার করেন?

উঃ বসন্তরঞ্জন রায়, ১৯০৯।প্রশ্ন: উনিশ শতকের নাট্য সাহিত্য ধারার অন্যতম রূপকার?

উঃ মাইকেল মধুসুদন দত্ত।প্রশ্ন: বাংলা সাহিত্যের প্রথম উপন্যাস কোনটি?

উঃ আলালের ঘরের দুলাল।প্রশ্ন: ‘আলালের ঘরের দুলাল’ এর রচয়িতা কে?

উঃ প্যারীচাদ মিত্র।প্রশ্ন: বাংলা সাহিত্য কথ্যরীতির প্রবর্তক কে?

উঃ প্রমথ চৌধুরী।প্রশ্ন: ছোটগল্পের আরম্ভে ও উপসংহারে কোন গুনটি প্রধান?

উঃ নাটকীয়তা ।প্রশ্ন: বাংলা ভাষায় প্রথম সামাজিক নাটক কোনটি ?

উঃ কুলীনকুল সর্বস্ব।প্রশ্ন: বাংলা ভাষায় রচিত প্রথম নাটক ও নাট্যকার কে?

উঃ ভদ্রার্জুন- তারাচরণ সিকদার।প্রশ্ন: বাংলা সাহিত্যর প্রথম সার্থক নাট্যকার কে?

উঃ মাইকেল মধুসুদন দত্ত।প্রশ্ন: বাংলা সাহিত্যর প্রথম সার্থক ট্রাজেডি নাটক কোনটি ?

উঃ কৃষ্ণকুমারী।প্রশ্ন: বাংলা সাহিত্যের প্রথম মূদ্রিত গ্রন্থ কোনটি?

উঃ ‘কথোপকথন’।প্রশ্ন: বাংলা উপন্যাস সাহিত্য ধারার জনক?

উঃ বঙ্কিম চন্দ্র চট্টোপাধ্যায়।প্রশ্ন: রোমান্টিক প্রনয় উপাখ্যান ধারার অন্যতম কবি?

উঃ শাহ মুহাম্মদ সগীর।প্রশ্ন: রোমান্টিক প্রণয় উপখ্যান ধারার অন্যতম গ্রন্থ?

উঃ ইউসূফ- জুলেখা।প্রশ্ন: মঙ্গলকাব্যর ধারার অন্যতম কবি?

উঃ মুকুন্দরামপ্রশ্ন: বাংলা সাহিত্য ছোটগল্পের প্রকৃত জনক?

উঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।প্রশ্ন: ‘কথোপকথন’ এর রচয়িতা কে?

উঃ উইলিয়াম কেরি।প্রশ্ন: ঢাকা থেকে প্রকাশিত প্রথম গ্রন্থ কোনটি?

উঃ নীল দর্পন।প্রশ্ন: কোরআন শরীফ প্রথম বাংলায় অনুবাদ কে করেন?

উঃ ভাই গিরিশচন্দ্র সেন।প্রশ্ন: বাংলা সনেটের জনক কে?

উঃ মাইকেল মধুসূদন দত্ত।প্রশ্ন: সনেটের জনক কে?

উঃ ইটালীর পেত্রাক।প্রশ্ন: ‘গাজঅকালু ও চম্পাবতী’ কোন ধরনের সাহিত্য?

উঃ পুঁথি সাহিত্য।প্রশ্ন: বাংলাদেশের লোক সাহিত্যের বিখ্যাত গবেষক কে?

উঃ আশরাফ সিদ্দিকী।প্রশ্ন: রূপকথা কে সংগ্রহ করেছিলেন?

উঃ দক্ষিণারঞ্জন মিত্র মজুমদার।প্রশ্ন: বাংলা সাহিত্যের ইতিহাসে প্রধানত কয়টি যুগে ভাগ করা?

উঃ তিনটি। (প্রাচীন যুগ, মধ্যযুগ ও অধুনিক যুগ)প্রশ্ন: ড. মুহাম্মদ শহীদুল্লাহর মতে প্রাচীন যুগের পরিধি কত পর্যন্ত বিস্তৃৃত ছিল?

উঃ ৬৫০-১২০০ সাল পর্যন্তু।প্রশ্ন: মধ্য যুগের বাংলা ভাষার পরিধি কত সাল পর্যন্ত বিস্তৃৃত ছিল?

উঃ ১২০১-১৮০০ সাল পর্যন্তু।

বাংলা সাহিত্যের কিছু নমুনা প্রশ্ন-উত্তর::

❏ শ্রীকৃষ্ণকীর্তন কাব্যের কাহিনী বিস্তারের সময়কাল কত?

উ: আড়াই বছর 

❏ মধুসূদন কোন কবিকে এ বঙ্গের অলঙ্কার বলেছেন?

উ: কৃত্তিবাসকে

❏ সারদামঙ্গল কোন পত্রিকায় প্রকাশিত হয়?

উ: আর্যদর্শন 

❏ কারকের বাংলা প্রতিশব্দ পরিনমন কে রাখেন?

উ: রামমোহন রায় 

❏ ইবলিশ ছদ্মনামে কে লিখতেন?

উ: সৈয়দ মুস্তফা সিরাজ 

❏ সুনীল গঙ্গোপাধ্যায় কোন উপন্যাসের জন্য সাহিত্য একাডেমি পুরস্কার পান?

উ: ‘সেই সময়’

বাংলা সাহিত্য থেকে গুরুত্বপূর্ণ কিছু প্রশ্নোত্তর গুলো পড়ুন

প্রশ্ন : ‌‘শূন্যপুরাণ’ কি ?

উত্তর : গদ্য-পদ্য মিশ্রিত চম্পুকাব্য।

প্রশ্ন : একটি সম্পূর্ণ মঙ্গলকাব্যে সাধারণত কতটি অংশ থাকে?

উত্তর : ৫টি।

প্রশ্ন : শ্রীচৈতন্যদেবের জীবনীগ্রন্থকে বলা হয়

উত্তর : কড়চা।

প্রশ্ন : মুকুন্দদাস চক্রবর্তীকে আখ্যায়িত করা হয়

উত্তর : দুঃখ বর্ণনার কবি হিসেবে।

প্রশ্ন : ‘নৌকাডুবি’ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর রচিত একটি

উত্তর : উপন্যাস।

প্রশ্ন : ‘জীবন থেকে নেয়া’ চলচ্চিত্রটি

উত্তর : ভাষা আন্দোলনভিত্তিক।

প্রশ্ন : আল মাহমুদ রচিত ‘পানকৌড়ির রক্ত’

উত্তর : ছােটগল্প গ্রন্থ।

প্রশ্ন : ‘আবােল-তাবােল’ গ্রন্থের লেখক

উত্তর : সুকুমার রায়।

প্রশ্ন : ‘বাংলা একাডেমি সংক্ষিপ্ত বাংলা অভিধান’ এর সম্পাদক

উত্তর : আহমদ শরীফ।

প্রশ্ন : সমকাল পত্রিকার সম্পাদক ছিলেন

উত্তর : সিকানদার আবু জাফর।

প্রশ্ন : ‘মােস্তফা চরিত’ গ্রন্থের রচয়িতা

উত্তর : মওলানা আকরম খাঁ।

প্রশ্ন : ‘রেখাচিত্র’ আবুল ফজলের

উত্তর : আত্মজীবনীমূলক রচনা।

প্রশ্ন : ‘এসাে বিজ্ঞানের রাজ্যে’ এর লেখক

উত্তর : আব্দুল্লাহ আল মুতী শরফুদ্দিন।

প্রশ্ন : ‘আমি বীরাঙ্গনা বলছি’ গ্রন্থের লেখক

উত্তর : ড. নীলিমা ইব্রাহীম।

প্রশ্ন : ‘বিচারক’ উপন্যাসটির রচয়িতা

উত্তর : তারাশঙ্কর বন্দ্যোপাধ্যায়।

প্রশ্ন : বাংলা সাহিত্যের প্রথম সার্থক উপন্যাস

উত্তর : দুর্গেশনন্দিনী।

প্রশ্ন : বাংলা উপন্যাস সাহিত্য ধারার জনক

উত্তর : বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়।

প্রশ্ন : ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের মৌলিক রচনা

উত্তর : প্রভাবতী সম্ভাষণ।

প্রশ্ন : বাংলা সাহিত্যের প্রথম সার্থক নাটক

উত্তর : শর্মিষ্ঠা।

প্রশ্ন : মধুসূদন দত্ত রচিত ‘বীরাঙ্গনা’

উত্তর : পত্রকাব্য।

প্রশ্ন : দীনবন্ধু মিত্র অধিক পরিচিত

উত্তর : নাট্যকার রূপে।

প্রশ্ন : ‘উদাসীন পথিকের মনের কথা’ রচনাটি

উত্তর : মীর মশাররফ হােসেন রচিত।

প্রশ্ন : বাংলা সমবেত কণ্ঠ সংগীতের প্রবর্তক

উত্তর : দ্বিজেন্দ্রলাল রায়।

প্রশ্ন : ‘নারীর মূল্য’ প্রবন্ধটি শরৎচন্দ্র রচনা করেছিলেন

উত্তর : অনীলা দেবী ছদ্মনামে।

প্রশ্ন : বাংলা সাহিত্যের প্রথম গদ্যগ্রন্থ

উত্তর : কৃপার শাস্ত্রের অর্থভেদ।

প্রশ্ন : বসন্তরঞ্জন রায়ের উপাধি ছিল

উত্তর : বিদ্বদ্বল্লভ।

প্রশ্ন : বাংলা ভাষায় বৈষ্ণব পদাবলির আদি রচয়িতা

উত্তর : চণ্ডীদাস।

প্রশ্ন : আদি মঙ্গলকাব্য হিসেবে পরিচিত

উত্তর : মনসামঙ্গল।

প্রশ্ন : ‘চণ্ডীমঙ্গল’ কাব্যের প্রধান চরিত্র

উত্তর : কালকেতু।

প্রশ্ন : ‘অন্নদামঙ্গল’ ধারার প্রধান কবি

উত্তর : ভারতচন্দ্র রায়গুণাকর।

প্রশ্ন : অন্নদামঙ্গল কাব্য বিভক্ত

উত্তর : তিন খণ্ডে।

প্রশ্ন : ‘গােপীচাঁদের সন্ন্যাস’র রচয়িতা

উত্তর : শুকুর মুহাম্মদ।

সবার আগে Google News আপডেট পেতে Follower ক্লিক করুন

চাকুরি

শেয়ার করুন:

3 thoughts on “বিগত ৩০ বছরে বাংলা সাহিত্য ও ব্যাকরণ নিয়োগ পরীক্ষায় আষার সকল MCQ নৈবিত্তিক প্রশ্ন সমাধান এক সাথে, নিয়োগ পরীক্ষায় বাংলা থেকে আসা প্রশ্নগুলোর সমাধান

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *