২০২২ সালের দাখিল ভোকেশনাল পরীক্ষার্থীদের আত্মকর্মসংস্থান ও ব্যবসায় উদ্যোগ ৪র্থ সপ্তাহের এসাইনমেন্ট সমাধান ২০২১

২০২২ সালের দাখিল ভোকেশনাল পরীক্ষার্থীদের আত্মকর্মসংস্থান ও ব্যবসায় উদ্যোগ ৪র্থ সপ্তাহের এসাইনমেন্ট সমাধান ২০২১

Assignment এসএসসি পরীক্ষা প্রস্তুতি শিক্ষা
শেয়ার করুন:
শ্রেণি: ১০ম ভোকেশনাল দাখিল 2022 বিষয়: আত্মকর্মসংস্থান ও ব্যবসায় উদ্যোগ এসাইনমেন্টেরের উত্তর 2021
এসাইনমেন্টের ক্রমিক নংঃ 01 বিষয় কোডঃ 1928
বিভাগ: ভোকেশনাল শাখা
বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস// https://www.banglanewsexpress.com/

এসাইনমেন্ট শিরোনামঃ জীবিকা অর্জনের লক্ষ্যে ভােকেশনাল বা বৃত্তিমূলক শিক্ষার গুরুত্ব নিরুপণ

শিখনফল/বিষয়বস্তু :

  • ভােকেশন/বৃত্তি পেশা বিষয়ক মৌলিক ধারণা 
  • ক্যারিয়ার শিক্ষার প্রয়ােজনীয়তা 
  • স্বপ্নের পেশা নির্ধারণে সমস্যা চিহ্নিতকরণ ও সমাধানের উপায় নির্ধারণ 

নির্দেশনা (সংকেত/ ধাপ/ পরিধি): 

  • ভােকেশনাল শিক্ষার ধারণা দিতে হবে,
  • ক্যারিয়ার শিক্ষার প্রয়ােজনীয়তা বর্ণনা করতে হবে,
  • জীবিকা অর্জনে ভােকেশনাল বা বৃত্তিমূলক শিক্ষার গুরুত্ব ব্যাখ্যা করতে হবে,

এসাইনমেন্ট সম্পর্কে প্রশ্ন ও মতামত জানাতে পারেন আমাদের কে Google News <>YouTube : Like Page ইমেল : assignment@banglanewsexpress.com

  • ভােকেশনাল শিক্ষার ধারণা দিতে হবে,

ভােকেশনাল বা কারিগরি শিক্ষা স্বাস্থ্যসেবা, ব্যাংকিং ও ফিনান্স, কম্পিউটার, প্রযুক্তি, ব্যবসা, পর্যটন ইত্যাদির মতাে অনেক কর্মজীবনের ক্ষেত্রে বিভিন্ন কোর্সের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের দেওয়া একটি দক্ষতা ভিত্তিক প্রশিক্ষণ।

যা শিক্ষার্থীদের জ্ঞান ও দক্ষতা বৃদ্ধি করে। ভােকেশনাল শিক্ষা হচ্ছে কারিগরি শিক্ষা আর কারিগরি শিক্ষা মানেই হচ্ছে হাতে কলমে শিক্ষা। ভােকেশনাল বা কারিগরি শিক্ষা এমন একটি শিক্ষা যা মানুষকে প্রযুক্তিবিদ |

হিসাবে বা বিভিন্ন চাকরিতে যেমন ব্যবসায়ী বা কারিগর হিসাবে কাজ করতে প্রস্তুত করে। বৃত্তিমূলক শিক্ষাকে মাঝে মাঝে ক্যারিয়ার এবং প্রযুক্তিগত শিক্ষা হিসাবে উল্লেখ করা হয়।

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল ©সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

  • ক্যারিয়ার শিক্ষার প্রয়ােজনীয়তা বর্ণনা করতে হবে,

ক্যারিয়ার শিক্ষার প্রয়ােজনীয়তা । ক্যারিয়ার হলাে সব ধরনের কাজ , পেশা , চাকরি বা জীবন অভিজ্ঞতার সমন্বিত রূপ , যা একজন ব্যক্তি তার সারা জীবনে অর্জন করে । প্রত্যেক মানুষই আয় একটি সুন্দর ও সফল ক্যারিয়ার । উন্নত ক্যারিয়ার গঠনের জন্য ক্যারিয়ার শিক্ষার প্রয়ােজনীয়তা অপরিসীম ।

ক্যারিয়ারকে সুন্দর ও সার্থকরূপে গড়ে তুলতে হলে । রিয়ান স কে সচেতন হয়ে সফলতার দিকে এগিয়ে যেতে পারি ।

১. বি এহন খার অনুসরণ ।

  1. শেখার জন্য অনুপ্রেরণা।
    ৩. সমাজজীবনে কর্ম ও পেশার চহিলা ।
    ৪.পরিবর্তনশীল কাজের ধরন সম্পর্কে ধারণা ।
    ৫. উচ্চতর জ্ঞান ও দক্ষতার বিকাশ ।
    ৬. পরিকল্পনা করতে উদ্ভুদ্ধকরণ ।
    ৭. সংবেদনশীলতা তৈরি ।

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল ©সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

  • জীবিকা অর্জনে ভােকেশনাল বা বৃত্তিমূলক শিক্ষার গুরুত্ব ব্যাখ্যা করতে হবে,

শিক্ষাবিদ হার্টশোন-এর মতে, বৃত্তিমুখী শিক্ষা হল এমন এক ধরনের প্রয়োজনীয় শিক্ষা যার অভাবে শিক্ষার্থীকে সারাজীবন দুঃখ ভােগ করতে হয়, তাই এই শিক্ষার উপযোগিতা বা প্রয়োজন গুলি হল—
(১) শিক্ষার্থীকে স্বনির্ভর হতে সাহায্য করা: বৃত্তিমুখী শিক্ষা শিক্ষার্থীকে একটি নির্দিষ্ট বিষয়ে হাতে কলমে কাজ করার সুযোগ করে দেয়, যার ফলে সে ওই বিষয়ে অভিজ্ঞ হয়ে ওঠে। ফলে ভবিষ্যৎ জীবনে সে ওই বিষয়ে স্বনিযুক্ত হয়ে জীবিকা নির্বাহ করতে পারে।
(২) শ্রমের প্রতি উৎসাহ প্রদান: বৃত্তিমুখী শিক্ষা শিক্ষার্থীদের শ্রমের প্রতি মর্যাদা উপলব্ধি করতে সাহায্য করে। সমাজের বিভিন্ন মানুষের সঙ্গে অভিযােজনে এবং নৈতিক চরিত্র গঠনেও এই শিক্ষার বিশেষ ভূমিকা রয়েছে।
(৩) শিক্ষার প্রতি ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি গঠন: পুথিগত, নীরস সাধারণ শিক্ষা শিক্ষার্থীদের মানসিক ক্লান্তি এনে দেয়। বৃত্তিমুখী ও কারিগরি শিক্ষায় ব্যবহারিক ও হাতে কলমে কাজ করার সুযোগ থাকায় তা সহজে একঘেয়ে হয়ে যায় না। এর ফলে শিক্ষার প্রতি শিক্ষার্থীদের ইতিবাচক মনোভাব গড়ে ওঠে।
(৪) শিক্ষার্থীর চাহিদার পরিতৃপ্তি: এই শিক্ষা ব্যক্তিকে নিজের চাহিদা পরিতৃপ্ত করে। প্রত্যেকটি মানুষ ভবিষ্যতে কী হতে চায়, সেইমতাে সে প্রশিক্ষণ নেয়। ফলে তার চাহিদা পরিতৃপ্ত হয় এবং পেশায় সফলতা পায়।
(৫) বিশেষজ্ঞ রূপে শিক্ষার্থী গড়ে তোলা: এই শিক্ষা সমাজকে বিশেষজ্ঞ ব্যক্তি সরবরাহ করে। আমাদের সমাজে বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিশেষজ্ঞ ব্যক্তি প্রয়োজন। যেমন – কৃষিকাজ, শিল্প, শিক্ষা, ব্যবসা বাণিজ্য ইত্যাদি ক্ষেত্রে বিশেষজ্ঞ ব্যক্তি সরবরাহ করে।
(৬) ব্যতিক্রমী শিক্ষার্থীদের জীবনে প্রতিষ্ঠা লাভ: ব্যতিক্রমী বা প্রতিবন্ধী ছেলেমেয়েদের জন্য বৃত্তিমূলক শিক্ষা বিশেষভাবে প্রয়োজনীয়। তাদের মধ্যে অনেকেই সাধারণ ধর্মীয় শিক্ষার খুব একটা পারদর্শিতা অর্জন করতে পারে না। এর পরিবর্তে কোন বিশেষ বৃত্তিমূলক শিক্ষা নিলে হাতেকলমে তারা কিছু উৎপাদন করতে পারে এবং অর্থ উপার্জনে সক্ষম হয়ে ওঠে।
(৭) কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি: বর্তমানে অত্যধিক জনসংখ্যা বৃদ্ধি এবং বিজ্ঞান ও শিল্পের দ্রুত উন্নয়নের ফলে সাধারণধর্মী শিক্ষায় শিক্ষিত ব্যক্তিরা অধিকাংশ ক্ষেত্রে রুজিরােজগারের দিক থেকে পিছিয়ে পড়েছে। তাদের মধ্যে প্রতিযোগিতা অনেক বেশি। অন্যদিকে বৃত্তিমুখী ও কারিগরি শিক্ষায় শিক্ষিত ছাত্রছাত্রীরা নিজেরাই নিজেদের কর্মসংস্থানে সক্ষম।
(৮) জাতির উন্নয়নে সহায়তা: বৃত্তিমুখী শিক্ষা জাতির উন্নয়নে সাহায্য করে। দেশ ও জাতির উন্নয়নে শিল্পের প্রয়োজন অত্যন্ত বেশি। তাই প্রয়োজন দক্ষ কারিগর। বৃত্তিমূলক ও কারিগরি শিক্ষার মাধ্যমেই দক্ষ কারিগর তৈরি করা সম্ভব।
(৯) ব্যবহারিক জ্ঞান অর্জনে সহায়তা: বৃত্তিমুখী শিক্ষা ব্যক্তির কর্মদক্ষতা তা বৃদ্ধিতে ও ব্যবহারিক জ্ঞান অর্জনে সহায়তা করে, যে তাকে যথার্থ বৃত্তি নির্বাচনে সহায়তা করে।
(১০) মানবসম্পদ উন্নয়নকারী শিক্ষা: বৃত্তিমুখী শিক্ষা দক্ষ ব্যক্তি তৈরি করে, যা একসময় মানবসম্পদে পরিণত হয়, অর্থাৎ এটি একটি মানবসম্পদ তৈরির শিক্ষা।

কর্মমুখী শিক্ষা হচ্ছে জীবিকা অর্জনের জন্যে সম্ভাব্য পেশাগত কর্মের সঙ্গে সম্পর্কিত শিক্ষা। মানুষের জীবনযাত্রার ধরন ও বৈশিষ্ট্যের ব্যাপক পরিবর্তন এবং জীবন ও জীবিকার ক্ষেত্রে ক্রমবর্ধমান প্রতিযোগিতার ফলে কর্মমূখী শিক্ষার গুরুত্ব ও চাহিদা বাড়ছে। এককালে অফুরন্ত প্রাকৃতিক সম্পদের মধ্যে বাস করে বাংলাদেশের মানুষ সুখে জীবন কাটিয়েছে। বৃত্তি বা পেশাগত শিক্ষা নিয়ে তাকে ভাবতে হয় নি। বংশানুক্রমিক পেশা অবলম্বন করেই জীবিকা নির্বাহ করেছে। কিন্তু এখন সে দিন আর নেই। জনসংখ্যা এখন বেড়েছে বিপুলভাবে। তার প্রচন্ড চাপ পড়েছে সীমিত সম্পদের ওপর। ফলে বৈজ্ঞানিক ও কারিগরি অগ্রগতিকে কাজে লাগিয়ে আমাদের দেশে নব নব কর্মসংস্থান ও অগ্রগতির পথে অগ্রসর না হলে জাতীয় জীবনে নেমে আসবে অনিবার্য সংকট।

আর তার জন্যে দরকার নিত্যনতুন কর্ম, বৃত্তি ও পেশার সঙ্গে জড়িত কর্মমুখী শিক্ষা। কিন্তু দুঃখের বিষয় দেশে এখনও সেই ইংরেজ আমলে প্রবর্তিত প্রচলিত শিক্ষা পদ্ধতিতে কেরানি তৈরির উপযোগী সাধারণ শিক্ষার প্রাধান্যই রয়ে গেছে। ফলে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় ডিঙিয়ে যারা বের হচ্ছে কর্মমুখী শিক্ষায় শিক্ষিত না হওয়ায় তাদের ব্যাপক অংশেই বেকারত্বের অভিশাপ বয়ে বেড়াচ্ছে এবং প্রচন্ড হতাশায় জীবনের ওপর আস্থা হারাচ্ছে।

 এই কারণে যতই দিন যাচ্ছে কর্মমুখী বা বৃত্তিমূলক শিক্ষার গুরুত্ব সবাই উপলব্ধি করছে। বিশ শতকের শেষ দশকে আমাদের দেশে কর্মমুখী শিক্ষার গুরুত্ব বিশেষভাবে উপলব্ধি করা গেছে। এটা এখন স্পষ্ট যে, বর্তমান বাস্তবতায় কর্মমুখী বৃত্তিমূলক শিক্ষার প্রসার অপরিহার্য হয়ে উঠেছে। তা দেশের অগ্রগতি সাধনে যেমন কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারে তেমনি দেশে এবং দেশের বাইরে কর্মসংস্থানের মাধ্যমে বেকারত্ব মোচনেও ফলপ্রসূ অবদান রাখতে সক্ষম। এতে বহু পরিবার অশান্তির হাত থেকে বাঁচতে পারে। এই শিক্ষার প্রসার ঘটলে সাধারণ ও উচ্চ শিক্ষার ক্ষেত্রে অনভিপ্রেত ভিড় হ্রাস পাবে। 

তাছাড়া কর্মমুখী শিক্ষা স্বকর্ম সংস্থানের নানা সুযোগ সৃষ্টি করতে পারে এবং তা ফলত দেশের অর্থনৈতিক স্থিতিশীলতা রক্ষায় ও দারিদ্র্য দূরীকরণে কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারে। কর্মমুখী শিক্ষা কেবল নতুন নতুন কর্মস্থানের সুযোগ তৈরি করে না, কৃষি, শিল্প ও বাণিজ্যের নানা ক্ষেত্রে ইতিবাচক ভূমিকা রেখে দেশের উন্নয়ন ও অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি নিশ্চিত করতে পারে।

 সেদিক থেকে কর্মমুখী শিক্ষা জাতির অর্থনৈতিক বুনিয়াদ রচনায়ও ফলপ্রসূ ভূমিকা পালন করতে পারে। কর্মমুখী শিক্ষা স্বাধীন পেশা গ্রহণে ব্যক্তির আস্থা গড়ে তোলে, তাকে স্বাবলম্বী করে তোলে এবং এভাবে বিপুল সংখ্যক বেকারত্বের হাত থেকে জাতিকে বাঁচায় এবং পরমুখাপেক্ষী অবস্থায় অভিশাপ থেকে রক্ষা করে। বিজ্ঞানের বিস্ময়কর উন্নতির যুগে কর্মমুখী শিক্ষা তাই আমাদের দেশের মতো উন্নয়নশীল দেশেও অনিবার্যভাবে প্রয়োজনীয় হয়ে পড়েছে।

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল ©সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

সবার আগে Assignment আপডেট পেতে Follower ক্লিক করুন

এসাইনমেন্ট সম্পর্কে প্রশ্ন ও মতামত জানাতে পারেন আমাদের কে Google News <>YouTube : Like Page ইমেল : assignment@banglanewsexpress.com

অন্য সকল ক্লাস এর অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর সমূহ :-

  • ২০২১ সালের SSC / দাখিলা পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ২০২১ সালের HSC / আলিম পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ভোকেশনাল: ৯ম/১০ শ্রেণি পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ২০২২ সালের ভোকেশনাল ও দাখিল (১০ম শ্রেণির) অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • HSC (বিএম-ভোকে- ডিপ্লোমা-ইন-কমার্স) ১১শ ও ১২শ শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ২০২২ সালের ১০ম শ্রেণীর পরীক্ষার্থীদের SSC ও দাখিল এসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ২০২২ সালের ১১ম -১২ম শ্রেণীর পরীক্ষার্থীদের HSC ও Alim এসাইনমেন্ট উত্তর লিংক

৬ষ্ঠ শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ , ৭ম শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ ,

৮ম শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ , ৯ম শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১

বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস// https://www.banglanewsexpress.com/

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় SSC এসাইনমেন্ট :

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় HSC এসাইনমেন্ট :

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *