“সকল লেনদেনই ঘটনা, কিন্তু সকল ঘটনা লেনদেন নয়” উদাহরন দাও।

“সকল লেনদেনই ঘটনা, কিন্তু সকল ঘটনা লেনদেন নয়” উদাহরন দাও।

এইচ এস সি পরীক্ষা প্রস্তুতি শিক্ষা
শেয়ার করুন:


১. “সকল লেনদেনই ঘটনা, কিন্তু সকল ঘটনা লেনদেন নয়” উদাহরন দাও।

উত্তর:

সকল লেনদেন ঘটনা কিন্তু সকল ঘটনা লেনদেন নয়

সাধারণত কোন কিছু সঙ্ঘঠিত হওয়াকে ঘটনা বলে । যেমনঃ স্কুলে যাওয়া, বাজার করা, পরীক্ষায় পাশ করা, মাল ক্রয়ের ফরমায়েশ প্রদান, পণ্য ক্রয়, পণ্য বিক্রয় ভাড়া প্রদান, বিয়ের খরচ ইত্যাদি । ঘটনা আর্থিক হতে পারে আবার না ও হতে পারে ।

অন্যদিকে, লেনদেন হল হিসাববিজ্ঞানে কোন ব্যবসায়ে অর্থ ও অর্থের মাপকাঠিতে পরিমাপযোগ্য সকল ধরনের অর্থনৈতিক কার্যকলাপ বা ঘটনাকে বুঝায় । যেমনঃ রাফসানকে ১,০০০ টাকা প্রদান করা হল, কর্মচারীদের ৬,০০০ টাকা বেতন প্রদান করা হল, বিক্রয় করা হল ৫,০০০ টাকা ইত্যাদি । তাই বলা যায় যেসকল ঘটনা আর্থিক শুধু সেগুলোকে লেনদেন বলে ।

ব্যবসায় জগতে এরকম বিভিন্ন ঘটনার উদ্ভব হয় । কিন্তু সমস্ত ঘটনাকে হিসাবের বহিতে লিপিবদ্ধ করা হয় না কারণ সকল ঘটনা লেনদেন নয় । শুধুমাত্র অর্থের অংকে পরিমাপযোগ্য ঘটনা যেটি ব্যবসায়ের আর্থিক অবস্থার পরিবর্তন করে সেই ঘটনাকেই লেনদেন হিসেবে হিসাবের বহিতে লিপিবদ্ধ করা হয় ।

আবার অদৃশ্য ভাবে কোন আর্থিক ঘটনা ঘটে থাকলে তাহাও লেনদেন হতে পারে। যেমন: সম্পদ ব্যবহারের ফলে যে মূল্য হ্রাস হয় এটি ও একটি লেনদেন।

সুতরাং বলা যায়, সকল লেনদেন ঘটনা কিন্তু সকল ঘটনা লেনদেন নয় ।


২. দুরতফা দাখিলা পদ্ধতি মূলনীতি ব্যাখ্যা কর।

উত্তর:

দুতরফা দাখিলা পদ্ধতি
ইতালির গণিতবিদ লুকা প্যাসিওলি (Luca Pacioli) ১৪৯৪ খ্রিষ্টাব্দে দুতরফা দাখিলা পদ্ধতি বর্ণনা করেন। এটি হিসাবরক্ষণের একমাত্র বিজ্ঞানসম্মত পদ্ধতি। এ পদ্ধতিতে প্রতিটি লেনদেনের ২টি পক্ষ জড়িত থাকে -দাতা (creditor) ও গ্রহীতা (Debtor)। এ পদ্ধতিতে লেনদেনের সাথে জড়িত পক্ষ দুটি বিচার করে সমপরিমাণ টাকা দ্বারা ডেবিট ক্রেডিট করা হয়।

মূলনীতি ও বৈশিষ্ট্যঃ
৫টি মূলনীতি ও বৈশিষ্ট্য রয়েছে।
১.    দ্বৈত স্বত্তা
২.    দাতা ও গ্রহীতা
৩.    ডেবিট ও ক্রেডিট করা
৪.    সমান অঙ্কেও আদান-প্রদান
৫.    সামগ্রিক ফলাফল।

দুতরফা দাখিলা পদ্ধতিতে রক্ষিত হিসাবের বই
দুতরফা দাখিলা পদ্ধতিতে ২ ধরনের হিসাবের বই রক্ষিত হয়।
১.    জাবেদা (প্রাথমিক হিসাবের বই)
২.    খতিয়ান ( হিসাবের পাকা বই)

হিসাবচক্রঃ
১০টি ধাপ রয়েছে
১.    লেনদেন শনাক্তকরণ
২.    লেনদেন বিশ্লেষণ
৩.    জাবেদা ভুক্তকরণ
৪.    খতিয়ানে স্থানান্তর
৫.    রেওয়ামিল প্রস্তুতকরণ
৬.    সমন্বয় দাখিলা
৭.    কার্যপত্র প্রস্তুত
৮.    আর্থিক বিবরণী
৯.    সমাপনী দাখিলা
১০.    হিসাব পরবর্তী রেওয়ামিল

H.S.C

শেয়ার করুন:

3 thoughts on ““সকল লেনদেনই ঘটনা, কিন্তু সকল ঘটনা লেনদেন নয়” উদাহরন দাও।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *