মানব শরীরের ভিতরের অংশ পরীক্ষা করার জন্য এক্স-রে ব্যবহার করা হলেও মানব ভ্রনের ক্ষেত্রে আলট্রাসনােগ্রাফি ব্যবহার করার করাণ ব্যাখ্যা কর।

মানব শরীরের ভিতরের অংশ পরীক্ষা করার জন্য এক্স-রে ব্যবহার করা হলেও মানব ভ্রনের ক্ষেত্রে আলট্রাসনােগ্রাফি ব্যবহার করার করাণ ব্যাখ্যা কর।

এসএসসি পরীক্ষা প্রস্তুতি শিক্ষা
শেয়ার করুন:
শ্রেণি: ১০ম ভোকেশনাল -2021 বিষয়: পদার্থ বিজ্ঞান (২) এসাইনমেন্টেরের উত্তর 2021
এসাইনমেন্টের ক্রমিক নংঃ 08 বিষয় কোডঃ 1925
বিভাগ: ভোকেশনাল শাখা
বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস// https://www.banglanewsexpress.com/

এসাইনমেন্ট শিরোনামঃমানব শরীরের ভিতরের অংশ পরীক্ষা করার জন্য এক্স-রে ব্যবহার করা হলেও মানব ভ্রনের ক্ষেত্রে আলট্রাসনােগ্রাফি ব্যবহার করার করাণ ব্যাখ্যা কর।

শিখনফল/বিষয়বস্তু :

  • চিকিৎসা বিজ্ঞানে রােগ নির্ণয়ে ব্যবহৃত যন্ত্রপাতিতে পদার্থবিজ্ঞানের। ধারণা ও তত্ত্বের ব্যবহার করতে পারবে।,
  • আধুনিক প্রযুক্তি এবং যন্ত্রপাতি ব্যবহারের ফলে সৃষ্ট স্বাস্থ্য সমস্যা এবং প্রতিরােধের কৌশল ব্যাখ্যা করতে পারবে,

নির্দেশনা (সংকেত/ ধাপ/ পরিধি): 

  • এক্স-রে,
  • আলট্রাসনােগ্রাফি,
  • এক্স-রে ও আলট্রাসনােগ্রাফির পার্থক্য,

এসাইনমেন্ট সম্পর্কে প্রশ্ন ও মতামত জানাতে পারেন আমাদের কে Google News <>YouTube : Like Page ইমেল : assignment@banglanewsexpress.com

  • এক্স-রে,

এক্সরে হলো এক ধরনের তাড়িত চৌম্বক বিকিরণযা দ্রুতগতি সম্পন্ন ইলেকট্রন দ্বারা কোনো ধাতব পাতকে আঘাত করে উৎপন্ন করা যায়।
এক্স-রে আবিষ্কার করেন উইলিয়াম রন্টজেন ১৮৯৫ সালে এবং এক্স-রে আবিষ্কারের জন্য ১৯০১ সালে পদার্থবিজ্ঞানে প্রথম নোবেল পুরস্কার লাভ করেন।

এক্সরের ধর্মগুলি
এক্স-রের ধর্মগুলি নিচে তুলে ধরা হলো:

  • এ রশ্মি সরলরেখায় গমন করে।
  • এক্স-রে তাড়িতচৌম্বক তরঙ্গ। তাড়িতক্ষেত্র বা চৌম্বকক্ষেত্র দ্বারা এটি বিচ্যুত হয় না।
  • এর তরঙ্গদৈর্ঘ্য খুব ছোট, প্রায় 10-10m এর কাছাকাছি।
  • এটি আধান নিরপেক্ষ।

এক্সরের ব্যবহারএক্সরে এর ব্যবহারগুলো নিচে তুলে ধরা হলো :

  • মুখমণ্ডলের যে কোনো ধরনের রোগ নির্ণয়ে এক্সরের এর ব্যবহার অনেক যেমন–দাঁতের গোড়ায় ঘা এবং ক্ষয় নির্ণয়ে এক্সরে ব্যবহৃত হয়।
  • পেটের এক্সরের সাহায্যে অন্ত্রের প্রতিবন্ধকতা সনাক্ত করা যায়।
  • এক্সরের সাহায্যে পিত্তথলি ও কিডনির পাথরকে সনাক্ত করা যায়।
  • বুকের এক্সরের সাহায্যে ফুসফুসের রোগ যেমন– নিউমোনিয়া, ফুসফুসের ক্যান্সার ইত্যাদি নির্ণয় করা যায়।
  • চিকিৎসার কাজেও এক্সরে ব্যবহার করা যায়। এটি ক্যান্সার কোষকে মেরে ফেলতে পারে

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল ©সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

  • আলট্রাসনােগ্রাফি,

শব্দতরঙ্গের মাধ্যমে শরীরের অভ্যন্তরের ছবি পর্দায় দৃশ্যমান করার পদ্ধতির নাম আলট্রাসনোগ্রাফি। পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া না থাকায় চিকিৎসা বিজ্ঞানে আলট্রাসনোগ্রামের ব্যবহার দিন দিন বৃদ্ধি পেয়েছে। রোগ নির্ণয়ে গ্রহণযোগ্য ও জনপ্রিয় আলট্রাসনোগ্রাম পরীক্ষা। এক কথায় বলা যায়, আলট্রাসাউন্ড জরুরি রোগ শনাক্তের ক্ষেত্রে গ্রহণযোগ্য উপায়।

গবফরপধষ টষঃৎধংড়ঁহফ দুভাবে ব্যবহার হয় ১. রোগ নির্ণয় ও ২. চিকিৎসায় আলট্রাসনোগ্রাফি।

 শরীরের যেকোনো শিরা ও ধমনির রোগ নির্ণয়ে ডুপ্লেক্স আলট্রাসাউন্ড ব্যবহার হয়।

 ইকো-কার্ডিওগ্রাফি একজন কার্ডিওলজিস্টের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ পরীক্ষা। এর মাধ্যমে সহজেই হার্টের কোনো অংশ ডাইলেটেশন, ভেন্ট্রিকেল ও ভাল্ভ সঠিকভাবে কাজ করছে কি না বোঝা যায়। এর জন্যও ব্যবহার হয় আলট্রাসনোগ্রাফি।

 পেটের পরীক্ষায় আলট্রাসনোগ্রাফির ব্যবহার প্রায় সবারই জানা। যেকোনো ধরনের পেটের সমস্যায় চিকিৎসকরা সহজেই আলট্রা করে জেনে নেন অগ্ন্যাশয়, লিভার, পিত্তথলি, পিত্তনালি, কিডনি, মূত্রথলি, প্লিহার অবস্থান ও রোগ সম্পর্কে। তা ছাড়া অ্যাপেন্ডিসাইটিসও নির্ণয় করতেও সহজ হয়। এ ছাড়া Medical Ultrasound কিছু কিছু অপারেশনে আলট্রাসাউন্ড ব্যবহার করছে।

 পেলভিক অর্গান ও মূত্রথলি বা নালির রোগ, যৌনাঙ্গের অস্বাভাবিকতা ইত্যাদি জানতে আলট্রাসনোগ্রাফি দরকার পড়ে। মহিলাদের পেলভিক অর্গান যেমন Uterus, Ovaries, Fallopian, Tubes আলট্রাসনোগ্রাফির মাধ্যমে ভালোভাবে দেখা যায়।

০০০ গর্ভাবস্থায় মায়ের পেটের বাচ্চার বৃদ্ধি ও অবস্থান, বাচ্চার কোনো অস্বাভাবিকতা আছে কি না সহজেই আলট্রাসনোগ্রাফির মাধ্যমে বোঝা যায়।

 গর্ভাবস্থার শুরুতেই অর্থাৎ মাসিক বন্ধের দুই মাস বা ছয় থেকে আট সপ্তাহের মধ্যে আলট্রাসনোগ্রাফি করানো উচিত। টেস্টটিউব বেবির ক্ষেত্রে ভ্রƒণ প্রতিস্থাপনের চার সপ্তাহ পর। আলট্রাসনোগ্রাফির মাধ্যমে অনেক তথ্য জানা যায়। যেমন জরায়ুর অভ্যন্তরে সঠিক স্থানে হৃৎস্পন্দন ও গর্ভসঞ্চার হয়েছে কি না নিশ্চিত করে। ভ্রƒণের সংখ্যা নির্ণয় করে। সঠিকভাবে প্রসবের তারিখ নির্ণয় করে। বিশেষত যাদের অনিয়মিত মাসিক হয়। এক্টোপিক প্রেগনেন্সি বা অস্বাভাবিক স্থানে গর্ভসঞ্চার নির্ণয় করে, এ ধরনের গর্ভাবস্থা মারাত্মক বিপদ ডেকে আনতে পারে।

 গর্ভপাতের পূর্বাভাস প্রদান করে। গর্ভথলির আকার, আয়তন ও ভ্রুণের হৃৎস্পন্দনের অসামঞ্জস্য নির্ণয় করে। জরায়ু বা ডিম্বাশয়ে কোনো গঠনগত ত্রুটি বা টিউমার আছে কি না তাও জানা যায়। যেহেতু আলট্রাসনোগ্রাফিতে এক্স-রে বা সিটিস্ক্যানের মতো কোনো ক্ষতিকর তেজস্ক্রিয় রশ্মি ব্যবহার করা হয় না। শুধু শব্দতরঙ্গ ব্যবহার করা হয়, তাই কোনো ক্ষতিকর প্রভাব নেই। তবে আলট্রাসনোগ্রাফির মাধ্যমে সঠিক তথ্য পাওয়ার জন্য ভালো মানের মেশিনের প্রয়োজন। পাশাপাশি যিনি আলট্রাসনোগ্রাফি পরীক্ষা করাবেন, তার দক্ষতা ও অভিজ্ঞতাও সঠিক রোগ নির্ণয়ের জন্য গুরুত্বপূর্ণ।

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল ©সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

  • এক্স-রে ও আলট্রাসনােগ্রাফির পার্থক্য,

এক্স-রে এবং আল্ট্রাসাউন্ড উভয়ই বহু শিল্প, বৈজ্ঞানিক এবং চিকিত্সা অ্যাপ্লিকেশনগুলিতে ব্যবহৃত হয়। ওষুধে, এক্স-রে এবং আল্ট্রাসাউন্ড উভয়ই শরীরে কিছু ব্যাধি সনাক্ত করতে ব্যবহৃত হয়। যাইহোক, এক্স-রে এবং আল্ট্রাসাউন্ড খুব আলাদা। এক্স-রে এবং আল্ট্রাসাউন্ডের মধ্যে প্রধান পার্থক্যটি হ’ল এক্স-রে ইলেক্ট্রোম্যাগনেটিক ট্রান্সভার্স ওয়েভ যেখানে আল্ট্রাসাউন্ডগুলি যান্ত্রিক অনুদৈর্ঘ্য শব্দ তরঙ্গ। এক্স- রেগুলি একটি মাঝারিতে পরমাণুগুলিকে আয়ন করতে পারে যেখানে আল্ট্রাসাউন্ডগুলি পারে না। এক্স-রে এবং আল্ট্রাসাউন্ডের মধ্যে এমন কয়েক ডজন পার্থক্য রয়েছে। সেই পার্থক্যের কয়েকটি নিয়ে আলোচনা হয়।

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল ©সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

সবার আগে Assignment আপডেট পেতে Follower ক্লিক করুন

এসাইনমেন্ট সম্পর্কে প্রশ্ন ও মতামত জানাতে পারেন আমাদের কে Google News <>YouTube : Like Page ইমেল : assignment@banglanewsexpress.com

অন্য সকল ক্লাস এর অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর সমূহ :-

  • ২০২১ সালের SSC / দাখিলা পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ২০২১ সালের HSC / আলিম পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ভোকেশনাল: ৯ম/১০ শ্রেণি পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ২০২২ সালের ভোকেশনাল ও দাখিল (১০ম শ্রেণির) অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • HSC (বিএম-ভোকে- ডিপ্লোমা-ইন-কমার্স) ১১শ ও ১২শ শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ২০২২ সালের ১০ম শ্রেণীর পরীক্ষার্থীদের SSC ও দাখিল এসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ২০২২ সালের ১১ম -১২ম শ্রেণীর পরীক্ষার্থীদের HSC ও Alim এসাইনমেন্ট উত্তর লিংক

৬ষ্ঠ শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ , ৭ম শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ ,

৮ম শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ , ৯ম শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১

বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস// https://www.banglanewsexpress.com/

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় SSC এসাইনমেন্ট :

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় HSC এসাইনমেন্ট :

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *