বাণিজ্যিক ব্যাংক, বাণিজ্যিক ব্যাংকের সংজ্ঞা, তহবিলের উৎস, ঋণ আমানত সৃষ্টি, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সাথে বাণিজ্যিক ব্যাংকের সম্পর্ক পয়েন্ট আকারে আলােচনা করতে হবে

বাণিজ্যিক ব্যাংক, বাণিজ্যিক ব্যাংকের সংজ্ঞা, তহবিলের উৎস, ঋণ আমানত সৃষ্টি, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সাথে বাণিজ্যিক ব্যাংকের সম্পর্ক পয়েন্ট আকারে আলােচনা করতে হবে

এইচ এস সি পরীক্ষা প্রস্তুতি শিক্ষা
শেয়ার করুন:

অ্যাসাইনমেন্ট : বাণিজ্যিক ব্যাংকের।

 শিখনফল/বিষয়বস্তু :  

  • বাণিজ্যিক ব্যাংক সম্পর্কে বিস্তারিত ব্যাখ্যা করতে পারবাে। 
  • বাণিজ্যিক ব্যাংকের তহিবিলের উৎস বর্ণনা করতে পারবাে 
  • কীভাবে বাণিজ্যিক ব্যাংক ঋণ আমানত সৃষ্টি করে তার ব্যাখ্যা করতে পারবাে। 
  • কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সাথে বাণিজ্যিক ব্যাংকের সম্পর্ক কেমন তা আলােচনা করতে পারবাে

নির্দেশনা (সংকেত/ ধাপ/ পরিধি): 

  • বাণিজ্যিক ব্যাংকের সংজ্ঞা ব্যাখ্যা করতে হবে 
  • বাণিজ্যিক ব্যাংকের তহবিলের উৎস ব্যাখ্যা করতে হবে
  • বাণিজ্যিক ব্যাংক কীভাবে ঋণ আমানত সৃষ্টি করে তার ব্যাখ্যা করতে হবে
  • কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সাথে বাণিজ্যিক ব্যাংকের সম্পর্ক পয়েন্ট আকারে আলােচনা করতে হবে।

উত্তর সমূহ:

এসাইনমেন্ট সম্পর্কে যে কোন প্রশ্ন আপনার মতামত জানাতে পারেন আমাদের কে লাইক পেজ : Like Page ইমেল : assignment@banglanewsexpress.com

বাণিজ্যিক ব্যাংকের সংজ্ঞা ব্যাখ্যা করতে হবে 

বাণিজ্যিক ব্যাংকের কার্যাবলিই বাণিজ্যিক ব্যাংকিং। বাণিজ্যিক ব্যাংক দেশের কোম্পানি ও ব্যাংকিং আইন অনুযায়ী গঠন করা হয়ে থাকে। এ ব্যাংক জনগণ থেকে বিভিন্ন হিসাবের মাধ্যমে আমানত গ্রহণ করে। এ ব্যাংক দেশের মুদ্রা বাজারের সদস্য হিসাবেও কাজ করে। বাণিজ্যিক ব্যাংক সরকারি, বেসরকারি ও সরকারি-বেসরকারি মালিকানায় হয়ে থাকে।

একটি দেশে একাধিক বাণিজ্যিক ব্যাংক থাকতে পারে এবং দেশে-বিদেশে শাখা খুলতে পারে। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের অনুমতি সাপেক্ষে এ ব্যাংক বৈদেশিক বাণিজ্যেও অংশগ্রহণ করে। নিকাশ ঘর পরিচালনার ক্ষেত্রে বাণিজ্যিক ব্যাংক কেন্দ্রীয় ব্যাংককে সহায়তা করে। এ প্রকার ব্যাংক কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কাছে বাধ্যতামূলকভাবে হিসাব বিবরণী পেশ করতে হয়।

» প্রফেসর Roger এর মতে-
“ The bank which deals with money and money‟s worth with a view to earning profit is known as “Commercial bank.”
অর্থাৎ ‘মুনাফা অর্জনের উদ্দেশ্যে যে প্রতিষ্ঠান অর্থ ও অর্থের মূল্যে পরিমাণযোগ্য বা সেবা লেনদেন করে থাকে, এরকম প্রতিষ্ঠানকে বাণিজ্যিক ব্যাংক বলা হয়’।

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল  কপিরাইট: (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

বাণিজ্যিক ব্যাংকের তহবিলের উৎস ব্যাখ্যা করতে হবে

অন্যান্য ব্যবসার মতো ব্যাংক ব্যবসায় মুখ্য উদ্দেশ্য মুনাফা অর্জন করা। বিভিন্ন খাতে ব্যাংক তার তহবিল বিনিয়োগ করে মুনাফা অর্জন করে। তবে এই বিনিয়োগের জন্য আগে চাই তহবিলের নিশ্চয়তা। তহবিল ছাড়া বিনিয়োগ কার্যক্রম পরিচালনা করা যায় না। ব্যাংকগুলোও আমানত সংগ্রহ করার মাধ্যমে তাদের তহবিল গঠন করে এবং ঋণ কার্যক্রম পরিচালনা করে। ইসলামী ব্যাংকসমূহও বিভিন্ন উৎস থেকে অর্থ সংগ্রহ করে তার তহবিল গঠন করে থাকে। সংগৃহীত তহবিল ব্যাংক যতটা সুপরিকল্পনা ও দক্ষতার সাথে কাজে লাগাতে পারে, ব্যাংকের মুনাফাও ততটা বেশি হয়ে থাকে।

ব্যাংক কর্তৃক সংগৃহীত অর্থ বা পুঁজিই হচ্ছে ব্যাংক তহবিল। ব্যাংক তার প্রয়োজনীয় তহবিল শেয়ার বিক্রয়, সঞ্চিতি তহবিল বা বিভিন্ন রিজার্ভ থেকে সংগ্রহ করতে পারে যা ব্যাংকের নিজস্ব তহবিল। আবার ব্যাংক আমানতের মাধ্যমে জনগণের নিকট থেকে, কেন্দ্রীয় ব্যাংক বা অন্যান্য আর্থিক প্রতিষ্ঠানের নিকট থেকে ঋণ হিসেবে অর্থ সংগ্রহ করতে পারে যা ব্যাংকের ঋণকৃত তহবিল হিসেবে গণ্য করা হয়। উভয় তহবিলের সমন্বয় এ ব্যাংকের তহবিল গঠিত হয়।

অতএব, ব্যাংক অভ্যন্তরীণ ও বাহ্যিক উৎস থেকে যে অর্থ সংগ্রহ করে, তার সমষ্টিকে ব্যাংকের তহবিল বলা হয়। অভ্যন্তরীণ উৎস বলতে শেয়ার মূলধন ও সঞ্চিতি তহবিল এবং বাহ্যিক উৎস বলতে সরাসরি আমানত ও বিনিয়োগের মাধ্যমে সংগৃহীত অর্থের সমষ্টিকে বোঝায়।

Sources of Commercial Banks Fund (বাণিজ্যিক ব্যাংকের তহবিলের উৎস)
ব্যাংক ইচ্ছা করলে যেনতেনভাবে তহবিল গঠন করতে পারে না। ব্যাংক কতগুলো নির্দিষ্ট উৎস থেকে নির্দিষ্ট নিয়মে তার তহবিল গঠন করে থাকে। এর কিছু বহিঃস্থ উৎস আর কিছু অভ্যন্তরীণ উৎস রয়েছে। ব্যাংকের তহবিলের উৎস প্রধানত দুটি। যথা-
ক) Bank’s Owner’s Equity বা ব্যাংকের নিজস্ব তহবিল; ও
খ) Bank’s Borrowed Fund বা ব্যাংকের কর্জকৃত তহবিল।

বাণিজ্যিক ব্যাংকের আয়ের উৎস
 

  • ঋণের সুদ
  • বিল বাট্টাকরণ
  • বিনিয়োগ
  • ঋণের দলিল ইস্যু
  • লকার ভাড়া দেয়া
  • শেয়ার, অবলেখক
  • অছি হিসেবে দায়িত্ব পালন

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল  কপিরাইট: (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

বাণিজ্যিক ব্যাংক কীভাবে ঋণ আমানত সৃষ্টি করে তার ব্যাখ্যা করতে হবে

বানিজ্যক ব্যাংক ঋণ থেকে আমানত ও আমানত থেকে ঋণের সৃষ্টি করে। বানিজ্যক ব্যাংকের এ ঋণ থেকে আমানত ও আমানত থেকে ঋণের সৃষ্টি করার পদ্ধোতিকে “বানিজ্যক ব্যাংকের ঋণ আমানত” সৃষ্টি বলে। অর্থাৎ, বানিজ্যিক ব্যাংক ঋণকে আমানত বানায় এবং আমানতকে ঋণ বানায়।

ব্যাখ্যাঃ বানিজ্যক ব্যাংক বলতে ঐ ব্যাংকে বুঝায় যারা জনগনের নিকট ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা অর্থ গুলো বিভিন্ন হিসাবের (চলতি হিসাব, স্থায়ী হিসাব, সঞ্চয়ী হিসাব) নামে আমানত হিসেবে গ্রহন করে বিনিময়ে আমানত কারীকে স্বল্প হারে সুদ প্রদান করে। এই আমানতকৃত অর্থ থেকে কিছু অংশ নগদ (আমানতকারীর চাহিবা মাত্র টাকা প্রাপ্তি নিশ্চত করতে) হাতে রেখে বাকী অংশ অধিক সুদের হারে বিভিন্ন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের নিকট ঋণ হিসেবে প্রদান করে।

বানিজ্যক ব্যাংকের “ঋণ আমানত সৃষ্টি বলতে বানিজ্যক ব্যাংকেরর দুইটি কাজকে বুঝাতে পারি

১. আমানত থেকে ঋণ সৃষ্টি এবং ২. ঋণ থেকে আমানত সৃষ্টি

১. আমানত থেকে ঋণ সৃষ্টি বানিজ্যক ব্যাংক জনগণের নিকট থেকে অর্থ আমানত হিসেবে গ্রহন করে। এ আমানতকৃত অর্থ থেকে ঋণ প্রদান করে। এই প্রক্রিয়ার মাধ্যমে ব্যাংক আমানত থেকে ঋণ সৃষ্টি করে।

২. ঋণ থেকে আমানত সৃষ্টি ধরুন আপনি ঋণ নিবেন। আপনি যদি কোন ব্যক্তির নিকট থেকে ঋণ নেন তাহলে ঐ ব্যক্তি আপনাকে নগদ অর্থ প্রদান করবে অর্থাৎ, আপনি হাতে নগদ টাকা পেয়েযাবেন। কিন্তু এই ঋণ টাই যদি কোন ব্যাংক থেকে নেন তবে ব্যাংক আপনাকে সাথে সাথে নগদ টাকা দিবে না অর্থাৎ, আপনি সাথে সাথে হাতে নগদ টাকা পাবেন না। ব্যাংক আপনাকে তাদের ব্যাংকে হিসাব খুরতে বলবে (উক্ত ব্যাংকে আগে থেকেই আপনার হিসাব থাকলে নতুন করে হিসাব খুলতে হবে না)।

আপনার ব্যাংক হিসাবে ঋণের অর্থ স্থানান্তর করবে। যা আপনার আমানতকৃত টাকার মতই আপনি যখন তখন চেকের মাধ্যমে উত্তোলন করতে পারবেন বা উঠাতে পারবেন। এই প্রক্রিয়ার মাধ্যমে ব্যাংক ঋণ থেকে আমানত সৃষ্টি করে

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল  কপিরাইট: (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সাথে বাণিজ্যিক ব্যাংকের সম্পর্ক পয়েন্ট আকারে আলােচনা করতে হবে।

অর্থনীতি বিশেষ করে মুদ্রা বাজারের অভিভাবক হিসেবে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সাথে বাণিজ্যিক ব্যাংকসমূহের নিম্নলিখিত সম্পর্ক বিদ্যমান-

১) Statutory reserve (বিধিবদ্ধ রিজার্ভ)
বাণিজ্যিক ব্যাংককে তার আমানতের একটি নির্দিষ্ট অংশ বাধ্যতামূলকভাবে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কাছে জমা রাখতে হয়। যা উভয়কে একটি ঘনিষ্ঠ সম্পর্কে আবদ্ধ করেছে।

২) Clearing house (নিকাশ ঘর)
নিকাশ ঘরের দায়িত্ব পালন করে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এর মাধ্যমে কেন্দ্রীয় ব্যাংক ও বাণিজ্যিক ব্যাংকের মধ্যে বিশেষ সম্পর্কের সৃষ্টি হয়।

৩) Task report (কার্য বিবরণী)
বাণিজ্যিক ব্যাংকসমূহকে সপ্তাহে এবং মাসে তাদের কাজের বিবরণী কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নিকট পাঠাতে হয়। এ প্রক্রিয়ায় উভয়ের মধ্যে গভীর সেতুবন্ধন গড়ে ওঠে।

৪) Information suppliers (তথ্য সরবরাহকারী)
কেন্দ্রীয় ব্যাংক দেশ-বিদেশের অর্থ বাজার, অর্থনীতি ও সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়ে তথ্য সরবরাহ করে থাকে। এর মাধ্যমে বাণিজ্যিক ব্যাংক ও কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সম্পর্ক আরও গভীর হয়।

৫) Liquidity reserve (তারল্য সংরক্ষণ)
বাণিজ্যিক ব্যাংকের তারল্য রক্ষা ব্যবস্থার কারণেই এর মধ্যে আদেষ্টা-আদিষ্টের সম্পর্কের সৃষ্টি হয়।

৬) Guardian (অভিভাবক)
কেন্দ্রীয় ব্যাংক বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর অভিভাবক হিসেবে কাজ করে।

৭) Last resort (শেষ আশ্রয়স্থল)
ঋণের শেষ আশ্রয়স্থল হিসেবে কেন্দ্রীয় ব্যাংক বাণিজ্যিক ব্যাংকের নিকট সবচেয়ে আপনজন হিসেবে পরিচিত হয়ে থাকে।

৮) Take opportunity through membership (সদস্যভুক্তির মাধ্যমে সুযোগ গ্রহণ)
বাণিজ্যিক ব্যাংকসমূহ কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সাথে সম্পর্ক গড়ে তোলার জন্য তার সদস্য হয়ে থাকে।

৯) Banker-customer relationship (ব্যাংকার-গ্রাহক সম্পর্ক)
প্রয়োজনের সময় বাণিজ্যিক ব্যাংক কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নিকট হতে ঋণ গ্রহণ করে থাকে। তাই তখন এদের মধ্যকার সম্পর্ককে ব্যাংকার-গ্রাহক সম্পর্ক বলে চিহ্নিত করা হয়ে থাকে।

১০) Associate (সহযোগী)
কেন্দ্রীয় ব্যাংক তার নীতি ও পরিকল্পনা বাণিজ্যিক ব্যাংকের মাধ্যমে বাস্তবায়ন করে, আবার বাণিজ্যিক ব্যাংক কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নিকট হতে বিভিন্ন সাহায্য-সহযোগিতা নিয়ে থাকে। এভাবে একে অপরের সহযোগী হিসেবে কাজ করে থাকে।

১১) Bankers of all banks (সব ব্যাংকের ব্যাংকার)
সব ব্যাংকের ব্যাংকার হিসেবে কাজ করায় কেন্দ্রীয় ব্যাংক বাণিজ্যিক ব্যাংকের সাথে গভীর সম্পর্কে আবদ্ধ।

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল ©সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

এসাইনমেন্ট সম্পর্কে যে কোন প্রশ্ন আপনার মতামত জানাতে পারেন আমাদের কে লাইক পেজ : Like Page ইমেল : assignment@banglanewsexpress.com

  • ২০২১ সালের SSC পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ২০২১ সালের HSC পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ২০২১ সালের ৯ম/১০ শ্রেণি ভোকেশনাল পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ২০২১ সালের HSC (বিএম-ভোকে- ডিপ্লোমা-ইন-কমার্স) ১১শ ও ১২শ শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ২০২২ সালের ১০ম শ্রেণীর পরীক্ষার্থীদের SSC ও দাখিল এসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ২০২২ সালের ১১ম -১২ম শ্রেণীর পরীক্ষার্থীদের HSC ও Alim এসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ৬ষ্ঠ শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ লিংক
  • ৭ম শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ লিংক
  • ৮ম শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ লিংক
  • ৯ম শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ লিংক

এখানে সকল প্রকাশ শিক্ষা বিষয় তথ্য ও সাজেশন পেতে আমাদের সাথে থাকুন ।

আমাদের YouTube এবং Like Page

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *