‘বাংলাদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে একমালিকানা ব্যবসায় দাপটের সহিত টিকে আছে’- বক্তব্যটির যৌক্তিকতা ব্যাখ্যা কর

‘বাংলাদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে একমালিকানা ব্যবসায় দাপটের সহিত টিকে আছে’- বক্তব্যটির যৌক্তিকতা ব্যাখ্যা কর

এইচ এস সি পরীক্ষা প্রস্তুতি শিক্ষা
শেয়ার করুন:

অ্যাসাইনমেন্ট : ‘বাংলাদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে একমালিকানা ব্যবসায় দাপটের সহিত টিকে আছে’- বক্তব্যটির যৌক্তিকতা ব্যাখ্যা কর।

শিখনফল/বিষয়বস্তু :

  • একমালিকানা ব্যবসায়ের ধারণা
  • একমালিকানা ব্যবসায়ের ক্ষেত্র
  • একমালিকানা ব্যবসায়ের ধরণ
  • একমালিকানা ব্যবসায় টিকে থাকার যৌক্তিকতা 

নির্দেশনা (সংকেত/ ধাপ/ পরিধি): 

  • একমালিকানা ব্যবসায়ের ধারণা ব্যাখ্যা করতে হবে
  • একমালিকানা ব্যবসায়ের ক্ষেত্রসমূহ বর্ণনা করতে হবে
  • একমালিকানা ব্যবসায় টিকে থাকার পক্ষে যৌক্তিকতা বিশ্লেষণ করতে হবে
  • এক মালিকানা ব্যবসায়ের ধরণগুলো বর্ণনা করতে হবে

এসাইনমেন্ট সম্পর্কে যে কোন প্রশ্ন আপনার মতামত জানাতে পারেন আমাদের কে YouTube : Like Page ইমেল : assignment@banglanewsexpress.com

  • একমালিকানা ব্যবসায়ের ধারণা ব্যাখ্যা করতে হবে

যেব্যবসায় একক মালিকানায় গঠিত, পরিচালিত ও নিয়ন্ত্রিত হয় তাকে একমালিকানা ব্যবসায় বলে। অর্থাৎ একমালিকানা ব্যবসায়ে একজন মাত্র মালিক থাকে এবং সে নিজে ব্যবসায় পরিচালনা ও নিয়ন্ত্রণ করে থাকে।

একমালিকানা ব্যবসায় সবচেয়ে প্রচীনতম ব্যবসায় সংগঠন। এ ব্যবসায়টি খুব সহজেই গঠন করা যায়। যে কেউ ইচ্ছা করলে এ ব্যবসায় গঠন করে সে তার কর্মসংস্থান করতে পারে। স্বল্প পুঁজি বা মূলধন নিয়ে যে কেউ একমালিকানা ব্যবসায় গঠন করতে পারে।

একমালিকানা ব্যবসায়ের মালিক স্বাধীনভাবে ব্যবসায় পরিচালনা করতে পারে। একমালিকানা ব্যবসায়ের মালিক একজন থাকায় দ্রুত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে ব্যবসায় পরিচালনা করা যায়। তাছাড়া, এক মালিকানা ব্যবসায়ে লাভ-লোকসান যেটিই হোক মালিক তা একা ভোগ করেন।

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল ©সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

  • একমালিকানা ব্যবসায়ের ক্ষেত্রসমূহ বর্ণনা করতে হবে

একজন মালিক দ্বারা গঠিত ও পরিচালিত ব্যবসায়কে এক মালিকানা ব্যবসায় বলে। সহজ গঠন, পরিচালনাগত ও ক্ষেত্রগত উপযােগিতার কারণে সবচেয়ে প্রাচীন এ ব্যবসায় সবার নিকট অত্যন্দু জনপ্রিয়। 

নিম্নে এক মালিকানা ব্যবসায়ের উপযুক্ত ক্ষেত্রগুলাে আলােকপাত করা হলাে ঃ

 • স্বল্প পুঁজির ব্যবসায় ঃ যে সকল ব্যবসায়ে অত্যড় স্বল্প পুঁজির প্রয়ােজন পড়ে সেখানে এক মালিকানা ব্যবসায়ই | সবচেয়ে উপযােগী বলে বিবেচিত হয়। যেমন- পান বিড়ির দোকান, সবজীর দোকান প্রভৃতি। সীমিত চাহিদার ব্যবসায় ঃ যেসব পণ্যের চাহিদা বিশেষ এলাকা বা গােষ্ঠীর মধ্যে সীমিত সেসব পণ্যের ক্ষেত্রে এক মালিকানা ব্যবসায় ভাল। যেমন- রেস্টুরেন্ট ব্যবসায়। 

খুচরা পণ্য ঃ- ভােক্তারা যে সকল পণ্য স্বল্প পরিমানে ক্রয় ও ব্যবহার করে সে সকল পণ্যের বিপণনে এক মালিকানা ব্যবসায়ের জুড়ি নাই। যেমন- মুদীর দোকান, মনােহারীর দোকান প্রভৃতি। 

• স্বল্প ঝুঁকির ব্যবসায় ঃ কিছু ব্যবসায় আছে যেগুলােতে ঝুঁকি একেবারেই কম। কম আয়ের একক মালিক সেসব ব্যবসায়ই বেশি পছন্দ করে। যেমন- ঔষধের দোকান। 

• পচনশীল পণ্য ও পচনশীল: পণ্যের ক্ষেত্রে দ্রুত সিদ্ধাড় গ্রহন করতে হয় বলে সেক্ষেত্রে এক মালিকানা ব্যবসায় বেশি ভাল। যেমন- ফলমূল ও সবজীর ব্যবসায় প্রভৃতি। সেবামূলক ব্যবসায় ও প্রত্যক্ষ সেবার প্রতিষ্ঠানগুলাে বেশির ভাগই এক মালিকানার ভিত্তিতে পরিচালিত হয়। কেননা সেবামূলক ব্যবসায় মালিক ও গ্রাহকের প্রত্যক্ষ সম্পর্ক স্থাপন অপরিহার্য। যেমন- লন্ড্রী, সেলুন, দর্জির দোকান প্রভৃতি। 

• স্বল্প মূলধনের ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প ঃ যে সকল শিল্পে কম শ্রমিক ও কম মূলধনের প্রয়ােজন পড়ে সেখানে এক মালিকানা ব্যবসায় উত্তম। যেমন- হজাত কুটির শিল্প, তাঁত শিল্প, মৃৎ শিল্প ইত্যাদি ক্ষেত্রে এর কোন বিকল্প নেই। পরিবর্তনশীল চাহিদার পণ্য ও যেসব পণ্যের চাহিদা সময় এবং ক্রেতার রচির সাথে সাথে পরিবর্তিত হয় সেসব পণ্যের ক্ষেত্রে এক মালিকানা ব্যবসায় সবচেয়ে ভাল। যেমন- ফ্যাশন সপ।

• শৈল্পিক কর্মের ব্যবসায় ঃ যে সকল কাজের সাথে ব্যক্তিক শিল্পকর্মের যােগ রয়েছে সেক্ষেত্রে বৃহৎ ব্যবসায় গড়ে তােলা যায় না। সেখানে এক মালিকানা ব্যবসায় ভাল বলে বিবেচিত। যেমন- ফটো তােলার ব্যবসায়, চিত্রকর্মের ব্যবসায় প্রভৃতি। 

• ভ্রাম্যমান ব্যবসায় ঃ ঘুরে ঘুরে ফেরি করে পাড়া মহল-ায় যারা ব্যবসায় করে তারা সবাই একক মালিক। একক ব্যক্তিই প্রধানত ভ্রাম্যমান ব্যবসায়ের সাথে জড়িত থাকে। যেমন- ফেরিওয়ালা।

• স্বাধীন মনােভাব:  স্বাধীনভাবে ব্যবসায় করার ক্ষেত্রে এক মালিকানার চেয়ে উপযুক্ত ক্ষেত্র আর নেই। এমন ব্যক্তিদের জন্য এ ব্যবসায় অত্যন্ত জনপ্রিয়। 

• খুচরা ক্রয়-বিক্রয় ও নিত্য প্রয়ােজনীয়:  দ্রব্য খুচরা ক্রয় বিক্রয়ের ক্ষেত্রে এক মালিকানা ব্যবসায় উপযুক্ত। এ ধরনের ব্যবসায়ের উলে- খ্যযােগ্য ভূমিকা পৃথিবীর সব দেশেই দেখা যায়। মােট কথা স্বল্প পুঁজি ও শ্রম বিনিয়ােগ করে যে সকল ব্যবসায় গঠন করা যায় এবং যে কোন সাধারন স্থানে যে ব্যবসায় গঠন ও পরিচালনা করা সম্ভব এমন সকল ব্যবসায়ের ক্ষেত্রে এক মালিকানা ব্যবসায়ই সবচেয়ে উপযুক্ত ব্যবসায় সংগঠন। 

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল ©সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

  • একমালিকানা ব্যবসায় টিকে থাকার পক্ষে যৌক্তিকতা বিশ্লেষণ করতে হবে

 এক মালিকানা সংগঠন ব্যবসায় সংগঠনগুলাের মধ্যে প্রাচীনতম। তবে প্রাচীনতম ব্যবসায় হলেও বৃহদায়তন ব্যবসায়ের সাথে প্রতিযােগীতা করে এখনও সবচেয়ে জনপ্রিয় ব্যবসায় হিসেবে টিকে আছে।

 এক মালিকানা ব্যবসায় এমন কিছু বৈশিষ্ট্য ও সুবিধা আছে যে কারনে এ জাতীয় ব্যবসায় সকলের নিকট জনপ্রিয়। তবে যেসব বৈশিষ্ঠ্য এক মালিকানা ব্যবসায়কে বড় ধরনের ব্যবসায়গুলাের পাশাপাশি জনপ্রিয়তার সাথে টিকে থাকার সুযােগ করে দিয়েছে সেগুলাে নিম্নে দেয়া হলাে: 

সহজ গঠন ঃ বৃহদায়তন ব্যবসায়ের মত এক মালিকানা ব্যবসায় গঠনে কোন আইনগত প্রক্রিয়া অবলম্বন করতে হয় বা জটিলতা পােহাতে হয় না। সামান্য মুলধন নিয়ে যে কেউ এ ব্যবসায় গঠন করতে পারে। 

স্বল্প মুলধনঃ এমন কিছু ব্যবসায় আছে যেগুলাের জন্য বেশী অর্থের প্রয়ােজন পড়ে না। সে জাতীয় ব্যবসায়ের জন্য এক মালিকানা ব্যবসায়ই সবচেয়ে বেশী উপযােগী বলে বিবেচিত হয়। যেমন পানের দোকান, সবজির দোকান প্রভৃতি। 

স্বাধীনতা ঃ এক মালিকানা ব্যবসায়ের ক্ষেত্রে মালিককে সিদ্ধান্ডু গ্রহন, নিয়ন্ত্রনে কারাে সহায়তা নিতে হয় না বলে পূর্ণ স্বাধীনতা ভােগ করে। যা অন্য ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে চিই করা যায় না। 

ঝুঁকি কম ঃ যে সকল ব্যবসায় ঝুঁকি কম সেগুলিই সবাই পছন্দ করে। কেননা কম আয়ের লােকেরা সাধারনত ঝুঁকি এড়িয়ে চলতে চান। ফলে তারা এমন ব্যবসায়ই বেশী পছন্দ করেন। 

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল ©সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

অবস্থানগত সুবিধা ঃ বৃহদায়তন ব্যবসায় যে কোন স্থানে গড়ে তােলা যায় না, অথচ ক্রেতা বা ভােক্তারা শহরে বন্দরে গ্রামে-গঞ্জের আনাচে-কানাচে বিক্ষিপ্তভাবে বসবাস করে। তাই সকল শ্রেণীর ভােক্তাদের দোরগােড়ায় পণ্য ও সেবা পৌছে দেয়ার ক্ষেত্রে ক্ষুদ্র এক মালিকানা ব্যবসায়ের কোন বিকল্প নেই। 

ক্ষেত্রগত সুবিধা: এমন কিছু ব্যবসায় ক্ষেত্র লক্ষনীয় যেখানে বৃহদায়তন ব্যবসায় পরিচালনা করা সম্ভব হয় না বরং সেখানে ক্ষুদ্র একমালিকানা ব্যবসায়ই সবচেয়ে বেশি উপযােগী সংগঠন। যেমন নিত্যপ্রয়ােজনীয় পণ্য, সীমিত চাহিদার পণ্য, প্রত্যড় অঞ্চলের চাহিদার পণ্য, ভ্রাম্যমান ব্যবসায়, পচনশীন ব্যবসায়, প্রত্যক্ষ সেবাধর্মী ব্যবসায়, পেশাদারী ব্যবসায় প্রভৃতি। 

পরিবর্তনশীল: এমন অনেক পণ্য আছে যেগুলাের চাহিদা ক্রেতাদের পরিবর্তনশীল রচি, আগ্রহ ও আয়ের উপর নির্ভরশীল। সেসকল পণ্যের ব্যবসায়ের ক্ষেত্রে একমালিকানা ব্যবসায় বেশী উপযুক্ত।

যেমন: দর্জির দোকান। সহজ পরিচালনা: বৃহদায়তন ব্যবসায়ের মত পরিচালনাগত আনুষ্ঠানিকতা পালন করতে হয়না বলে এই ব্যবসায় সহজে পরিচালনা করা যায়। 

দ্রুত সিদ্ধান্ডু গ্রহন: এক মালিকানা ব্যবসায় মালিক নিজেই সিদ্ধান্ডু গ্রহন করে বলে যে কোন কাজ দ্রত করা সম্ভবপর হয়। অথচ যৌথ মালিকানার বৃহদায়তন ব্যবসায়ে দ্রুত সিদ্ধাড়গ্রহনের কোন সুযােগ নেই। 

ব্যক্তিগত সম্পর্ক: একমালিকানা ব্যবসায় মালিক নিজে ব্যবসায় পরিচালনায় অংশগ্রহন করে বলে মালিক, শ্রমিক ও ক্রেতার প্রত্যক্ষ সম্পর্ক গড়ে ওঠে। কিবৃহদায়তন ব্যবসায় সাধারনত এরূপ সম্পর্ক সৃষ্টির সুযােগ থাকে না। 

পরিশেষে বলা যায়, বৃহদায়তন ব্যবসায়ের তুলনায় কতকগুলাে সুবিধা বেশী থাকায় প্রাচীন এক মালিকানা ব্যবসায় আজকের বিশ্বে জনপ্রিয়তার শীর্ষে এবং বৃহদায়তন ব্যবসায়ের সাথে প্রতিযােগিতায় দাপটের সাথে টিকে আছে। 

তাইতাে বিশ্ব ব্যবসায় জগতের প্রায় ৮০% ব্যবসায় একক মালিকানার ভিত্তিতে পরিচালিত হয়ে থাকে।

তাইতাে বিশ্ব ব্যবসায় জগতের প্রায় ৮০% ব্যবসায় একক মালিকানার ভিত্তিতে পরিচালিত হয়ে থাকে।

  • এক মালিকানা ব্যবসায়ের ধরণগুলো বর্ণনা করতে হবে
  1. স্বল্প পুঁজির ব্যবসায়
  2. সীমিত চাহিদার ব্যবসায়
  3. স্বল্প ঝুঁকির ব্যবসায়
  4. খুচরা পণ্য
  5. ভ্রাম্যমান ব্যবসায়
  6. স্বাধীন মনোভাব
  7. কৃষি পণ্যের ব্যবসায়
  8. সেবামূলক ব্যবসায়
  9. পচনশীল পণ্যের ব্যবসায়
  10. পরিবর্তনমীল চাহিদার পণ্যের ব্যবসায়

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল ©সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

একমালিকানা ব্যবসায়ের ৫টি উপযুক্ত ক্ষেত্রসমূহ এর নাম:

  1. ওষুধের দোকান
  2. লণ্ড্রি
  3. সেলুন
  4. খাবারের দোকান
  5. মুদি দোকান

এসাইনমেন্ট সম্পর্কে যে কোন প্রশ্ন আপনার মতামত জানাতে পারেন আমাদের কে YouTube : Like Page ইমেল : assignment@banglanewsexpress.com

অন্য সকল ক্লাস এর অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর সমূহ :-

  • ২০২১ সালের SSC / দাখিলা পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ২০২১ সালের HSC / আলিম পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ভোকেশনাল: ৯ম/১০ শ্রেণি পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • HSC (বিএম-ভোকে- ডিপ্লোমা-ইন-কমার্স) ১১শ ও ১২শ শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ২০২২ সালের ১০ম শ্রেণীর পরীক্ষার্থীদের SSC ও দাখিল এসাইনমেন্ট উত্তর লিংক
  • ২০২২ সালের ১১ম -১২ম শ্রেণীর পরীক্ষার্থীদের HSC ও Alim এসাইনমেন্ট উত্তর লিংক

৬ষ্ঠ শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ , ৭ম শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ ,

৮ম শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১ , ৯ম শ্রেণীর এ্যাসাইনমেন্ট উত্তর ২০২১

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় SSC এসাইনমেন্ট :

বিজ্ঞান ১ম ও ২য় বর্ষের এসাইনমেন্ট, ব্যবসায় ১ম ও ২য় বর্ষের এসাইনমেন্ট, মানবিক ১ম ও ২য় বর্ষের এসাইনমেন্ট

উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় HSC এসাইনমেন্ট :

মানবিক ১ম ও ২য় বর্ষের এসাইনমেন্ট, বিজ্ঞান ১ম ও ২য় বর্ষের এসাইনমেন্ট , ব্যবসায় ১ম ও ২য় বর্ষের এসাইনমেন্ট

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *