তাওহীদ শব্দের অর্থ একত্ববাদ। মহান আল্লাহ এক ও অদ্বিতীয় সত্তা হিসেবে বিশ্বাস করার নামই হলো তাওহীদ।

তাওহীদ শব্দের অর্থ একত্ববাদ। মহান আল্লাহ এক ও অদ্বিতীয় সত্তা হিসেবে বিশ্বাস করার নামই হলো তাওহীদ।

ইসলাম ধর্ম
শেয়ার করুন:

আমাদের চারপাশের সৃষ্টি জগতের মাঝে মহান আল্লাহর একত্ববাদের অসংখ্য নমুনা বিদ্যমান।

বাস্তব উদাহরণ সহ একত্ববাদ এর প্রমাণ উল্লেখ করে একটি পোস্টার তৈরি করো।

ইসলামের সর্বপ্রথম বিষয় হল আকাইদ। ইসলামের মূল বিষয় গুলোর উপর মনেপ্রাণে বিশ্বাস করাকেই আকাইদ বলা হয়।

আকাইদের সবগুলো বিষয়ের উপর বিশ্বাস স্থাপন করলে মানুষ ইসলামে প্রবেশ করতে পারে।

অর্থাৎ তাওহীদ, রিসালাত, আখিরাত, আসমানী কিতাব, ফেরেশতা ইত্যাদির উপর বিশ্বাস স্থাপন করার নাম আকাইদ।

যে এসব বিষয়ে বিশ্বাস করে, সে-ই ইসলামের প্রবেশকারী বা মুসলমান।

তাওহীদ শব্দের অর্থ একত্ববাদ। মহান আল্লাহ এক ও অদ্বিতীয় সত্তা হিসেবে বিশ্বাস করার নামই হলো তাওহীদ।

অর্থাৎ আল্লাহ তায়ালা এক। তাঁর কোন শরীক নেই। তিনি স্বয়ংসম্পূর্ণ। তিনি আমাদের রক্ষক, সৃষ্টিকর্তা, পালনকর্তা ও রিজিকদাতা।

তিনি অনাদি ও অনন্ত। তাঁর সমকক্ষ বা সমতুল্য কিছুই নেই। তিনিই একমাত্র মাবুদ।

সকল প্রশংসা ও ইবাদত একমাত্র তাঁরই প্রাপ্য। মনেপ্রাণে এরূপ বিশ্বাসকেই তাওহীদ বলা হয়।

আকাইদের সর্বপ্রথম ও সর্ব প্রধান বিষয় হলো তাওহীদ। তাওহীদে বিশ্বাসের মাধ্যমেই মানুষ ঈমান ও ইসলামে প্রবেশ করে।

তাওহীদে বা একত্ববাদে বিশ্বাসের পর আকাইদের অন্যান্য বিষয় বিশ্বাস করতে হয়। তাওহীদে বিশ্বাস মানুষের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

কত বিশাল এ বিশ্বজগৎ। আমাদের পৃথিবী এর সামান্য অংশমাত্র।

বড় বড় গ্রহ, নক্ষত্র, ছায়াপথ, নীহারিকা, গ্যালাক্সি এ বিশ্বজগতে বিরাজমান।

এগুলোর প্রত্যেকটি সুশৃংখলভাবে ঘুরছে। কোনোটি এর নির্ধারিত নিয়মের বাইরে যাচ্ছে না।

তাওহীদ বা একত্ববাদ এর প্রমাণ উল্লেখ করে একটি পোস্টার তৈরি

আমাদের পৃথিবী কত সুন্দর। এতে রয়েছে বিশাল আকাশ, বিস্তৃত মাঠ, বড় বড় পাহাড় পর্বত, প্রবাহমান নদী নালা, সাগর মহাসাগর। আল্লাহ তা’আলাই এসব কিছুর সৃষ্টিকর্তা ও নিয়ন্তা। মহাজগতের নিয়ম-শৃঙ্খলা তাঁরই দান।

পৃথিবীর সকল কিছুর স্রষ্টাও তিনিই। আর পশু পাখি, গাছপালা সবকিছু নিয়ন্ত্রক তিনি। তিনিই সবকিছু করেন। বরং তিনি যা ইচ্ছা করেন তাই হয়। এ সবকিছুতে যদি একের বেশি নিয়ন্তা থাকতো, তবে নানা রকম বিশৃঙ্খলা দেখা দিত।

আল্লাহ তায়ালা পবিত্র কুরআনে বলেছেন-

“ যদি আকাশ মন্ডলী ও পৃথিবীতে, আল্লাহ ব্যতীত বহু ইলাহ থাকতো, তবে উভয়েই ধ্বংস হয়ে যেত।”( সূরা আল-আম্বিয়া, আয়াত ২২)

একাধিক স্রষ্টা থাকলে তারা তাদের সৃষ্টি কে নিয়ে আলাদা হয়ে যেতেন। যেমন আগুনের স্রষ্টা আগুন নিয়ে পৃথক হয়ে পড়তেন। অতঃপর সমস্ত কিছুকে আগুন দ্বারা জ্বালিয়ে দিয়ে তার নিজ ক্ষমতার প্রকাশ করতেন।

তেমনি মহাসাগরের স্রষ্টা সারা পৃথিবী তার সৃষ্টি দ্বারা ডুবিয়ে দিতে চাইতেন। এভাবে স্রষ্টাগণ নিজ নিজ সৃষ্টি দ্বারা অন্যের উপর বিজয়ী হতে চাইতেন। ফলে আমাদের অস্তিত্ব বিলুপ্ত হয়ে যেত। পৃথিবীর সকল কিছুই ধ্বংস হয়ে যেত।

এসব বর্ণনা এ কথাই প্রমাণ করে যে, ইলাহ মাত্র একজনই। আর তিনি হলেন আল্লাহ তায়ালা। তিনি সকল কিছুর স্রষ্টা, নিয়ন্ত্রক ও পালনকর্তা। তাঁর হুকুম ও নিয়মেই সবকিছু পরিচালিত হয়। কোন সৃষ্টিই এ নিয়মের ব্যতিক্রম করতে পারে না। এসব কাজে তিনি একক ও অদ্বিতীয়। আন্তরিকভাবে এরূপ বিশ্বাসের নামই তাওহীদ বা একত্ববাদ।

J.S.C

শেয়ার করুন:

আপনার মূল্যবান মতামত দিন