hsc (bm) 11 class business organization and management (1) 6th week assignment answer 2021, hsc বিএম ১১শ শ্রেণির ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা (১) ৬ষ্ঠ সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্টের সমাধান ২০২১

hsc (bm) 11 class business organization and management (1) 6th week assignment answer 2021, hsc বিএম ১১শ শ্রেণির ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা (১) ৬ষ্ঠ সপ্তাহের অ্যাসাইনমেন্টের সমাধান ২০২১

Assignment এইচ এস সি পরীক্ষা প্রস্তুতি শিক্ষা
শেয়ার করুন:
শ্রেণি: HSC বিএম -2021 বিষয়: ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা এসাইনমেন্টেরের উত্তর 2021
এসাইনমেন্টের ক্রমিক নংঃ 04 বিষয় কোডঃ 1817
বিভাগ: ভোকেশনাল শাখা

এসাইনমেন্ট শিরোনামঃ বাংলাদেশে অংশীদারী কারবারের তুলনায় এক মালিকানা ব্যবসা অধিক জনপ্রিয় ব্যাখ্যা কর।

শিখনফল/বিষয়বস্তু :

  • অংশীদারী কারবারের ধারণা জানতে পারবো
  • একমালিকানা ব্যবসায়ের ধারণা শিখতে পারবো
  • অংশীদারী ব্যবসায় ও একমালিকানা ব্যবসায়ের মধ্যে পার্থক্য শিখতে পারবো
  • অংশীদারী ব্যবসায়ের তুলনা এক মালিকানা ব্যবসায়ের জনপ্রিয়তার যৌক্তিকতা ব্যাখ্যা করতে পারবো।

নির্দেশনা (সংকেত/ ধাপ/ পরিধি): 

  • অংশীদারী কারবারের ধারণা ব্যাখ্যা করতে হবে
  • একমালিকানা ব্যবসায়ের ধারণা ব্যাখ্যা করতে হবে
  • অংশীদারী ব্যবসায় ও একমালিকানা ব্যবসার মধ্যে পার্থক্য 
  • অংশীদারী ব্যবসায়ের তুলনা একমালিকানা ব্যবসায়ের অধিক জনপ্রি য়তার পক্ষে যৌক্তিকতা ব্যাখ্যা করতে হবে।

এসাইনমেন্ট সম্পর্কে যে কোন প্রশ্ন আপনার মতামত জানাতে পারেন আমাদের কে YouTube : Like Page ইমেল : assignment@banglanewsexpress.com

  • অংশীদারী কারবারের ধারণা ব্যাখ্যা করতে হবে

সহজভাবে বলা যায় , একের অধিক ব্যক্তি মুনাফা অর্জনের উদ্দেশ্যে অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে যে ব্যবসায় গঠন করে তাকে অংশীদারি ব্যবসায় বলে । ব্যাপক অর্থে , কমপক্ষে দুই জন এবং সর্বোচ্চ বিশজন ( ব্যাংকিং ব্যবসায়ের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ দশজন ) ব্যক্তি মুনাফা অর্জন ও তা নিজেদের মধ্যে বণ্টনের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়ে স্বেচ্ছায় যে ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান গড়ে তােলে , তাকে অংশীদারি ব্যবসায় বলে । 

১৯৩২ সালের অংশীদারি আইন মােতাবেক অংশীদারি ব্যবসায় গঠিত , পরিচালিত ও নিয়ন্ত্রিত হয় । ১৮৯০ সালের বৃটিশ অংশীদারি আইন অনুসারে মুনাফা অর্জনের লক্ষ্যে যৌথভাবে পরিচালিত ব্যবসায়ে কতিপয় ব্যক্তির মধ্যে বিদ্যমান সম্পর্ককে অংশীদারি বলে ।

১৯৩২ সালের অংশীদারি আইনের ৪ ধারায় বলা হয়েছে যে , সকলের দ্বারা বা সকলের পক্ষে একজনের দ্বারা পরিচালিত ব্যবসায়ের মুনাফা নিজেদের মধ্যে বন্টনের নিমিত্তে একাধিক ব্যক্তির  মধ্যে যে চুক্তিবদ্ধ সম্পর্কের সষ্টি হয় তাদের প্রত্যেককে অংশীদার এবং সম্মিলিতভাবে তাদের ব্যবসায়কে অংশীদারি ব্যবসায় বলা হয় ।

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল ©সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

  • একমালিকানা ব্যবসায়ের ধারণা ব্যাখ্যা করতে হবে

পৃথিবীর প্রাচীনতম ও সহজ প্রকৃতির ব্যবসায়ের সংগঠনই হলাে একমালিকা ব্যবসায় । একজন ব্যক্তির মালিকানায় পরিচালিত ব্যবসায়কে এক মালিকানা ব্যবসায় বলে ।

সাধারণভাবে একজন ব্যক্তির মালিকানায় প্রতিষ্ঠিত , পরিচালিত ও নিয়ন্ত্রিত ব্যবসায়কে এক মালিকানা ব্যবসায় বলে । মুনাফা অর্জনের উদ্দেশ্য নিয়ে কোন ব্যক্তি নিজ দায়িত্বে পুজির সংস্থান করে যে ব্যবসায় গঠন,  পরিচালনা ও নিয়ন্ত্রন করে এবং সকল ঝুঁকি বহন ও সমুদয় মুনাফা একাই ভােগ করে তাকে এক মালিকানা ব্যবসায় বলে ।

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল ©সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

  • অংশীদারী ব্যবসায় ও একমালিকানা ব্যবসার মধ্যে পার্থক্য 

একক মালিকানা

একমাত্র মালিকানা এক ব্যক্তির দ্বারা গঠিত হয় যিনি ব্যবসার মালিক, এবং যারা ব্যবসা পরিচালনার জন্য এবং দৈনিক ব্যবসা কার্যক্রম পরিচালনা করার জন্য দায়ী। একটি স্বতন্ত্র মালিকানা গঠন খুবই সহজ এবং যে কোনও সময় ব্যক্তিগতভাবে সম্পৃক্ত হতে পারে। যেহেতু একমাত্র মালিক মালিক ব্যবসার একমাত্র মালিক, সে ব্যবসার সিদ্ধান্ত গ্রহণের জন্য সম্পূর্ণরূপে দায়ী এবং ব্যবসাটি যেভাবে চলছে সেভাবে র্যাডিকাল পরিবর্তন করার জন্য অন্য কাউকে পরামর্শ করতে হবে না। একক মালিক হওয়ার সুবিধার হল যে এটি শুরু করতে সস্তা, লাভের কোন বণ্টন নেই, ব্যবসায়িক সিদ্ধান্তের কোন দ্বন্দ্ব নেই, একমাত্র মালিক সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণের অনুমতি দেয় এবং যেকোনো সময় তা বন্ধ করা যায়। অসুবিধাগুলি মূলধন অর্জনের সমস্যাগুলি, শ্রম বিভাজক নয় এবং বিশেষত্ব এবং সীমাহীন দায়বদ্ধতার জন্য কোন স্থান নেই যেখানে একক মালিক কোনও ঋণ ফেরত দেওয়ার জন্য দায়ী, এমনকি যদি তার নিজের সম্পত্তিকে বিক্রি করতে হয় তবে তা করতে হবে।–২ ->

অংশীদারিত্ব

একটি অংশীদারিত্বে, বেশ কয়েকটি ব্যক্তি ব্যবসা পরিচালনা করার জন্য একটি ব্যবসার ব্যবস্থাপনার অধীনে একত্রিত হবে। একটি অংশীদারিত্বের মধ্যে সিদ্ধান্ত গ্রহণ ভাগ করা হয়, এবং জটিল সিদ্ধান্ত নিতে যাতে সব অংশীদারদের পরামর্শ দেওয়া উচিত। নির্ভরতা এবং বোঝার একটি অংশীদারিত্ব গঠনের জন্য ভিত্তি হতে পারে, যদিও এই ধরনের একটি ব্যবস্থা দ্বন্দ্বের উচ্চতর স্তরের আনতে পারে, যা ব্যাবসায়িক ক্রিয়াকলাপগুলি প্রতিকূলভাবে প্রভাবিত করতে পারে। অংশীদারিত্বের দায়বদ্ধতা সীমাবদ্ধ নাও হতে পারে, যদি না সীমিত অংশীদারিত্ব হয় এবং সাধারণ অংশীদারিত্বের ক্ষেত্রে একমাত্র মালিকানাধীন অংশীদাররা ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য ব্যক্তিগতভাবে দায়ী। একটি অংশীদারিত্বের সুবিধাগুলি যেহেতু আরও বেশি সদস্যকে রাজধানী সংগ্রহ করা যায়, সেহেতু বিভিন্ন দক্ষতা একটি অংশীদারিত্বের মধ্যে জমা করা হবে যা তাদের কার্যকারিতা উন্নত করতে পারে এবং শ্রম বিভাগে বিশেষত্ব দেখাতে পারে।

একক মালিকানা ও অংশীদারি মধ্যে পার্থক্য কি?

এটি একটি সীমিত অংশীদারিত্ব না হওয়া পর্যন্ত, উভয় অংশীদারিত্ব এবং একমাত্র মালিকানা সীমাহীন দায়বদ্ধতা সম্মুখীন এবং ব্যক্তিগত ক্ষতি হতে পারে। একটি স্বতন্ত্র মালিকানা শুধুমাত্র একটি মালিক আছে, যখন একটি অংশীদারিত্ব অনেক ব্যক্তির গঠিত হতে পারে একটি একক মালিকানা পৃথকভাবে ব্যবসার চালানোর জন্য এবং সিদ্ধান্ত গ্রহণের জন্য দায়ী, যা একটি অংশীদারিত্বের ক্ষেত্রে নয় যা দ্বন্দ্ব এবং ভুল বোঝাবুঝির সৃষ্টি করতে পারে। একটি স্বতন্ত্র মালিকানা সীমিত অংশীদারিত্বের মত নির্দিষ্ট ধরনের অংশীদারিত্বের তুলনায় তার গঠন কম জটিল এবং একটি অংশীদারী একটি মালিকানাধীন জ্ঞান এবং দক্ষতার একটি বৃহত্তর পুল আছে। একমাত্র মালিকানাধীন রাজধানীতে সীমিত প্রবেশাধিকার রয়েছে, যা তার প্রবৃদ্ধির জন্য অসুবিধা হতে পারে, যদিও একটি অংশীদারিত্ব অর্থায়ন আরও অ্যাক্সেস উপভোগ করবে।

সংক্ষিপ্তভাবে:একক মালিকানাধীন অংশীদারি অংশীদারিত্ব• একক মালিকানা ও সাধারণ অংশীদারিত্ব উভয়ই তাদের ব্যক্তিগত তহবিল ও সম্পত্তির উপর অধিকতর ভারসাম্যহীনতার সাথে সীমাহীন দায়িত্বের সম্মুখীন হয়।• একটি স্বতন্ত্র মালিকের একমাত্র সিদ্ধান্ত নেওয়া ক্ষমতা; অতএব, একটি অংশীদারিত্বের বিপরীতে কম দ্বন্দ্বের মুখোমুখি হওয়া উচিত যেখানে সমস্ত অংশীদারদের সিদ্ধান্ত নেওয়াতে পরামর্শ দেওয়া উচিত।• অংশীদারি একটি স্বতন্ত্র মালিকানা হিসাবে তার গঠন এবং বিভাজনে সহজ নয়, কিন্তু একটি অংশীদারিত্ব রাজধানীতে আরও অ্যাক্সেস এবং একটি একক মালিকের তুলনায় জ্ঞান এবং দক্ষতার একটি বড় পুল ভোগ করে।• ব্যবসার এই উভয় প্রকারের তাদের প্রতিদ্বন্দ্বী ও প্রতিদ্বন্দ্বিতা আছে, এবং একজন ব্যক্তি অবশ্যই একটি ব্যবসায়িক ব্যবস্থা হিসাবে নির্বাচন করার পূর্বে সতর্কতার সাথে বিশ্লেষণ করবেন।

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল ©সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

  • অংশীদারী ব্যবসায়ের তুলনা একমালিকানা ব্যবসায়ের অধিক জনপ্রি য়তার পক্ষে যৌক্তিকতা ব্যাখ্যা করতে হবে।

এক মালিকানা সংগঠন ব্যবসায় সংগঠনগুলাের মধ্যে প্রাচীনতম । তবে প্রাচীনতম ব্যবসায় হলেও বৃহদায়তন ব্যবসায়ের সাথে প্রতিযােগীতা করে এখনও সবচেয়ে জনপ্রিয় ব্যবসায় হিসেবে টিকে আছে । এক মালিকানা ব্যবসায় এমন কিছু বৈশিষ্ট্য ও সুবিধা আছে যে কারনে এ জাতীয় ব্যবসায় সকলের নিকট জনপ্রিয় । তবে যেসব Per ত বৈশিষ্ঠ্য এক মালিকানা ব্যবসায়কে বড় ধরনের ব্যবসায়গুলাের পাশাপাশি জনপ্রিয়তার সাথে টিকে থাকার সুযােগ করে দিয়েছে । 

সেগুলাে নিম্নে দেয়া হলাে : 

★সহজ গঠন : বৃহদায়তন ব্যবসায়ের মত এক মালিকানা ব্যবসায় গঠনে কোন আইনগত প্রক্রিয়া অবলম্বন করতে হয় না বা জটিলতা পােহাতে হয় না । সামান্য মুলধন নিয়ে যে কেউ এ ব্যবসায় গঠন করতে পারে । 

• স্বল্প মুলধন : এমন কিছু ব্যবসায় আছে যেগুলাের জন্য বেশী অর্থের প্রয়ােজন পড়ে না । সে জাতীয় ব্যবসায়ের জন্য এক মালিকানা ব্যবসায়ই সবচেয়ে বেশী উপযােগী বলে বিবেচিত হয় । যেমন পানের দোকান , সবজির দোকান প্রভৃতি ।

★স্বাধীনতা : এক মালিকানা ব্যবসায়ের ক্ষেত্রে মালিককে সিদ্ধান্ডু গ্রহন , নিয়ন্ত্রনে কারাে সহায়তা নিতে হয় না বলে পূর্ণ স্বাধীনতা ভােগ করে । যা অন্য ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে চিন্তাই করা যায় না।

★ঝুঁকি কম: যে সকল ব্যবসায় ঝুঁকি কম সেগুলিই সবাই পছন্দ করে । কেননা কম আয়ের লােকেরা সাধারনত ঝুঁকি এড়িয়ে চলতে চান । ফলে তারা মন ব্যবসায়ই বেশী পছন্দ করেন । 

★অবস্থানগত সুবিধা: বৃহদায়তন ব্যবসায় যে কোন স্থানে গড়ে তােলা যায় না , অথচ ক্রেতা বা ভােক্তারা শহরে বন্দরে গ্রামে – গঞ্জের কে আনাচে – কানাচে বিক্ষিপ্তভাবে বসবাস করে ।

★ ক্ষেত্রগত সুবিধা : এমন কিছু ব্যবসায় ক্ষেত্র লক্ষনীয় যেখানে বৃহদায়তন ব্যবসায় পরিচালনা করা সম্ভব হয় না বরং সেখানে ক্ষুদ্র একমালিকানা ব্যবসায়ই সবচেয়ে বেশি উপযােগী সংগঠন । যেমন নিত্যপ্রয়ােজনীয় পণ্য , সীমিত চাহিদার পণ্য , প্রত্যড় অঞ্চলের চাহিদার পণ্য , ভ্রাম্যমান ব্যবসায় , পচনশীন ব্যবসায় , প্রত্যক্ষ সেবাধর্মী ব্যবসায় , পেশাদারী ব্যবসায় প্রভৃতি ।

★ পরিবর্তনশীল : এমন অনেক পণ্য আছে যেগুলাের চাহিদা ক্রেতাদের পরিবর্তনশীল বুচি , আগ্রহ ও আয়ের উপর নির্ভরশীল । সেসকল পণ্যের ব্যবসায়ের ক্ষেত্রে একমালিকানা ব্যবসায় বেশী উপযুক্ত । যেমন : দর্জির দোকান ।

★সহজ পরিচালনা : বৃহদায়তন ব্যবসায়ের মত পরিচালনাগত আনুষ্ঠানিকতা পালন করতে হয়না বলে এই ব্যবসায় সহজে পরিচালনা করা । 

★দ্রুত সিদ্ধান্ত গ্রহন : এক মালিকানা ব্যবসায় মালিক নিজেই সিদ্ধান্ড গ্রহন করে বলে যে কোন কাজ দ্রত করা সম্ভবপর হয় । অথচ যৌথ মালিকানার বৃহদায়তন ব্যবসায়ে দ্রুত সিদ্ধান্ত গ্রহনের কোন সুযোগ নেই ।

★ ব্যক্তিগত সম্পর্ক : একমালিকানা ব্যবসায় মালিক নিজে ব্যবসায় পরিচালনায় অংশগ্রহন করে বলে মালিক , শ্রমিক ও ক্রেতার প্রত্যক্ষ সম্পর্ক গড়ে ওঠে । কিচ্ছু বৃহদায়তন ব্যবসায় সাধারনত এরূপ সম্পর্ক সৃষ্টির সুযােগ থাকে না ।

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল ©সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

এসাইনমেন্ট সম্পর্কে যে কোন প্রশ্ন আপনার মতামত জানাতে পারেন আমাদের কে YouTube : Like Page ইমেল : assignment@banglanewsexpress.com

অন্য সকল ক্লাস এর অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর সমূহ :-

  • ২০২১ সালের SSC / দাখিলা পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ২০২১ সালের HSC / আলিম পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ভোকেশনাল: ৯ম/১০ শ্রেণি পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • HSC (বিএম-ভোকে- ডিপ্লোমা-ইন-কমার্স) ১১শ ও ১২শ শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ২০২২ সালের ১০ম শ্রেণীর পরীক্ষার্থীদের SSC ও দাখিল এসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ২০২২ সালের ১১ম -১২ম শ্রেণীর পরীক্ষার্থীদের HSC ও Alim এসাইনমেন্ট উত্তর লিংক

৬ষ্ঠ শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ , ৭ম শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ ,

৮ম শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ , ৯ম শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় SSC এসাইনমেন্ট :

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় HSC এসাইনমেন্ট :

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *