hsc production management and marketing 1st paper 5th week assignment answer 2021, এইচএসসি 2021 সালের উৎপাদন ব্যবস্থাপনা ও বিপণন ১ম পত্র ৫ম সপ্তাহের এসাইনমেন্ট উত্তর

hsc production management and marketing 1st paper 5th week assignment answer 2021, এইচএসসি 2021 সালের উৎপাদন ব্যবস্থাপনা ও বিপণন ১ম পত্র ৫ম সপ্তাহের এসাইনমেন্ট উত্তর

Assignment এইচ এস সি পরীক্ষা প্রস্তুতি শিক্ষা
শেয়ার করুন:
শ্রেণি: HSC 2021 বিষয়: উৎপাদন ব্যবস্থাপনা এসাইনমেন্টেরের উত্তর 2021
এসাইনমেন্টের ক্রমিক নংঃ 03 বিষয় কোডঃ 286
বিভাগ: ব্যবসায়

এসাইনমেন্ট শিরোনামঃ :উৎপাদন ও এর উপকরণসমূহের সম্পর্ক

শিখনফল/বিষয়বস্তু :

  • ১. উৎপাদনের উপকরণ হিসেবে ভূমির ধারণা ও বৈশিষ্ট্যগুলাে চিহ্নিত করতে পারবে;
  • ২. উৎপাদনের উপকরণ হিসেবে শ্রমের ধারণা ও বৈশিষ্ট্যগুলাে চিহ্নিত করতে পারবে; 
  • ৩. শ্রমবিভাগের ধারণা ব্যাখ্যা করতে পারবে; 
  • ৪. উৎপাদনের উপকরণ হিসেবে মূলধনের ধারণা ও বৈশিষ্ট্যগুলাে ব্যাখ্যা করতে পারবে; 
  • ৫.উৎপাদনের উপকরণ হিসেবে সংগঠনের ধারণা ও বৈশিষ্ট্যগুলাে ব্যাখ্যা করতে পারবে;

নির্দেশনা (সংকেত/ ধাপ/ পরিধি): 

  • উৎপাদনের উপকরণ হিসেবে – ভূমির ধারণা ও বৈশিষ্ট্যগুলাে ব্যাখ্যা করতে হবে।
  • শ্রমের ধারণা ও বৈশিষ্ট্যগুলাে ব্যাখ্যা করতে হবে।
  • মূলধনের ধারণা ও বৈশিষ্ট্যগুলাে ব্যাখ্যা করতে হবে।
  • সংগঠনের ধারণা ও বৈশিষ্ট্যগুলাে ব্যাখ্যা করতে হবে।
  • উপকরণের সাথে উৎপাদনের সম্পর্ক বিশ্লেষণ করতে হবে।

এসাইনমেন্ট সম্পর্কে যে কোন প্রশ্ন আপনার মতামত জানাতে পারেন আমাদের কে YouTube : Like Page ইমেল : assignment@banglanewsexpress.com

ভূমির ধারণা ও বৈশিষ্ট্য 

সাধারণ অর্থে ভূমি বলতে ভূপৃষ্ঠের উপরিভাগকেই বুঝায় । কিন্তু অর্থনীতিতে ভূমি বলতে শুধুমাত্র ভূপৃষ্ঠের উপরিভাগকেই বুঝায় না বরং প্রাকৃতিক সব সম্পদকেই বুঝায় । অর্থাৎ অর্থনীতিতে ভূমি বলতে ভূপৃষ্ঠসহ , সূর্যকিরণ , বৃষ্টিপাত , বাতাস , নদনদী , সমুদ্র ও বনজ সম্পদ ইত্যাদি প্রকৃতির সকল অবাধ দান যা উৎপাদনের কাজে লাগে তাকে বুঝায় । 

ভূমির বৈশিষ্ট্য হলাে 

( ১ ) ভূমি প্রকৃতির দান 

( ২ ) ভূমির যােগান দাম নেই 

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল ©সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

( ৩ ) ভূমি অবিনশ্বর 

( ৪ ) ভূমি স্থানান্তর যােগ্য নয় , তবে মালিকানা হস্তান্তর যােগ্য 

( ৫ ) অবস্থাগত কারণে ভূমির মূল্যের পার্থক্য হয় 

( ৬ ) ভূমির যােগান সীমাবদ্ধ ।

শ্রমের ধারণা ও বৈশিষ্ট্য 

শ্রম বলতে সাধারণত মানুষের শারিরীক শ্রমকেই বুঝায় । কিন্তু অর্থনীতিতে শ্রম বলতে উৎপাদন কাজে ব্যবহৃত মানুষের দৈহিক ও মানসিক সব শ্রমকেই শ্ৰম বুঝানাে হয় । 

শ্রমের বৈশিষ্ট্যঃ

শ্রম উৎপাদনের একটি আদি ও মৌলিক উপাদান। উৎপাদনের উপাদান হিসেবে শ্রমের কতকগুলাে বৈশিষ্ট্য আছে। নিচে এগুলাে আলােচনা করা হল :

১ঃশ্রম একটি জীবন্ত উপাদানঃশ্রমের প্রধান বৈশিষ্ট্য এই যে, এটি ভূমি ও মূলধনের মতাে প্রাণহীন একটি জড় পদার্থ নয়। শ্রম শ্রমিকের দৈহিক ও মানসিক শক্তি একটি জীবন্ত উপাদান। পারিশ্রমিকের জন্য শ্রমিক পরিশ্রম দিলেও তার অনুভূতি সত্ত্বা থাকে। শ্রমিকের জীবদ্দশায় তার শ্রম জীবন্ত ও কর্মক্ষম থাকে।

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল ©সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

২. শ্রম ও শ্রমিক অবিচ্ছেদ্যঃ শ্রমের অন্য একটি বৈশিষ্ট্য হল যে শ্রমিক ও শ্রম অবিচ্ছেদ্য। ভূমি ও ভূমির মালিক, মূলধন ও মূলধনের মালিক এক নয়, এরা স্বতন্ত্র। কিন্তু শ্রমিক থেকে শ্রমকে বিচ্ছিন্ন করা যায় না।

৩. শ্রম গতিশীলঃ শ্রমের আর একটি বৈশিষ্ট্য হল যে এটি অন্যান্য উৎপাদনের তুলনায় গতিশীল। ভূমির কোন ভৌগােলিক গতিশীলতা নেই, মূলধনের গতিশীলতাও কম। কিন্তু শ্রম অত্যন্ত গতিশীল। কারণ, বিশেষ করে বর্তমানকালে শ্রমিক একস্থান থেকে অন্যস্থানে, এক পেশা থেকে অন্য পেশায় চলে যেতে পারে।

৪. শ্ৰম ক্ষণস্থায়ী: শ্রমের অন্যতম বৈশিষ্ট্য হল যে, এটি ক্ষণস্থায়ী এবং এর সঞ্চয় সম্ভব নয়। অন্যান্য উপাদান যেমন, ভূমি ও মূলধন কিছুকাল ব্যবহার না করলেও তা ধ্বংস হয়ে যায়; কিন্তু শ্রম উৎপাদন কাজে ব্যবহার না করলে নষ্ট হয়ে যায়। কোন শ্রমিক একদিন বা এক ঘন্টা কাজ না করলে ঐ সময় নষ্ট হয়ে যায়, যা কোনদিন ফিরে পাওয়া সম্ভব নয়।

৫. শ্রমিকের দর কষাকষির ক্ষমতা কম: উদ্বৃত্ত শ্রমিকের দেশে বিশেষ করে শ্রমের ক্ষণস্থায়ী চরিত্রের কারণে দর কষাকষিতে শ্রমিকদের অবস্থান সুবধািজনক হয় না। বেশি দিন বেকার থাকার ঝুঁকি অনেকে নিতে চান না। এজন্য স্বল্প মজুরীতে অনেক শ্রমিক কাজ করেন। অবশ্য শ্রমিকগণ ট্রেড ইউনিয়নের মাধ্যমে মালিক পক্ষের সাথে দর কষাকষি করতে পারে।

৬. উৎপাদন ক্ষেত্রে শ্রমিকের উপস্থিতি অপরিহার্য:জমিতে ফসল ফলাতে জমির মালিকের উপস্থিতি অপরিহার্য নয়। কিন্তু উৎপাদনের সময় শ্রমিকের উপস্থিতি অপরিহার্য। স্বশরীরে উপস্থিত থেকেই তাকে শ্রমের যােগান দিতে হয়।

৭. শ্রমের যােগানের হ্রাসবৃদ্ধি সময় সাপেক্ষ: শ্রমের যােগান ভূমির মতাে একেবারে নির্দিষ্ট না হলেও এর হ্রাস বৃদ্ধি সময় সাপেক্ষ। তাই শ্রমের চাহিদা পরিবর্তনের সাথে সাথে এর যােগানের পরিবর্তন সম্ভব নয়। কারণ, শ্রমের যােগান একটি দেশের জন্মহার, শিক্ষা, প্রশিক্ষণ প্রভৃতি বিষয়ের উপর নির্ভরশীল। তাই মজুরী বাড়লেও শ্রমের যােগান দ্রুত বাড়ে না, আবার মজুরী কমলেও যােগান দ্রুত কমেনা। তাই স্বল্পকালে শ্রমিকের যােগান সীমাবদ্ধ থাকে।

মূলধনের ধারণা ও বৈশিষ্ট্য 

সাধারণ অর্থে, পুঁজি বাফhabuddin বলতে ব্যবসায়ে নিয়ােজিত টাকা পয়সাকে বুঝায়। কিন্তু অর্থনীতিতে মূলধন শব্দটি বিশেষ অর্থ জ্ঞাপন করে। মানুষের শ্রমের দ্বারা উৎপাদিত দ্রব্য সামগ্রীর যে অংশ সরাসরি ভােগের জন্য ব্যয়িত না হয়ে পুনরায় উৎপাদন কাজে ব্যবহৃত হয় এবং নতুন আয় প্রবাহ সৃষ্টি করে তাকে মূলধন বলে। মূলধন মানব সৃষ্ট, প্রকৃতি প্রদত্ত নয়। যেমন, বঙ্গবন্ধু বহুমুখী যমুনা সেতু, রেল লাইন, কারখানা, কাঁচামাল, কৃষকের লাঙ্গল, অফিস, গুদাম, ওয়ারলেস সেট ইত্যাদি মূলধন। অর্থনীতিবিদ বম ওয়ার্কের ভাষায়, মূলধন উৎপাদনের উৎপাদিত উপাদান। (Capital is the produced means of production)।

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল ©সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

অর্থনীতিবিদ চ্যাপম্যান বলেন, “যে সম্পদ কোন আয় সৃষ্টি করে অথবা উপার্জনে সহায়তা করে রে তা-ই হল মূলধন। (capital is wealth which yields an income or aids in the production of an income)। কোন দ্রব্য মূলধন হিসেবে গণ্য হবে কিনা তা ঐ দ্রব্যের ব্যবহারের উপর নির্ভর করে। বাড়ী-ঘর যখন বাসস্থান হিসেবে ব্যবহৃত হয় তখন এটা মূলধন নয়। কিন্তু ঐ বাড়ী-ঘর যদি অফিস হিসেবে ব্যবহৃত হয় তখন এটা মূলধন। সুতরাং যে সব দ্রব্য সামগ্রী মানুষের শ্রম দ্বারা উৎপাদিত এবং যা বর্তমান ভােগের জন্য ব্যবহৃত না হয়ে অধিক উৎপাদন কাজে ব্যবহৃত হয় তাকেই অর্থনীতিতে পুঁজি বা মূলধন বলা হয়।

মূলধনের বৈশিষ্ট্যঃ

মূলধন হল উৎপাদনের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। নিম্নে বর্ণিত বৈশিষ্ট্যসমূহের জন্য মূলধনকে অন্যান্য উপাদান থেকে পৃথক বলে গণ্য করা হয়। যথা :

১. মূলধন উৎপাদনশীল :আধুনিক উৎপাদন ব্যবস্থা মূলধনের উপর অনেকাংশে নির্ভরশীল। পুঁজি উৎপাদন ক্ষেত্রে মূলধনের গুরুত্ব আরাে অধিক। যেমন, খালি হাতের চেয়ে জাল দিয়ে অধিক পরিমাণ মাছ ধরা যায়। অত্যাধুনিক জালের সাহায্যে আরাে অধিক পরিমাণ মাছ ধরা হয়। সুতরাং পুঁজি নতুন পণ্য ও সেবা উৎপাদন করতে সাহায্য করে।

২. মূলধন উৎপাদনের উৎপাদিত উপাদান:মূলধনের অপর বৈশিষ্ট্য হল যে, এটি উৎপাদনের উৎপাদিত উপাদান। ভূমি বা শ্রমের ন্যায় মূলধন কোন মৌলিক উৎপাদন নয়। মানুষের শ্রম ও প্রাকৃতিক সম্পদের যৌথ প্রচেষ্টায় মূলধন সৃষ্টি হয় যা মানুষ সরাসরি ভােগ না করে ভবিষ্যৎ উৎপাদন কার্যে ব্যবহার করে।

৩. মূলধন অতীত শ্রমের ফল :মূলধন মানুষের অতীত শ্রমের পুঞ্জিভূত ফল। যন্ত্রপাতি, কল-কারখানা, কাঁচামাল প্রভৃতি দ্রব্যাদি যা মূলধন হিসেবে গণ্য হয় তা মানুষের পরিশ্রমের দ্বারা সৃষ্টি। জমির মতাে এটি প্রাকৃতিক উপাদান নয়।

৪. মূলধন সঞ্চয়ের ফল: মূলধন হল সঞ্চয়ের ফল। মূলধন বৃদ্ধির জন্য সঞ্চয়ের প্রয়ােজন হয়। মূলধন গঠন করতে হলে বর্তমান আয় বা উৎপাদনের একটি অংশ ভােগে না লাগিয়ে উৎপাদন কাজে ব্যবহার করা হয়। তাই মূলধন সৃষ্টি করতে মানুষকে তার আয়ের একাংশ বর্তমান ভােগে ব্যবহার না করে ভবিষ্যতের জন্য সঞ্চয় করতে হবে।

৫. মূলধন অস্থায়ী:মূলধন স্থায়ী সম্পদ নয়-এর ক্ষয়ক্ষতি আছে। যন্ত্রপাতি বা ঘরবাড়ীর আয়ুষ্কাল নির্দিষ্ট। দীর্ঘ ব্যবহারের ফলে মূলধন দ্রব্যসামগ্রী ক্ষয় প্রাপ্ত হয় এবং অকেজো হয়ে পড়ে। ফলে এর পরিবর্তন প্রয়ােজন হয়ে দাঁড়ায়।

৬.মূলধনের উৎপাদন খরচ আছে :মূলধন মানুষ দ্বারা উৎপাদিত মূলধন প্রাকৃতিক সম্পদ নয়। তাই মূলধনের উৎপাদন খরচ আছে।

৭. মূলধন সমজাতীয় সকল মূলধন একই গুণসম্পন্ন নয়। বিভিন্ন মূলধনের গুণগত পার্থক্য আছে এটি স্বতন্ত্র ক্রিয়াসম্পন্ন বিবিধ বস্তুর একটি জটিল সমষ্টি।

৮, মূলধন আয়ের উৎস: মূলধন ব্যবহারের প্রধান উদ্দেশ্য হল ভবিষ্যৎ আয়ের পথ সৃষ্টি করা। মূলধন ব্যবহার করলে উৎপাদনের পরিমাণ বৃদ্ধি পায় এবং অতিরিক্ত আয় সৃষ্টি হয়। এজন্য অধ্যাপক মার্শাল মূলধনকে আয়ের উৎস হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন।

সংঘঠনের ধারণা ও বৈশিষ্ট্য 

সংগঠন হলাে উৎপাদনের গুরুত্বপূর্ণ উপাদান।  অর্থনীতিতে সংগঠন বলতে উৎপাদনের অপরাপর তিনটি মূল উপকরণ যথা ভূমি , শ্রম ও মূলধনের আনুপাতিক সংগ্রহ , সংযােজন ও নিয়ােগ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে কোন নির্দিষ্ট লক্ষ্য অর্জন করার যে সুনিপুণ প্রচেষ্টা তাকে বুঝায় । 

সংগঠন হলাে একটি বিশেষ ধরনের শ্রম যার কতকগুলি বৈশিষ্ট্য আছে । যেমন 

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল ©সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

( ১ ) সংগঠন উৎপাদনের সাথে সম্পৃক্ত 

( ২ ) এটি একটি জীবন্ত উপকরণ 

( ৩ ) উৎপাদনের সাথে ঝুঁকি বহনের মানুষিক সক্ষমতা 

( ৪ ) সমাজের উদ্যোগী কর্মকুশল ও সম্পদশালী ব্যক্তিরা এর সাথে জড়িত ।

উৎপাদের ধারণা ও বৈশিষ্ট্য 

উৎপাদনের পরিমাণ উপকরণের উপর নির্ভরশীল । উপকরণ ছাড়া উৎপাদন সম্ভব নয় । উৎপাদনের উপরকরণ হচ্ছে ভূমি , শ্রম , মূলধন ও সংগঠন অর্থনীতিতে ভূমি বলতে ভূপৃষ্ঠসহ , সূর্যকিরণ , বৃষ্টিপাত , বাতাস , নদনদী , সমুদ্র ও বনজ সম্পদ ইত্যাদি প্রকৃতির সকল অবাধ দান যা উৎপাদনের কাজে লাগে তাকে বুঝায়।  ভূমি ছাড়া উৎপাদন সম্ভব নয়।  শ্রম বলতে উৎপাদন কাজে ব্যবহৃত মানুষের দৈহিক ও মানসিক সব শ্রমকেই শ্ৰম বুঝানাে হয় । শ্রমের মাধ্যমেই উৎপাদন সম্ভব হয় । মূলধন উৎপাদনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে । সংগঠন উৎপাদনের বাকি তিনটি উপাদানের সমন্বয় ঘটায় । পরিশেষে বলা যায় উপকরণ ও উৎপাদনের সম্পর্ক গভীর ।  

কোন কিছুর উৎপাদন উপকরণের উপর নির্ভর করে। আবার উৎপাদনের পরিমাণ উপকরনের পরিমাণের উপর নির্ভরশীল। সুতরাং আমরা বলতে পারি, কোন দ্রব্য উৎপাদন করতে গেলে যে সব বস্তু বা সেবা কার্যের প্রয়ােজন হয় তাদেরকেই যৌথভাবে উৎপাদনের উপকরণ বলা হয়। উৎপাদনের উপকরণ সাধারণত: চার ভাগে ভাগ করা যায়।

(১) ভূমি (Land),

(২) শ্ৰম (Labour)

(৩) মূলধন (capital), এবং

(৪) সংগঠন (Organization) বা উদ্যোক্তা (Entrepreneur)।

আমরা জানি, কোন দ্রব্যের মােট উৎপাদন উপকরণ সমূহের পরিমাণের উপর নির্ভরশীল। অর্থাৎ উৎপাদনকারী যখন উৎপাদন বাড়াতে চায় তখন উপকরণের পরিমাণও বাড়াতে হবে। কিন্তু উৎপাদনের সকল ক্ষেত্রে উপকরণ ব্যবহারের অনুপাত সমান হয় না। উৎপাদনের পরিমাণ কখনাে বেশী হারে বাড়ে, কখনাে কম হারে বাড়ে, কখনাে সমহারে বাড়ে।

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল ©সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

এসাইনমেন্ট সম্পর্কে যে কোন প্রশ্ন আপনার মতামত জানাতে পারেন আমাদের কে YouTube : Like Page ইমেল : assignment@banglanewsexpress.com

অন্য সকল ক্লাস এর অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর সমূহ :-

  • ২০২১ সালের SSC / দাখিলা পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ২০২১ সালের HSC / আলিম পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ভোকেশনাল: ৯ম/১০ শ্রেণি পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • HSC (বিএম-ভোকে- ডিপ্লোমা-ইন-কমার্স) ১১শ ও ১২শ শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ২০২২ সালের ১০ম শ্রেণীর পরীক্ষার্থীদের SSC ও দাখিল এসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ২০২২ সালের ১১ম -১২ম শ্রেণীর পরীক্ষার্থীদের HSC ও Alim এসাইনমেন্ট উত্তর লিংক

৬ষ্ঠ শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ , ৭ম শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ ,

৮ম শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ , ৯ম শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *