ওটিটিস মিডিয়া রোগ কি ? এর লক্ষণ ও প্রতিকার?, কান পাকা রোগ কি ? এর লক্ষণ ও প্রতিকার?, কান পাকা রোগের সমাধান কী?,কান পাকা রোগ কেন হয়?,কানপাকা রোগের লক্ষণ ও চিকিৎসা, কানপাকা রোগ : কেন হয় এবং কি করবেন, কান পাকা রোগের চিকিৎসা কী?, কানপাকা ভয়ংকর রোগ

ওটিটিস মিডিয়া রোগ কি ? এর লক্ষণ ও প্রতিকার?, কান পাকা রোগ কি ? এর লক্ষণ ও প্রতিকার?, কান পাকা রোগের সমাধান কী?,কান পাকা রোগ কেন হয়?,কানপাকা রোগের লক্ষণ ও চিকিৎসা

রোগ প্রতিরোধ স্বাস্থ্য

বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস এর সর্বশেষ আপডেট পেতে Google News অনুসরণ করুন

শেয়ার করুন:

বিষয়: ওটিটিস মিডিয়া রোগ কি ? এর লক্ষণ ও প্রতিকার?, কান পাকা রোগ কি ? এর লক্ষণ ও প্রতিকার?, কান পাকা রোগের সমাধান কী?,কান পাকা রোগ কেন হয়?,কানপাকা রোগের লক্ষণ ও চিকিৎসা, কানপাকা রোগ : কেন হয় এবং কি করবেন, কান পাকা রোগের চিকিৎসা কী?, কানপাকা ভয়ংকর রোগ

ওটিটিস মিডিয়া বা কান পাকা রোগ কি :-

ওটিটিস মিডিয়া কথাটির অর্থ হলো মধ্য কর্ণের প্রদাহ। আমাদের মধ্যকর্ণ ইউস্টেশিয়ান টিউব বা অডিটরী টিউব নামক একটি সরু নালীর সাহায্যে গলবিলের সাথে সংযুক্ত। এই নালীর কাজ হলো মধ্যকর্ণের ভেতরের বায়ুর চাপ নিয়ন্ত্রণ করা।

শ্বাসনালীর যে কোন সংক্রমণে যদি মিউকাস দিয়ে নালিপথ বন্ধ হয়ে যায় এবং ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণ ঘটে এবং পুঁজ হয়, তবে তাকে ওটিটিস মিডিয়া (Otitis media) বলে যা সাধারণ মানুষের কাছে কান পাকা রোগ নামে পরিচিত।

রোগের কারণ (Causes of diseases) :-

ভাইরাস, ব্যাকটেরিয়া অথবা ছত্রাকের সংক্রমণে এ রোগ হয়। শিশুদের কানের ক্ষত সাধারণত ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণে ঘটে। তবে ঠাণ্ডাজনিত সমস্যার কারণেও শিশুদের এ রোগ হতে পারে।

ঊর্ধ্ব শ্বাসনালিতে যদি ভাইরাস অথবা ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ ঘটে তবে সেই জীবাণু ইউস্টেশিয়ান নালীর মাধ্যমে মধ্যকর্ণে বিস্তৃতি লাভ করে। ভাইরাসের পরবর্তী আক্রমণের কারণে কর্ণে তরল পদার্থ জমা হয়।

বয়স্কদের মধ্যে সর্দি, ইনফ্লুয়েঞ্জা ও পুরাতন সাইনুসাইটিস হতে মধ্যকর্ণ আক্রান্ত হয়। কানের মধ্যে দূষিত পানি প্রবেশ করলে অথবা দূষিত বস্তু দ্বারা কান খোচালেও ওটিটিস মিডিয়া হতে পারে।


More Article:-


লক্ষণ (Symptom) :-

১. কানের মধ্যে শব্দ হয় এবং অত্যধিক ব্যথা অনুভূত হয়।

২. ঘুমাতে অসুবিধা হয়, জ্বর থাকে, ক্ষুধা কম হয়।

৩. কানের ভেতর থেকে তরল নিঃসৃত হয়।

৪. যে সকল শিশু কথা বুঝতে পারে না তারা কর্ণছত্র ধরে নাড়াচাড়া করে সারাক্ষণ বিরক্ত করে, কান্না কাটি করে।

প্রতিকার (Prevention) :-

অধিকাংশ কানের সংক্রমণ আপনা থেকে ভালো হয়ে যায়। তবে-

১. এ ধরনের রোগে সাধারণত Amoxicillin এন্টিবায়োটিক বেশী কার্যকর।

2. জ্বর হলে ও কানে বেশী ব্যথা হলে Acetaminophen জাতীয় ঔষধ কার্যকর।

৩. ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী ওষুধ সেবন, কানে ড্রপ দেয়া, কানের অপারেশন করা।

৪. সংক্রমিত কানে নরম, উষ্ণ কাপড় দিয়ে চাপ দেয়া।

প্রশ্ন ও মতামত জানাতে পারেন আমাদের কে ইমেল : info@banglanewsexpress.com

আমরা আছি নিচের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম গুলোতে ও

শেয়ার করুন:

বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস এর সর্বশেষ আপডেট পেতে Google News অনুসরণ করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *