আর্নল্ড টয়েনবির মতে ইতিহাস কী?,ইতিহাসকে শিক্ষণীয় দর্পণ বলা হয় কেন?, ছাত্রছাত্রীরা কান্তজির মন্দিরে যে দেয়ালের অলংকরণ দেখেছিল, সেগুলো ইতিহাসের কোন ধরনের উপাদান? ব্যাখ্যা করো।, স্যারের সর্বশেষ উক্তির যথার্থতা নিরূপণ করো।

আর্নল্ড টয়েনবির মতে ইতিহাস কী?,ইতিহাসকে শিক্ষণীয় দর্পণ বলা হয় কেন?, ছাত্রছাত্রীরা কান্তজির মন্দিরে যে দেয়ালের অলংকরণ দেখেছিল, সেগুলো ইতিহাসের কোন ধরনের উপাদান? ব্যাখ্যা করো।,স্যারের সর্বশেষ উক্তির যথার্থতা নিরূপণ করো।

প্রশ্ন সমাধান শিক্ষা
শেয়ার করুন:

প্রশ্ন সমাধান: আর্নল্ড টয়েনবির মতে ইতিহাস কী?,ইতিহাসকে শিক্ষণীয় দর্পণ বলা হয় কেন?, ছাত্রছাত্রীরা কান্তজির মন্দিরে যে দেয়ালের অলংকরণ দেখেছিল, সেগুলো ইতিহাসের কোন ধরনের উপাদান? ব্যাখ্যা করো।,
স্যারের সর্বশেষ উক্তির যথার্থতা নিরূপণ করো।

ইতিহাসের শিক্ষক হাসান মাসুদ। ছাত্রছাত্রীদের ইতিহাস বিষয়ে আগ্রহী করে তুলতে তাদের কোনো ঐতিহাসিক স্থান পরিদর্শনে যেতে বলেন। শিক্ষার্থীরা তাঁর কথা অনুসারে দিনাজপুরের ঐতিহাসিক ‘কান্তজির মন্দির’ পরিদর্শনে যায়। মন্দিরের দেয়ালের অলংকরণ, টেরাকোটাশিল্প ইত্যাদি দেখে তারা মুগ্ধ হয়। পাশাপাশি ‘রামায়ণ’ ও ‘মহাভারত’–এর বিস্তৃত কাহিনি, সমকালীন সমাজজীবনের সামগ্রিক চিত্র সম্পর্কে তারা অবগত হয়। ছাত্রছাত্রীদের অভিজ্ঞতার কথা শুনে স্যার বললেন, ‘জ্ঞানচর্চার শাখা হিসেবে ইতিহাসের গুরুত্ব অপরিসীম।’

প্রশ্ন

ক. আর্নল্ড টয়েনবির মতে ইতিহাস কী?

খ. ইতিহাসকে শিক্ষণীয় দর্পণ বলা হয় কেন?

গ. ছাত্রছাত্রীরা কান্তজির মন্দিরে যে দেয়ালের অলংকরণ দেখেছিল, সেগুলো ইতিহাসের কোন ধরনের উপাদান? ব্যাখ্যা করো।

ঘ. স্যারের সর্বশেষ উক্তির যথার্থতা নিরূপণ করো।

উত্তর

ক. আর্নল্ড টয়েনবির মতে ইতিহাস কী?

উত্তর ব্রিটিশ ইতিহাসবিদ আর্নল্ড টয়েনবির মতে, সমাজের জীবনই ইতিহাস।

খ. ইতিহাসকে শিক্ষণীয় দর্পণ বলা হয় কেন?

উত্তর ইতিহাস মানুষকে দৃষ্টান্তের মাধ্যমে শিক্ষা দেয় বলে একে শিক্ষণীয় দর্পণ বলা হয়।

মানুষ ইতিহাস পাঠ করে অতীত ঘটনাবলির দৃষ্টান্ত হতে শিক্ষা নিতে পারে। বিভিন্ন মানবগোষ্ঠীর উত্থান-পতন এবং সভ্যতার পতনের কারণগুলো জানতে পারলে মানুষ সচেতন হয়ে ওঠে এবং ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নির্ধারণ করতে পারে। আর এ জন্যই ইতিহাসকে শিক্ষণীয় দর্পণ বলা হয়।

গ. ছাত্রছাত্রীরা কান্তজির মন্দিরে যে দেয়ালের অলংকরণ দেখেছিল, সেগুলো ইতিহাসের কোন ধরনের উপাদান? ব্যাখ্যা করো।

উত্তর ছাত্রছাত্রীরা কান্তজির মন্দিরে যে দেয়ালের অলংকরণ দেখেছিল, সেগুলো ইতিহাসের অলিখিত বা প্রত্নতাত্ত্বিক উপাদান।

যেসব বস্তু বা উপাদান থেকে আমরা বিশেষ সময়, স্থান বা ব্যক্তি সম্পর্কে বিভিন্ন ধরনের ঐতিহাসিক তথ্য পাই, সেসব বস্তু বা উপাদানই অলিখিত বা প্রত্নতাত্ত্বিক উপাদান। যেমন মুদ্রা, শিলালিপি, তাম্রলিপি, ইমারত ইত্যাদি। দেয়ালের অলংকরণ থেকে আমরা যে সময় দেয়ালটি তৈরি হয়েছে, যে সময়কার মানুষের সামাজিক ও সাংস্কৃতিক জীবনযাপন সম্পর্কে জানতে পারি। উদ্দীপকের ছাত্রছাত্রীরা কান্তজির মন্দিরে টেরাকোটার অলংকরণ করা দেয়াল দেখেছে, এগুলো ইতিহাসের বস্তুগত উপাদান। আর এই উপাদন হলো ইতিহাসের অলিখিত বা প্রত্নতাত্ত্বিক উপাদান।

[ বি:দ্র: নমুনা উত্তর দাতা: রাকিব হোসেন সজল ©সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত (বাংলা নিউজ এক্সপ্রেস)]

ঘ. স্যারের সর্বশেষ উক্তির যথার্থতা নিরূপণ করো।

উত্তর শিক্ষক হাসান মাসুদ তাঁর ছাত্রছাত্রীদের ইতিহাসের প্রয়োজনীয়তা বোঝানোর জন্য বলেছেন, ‘জ্ঞানচর্চার শাখা হিসেবে ইতিহাসের গুরুত্ব অপরিসীম’—তার উক্তিটি যথার্থ।

মানবসমাজের সভ্যতার বিবর্তনের সত্য নির্ভর বিবরণ হচ্ছে ইতিহাস, যে জন্য জ্ঞানচর্চার শাখা হিসেবে ইতিহাসের গুরুত্ব অসীম। ইতিহাস পাঠ মানুষকে অতীতের পরিপ্রেক্ষিতে বর্তমান অবস্থান বুঝতে, ভবিষ্যৎ অনুমান করতে সাহায্য করে।

ইতিহাস পাঠের ফলে মানুষের পক্ষে নিজ ও নিজ দেশ সম্পর্কে মঙ্গল-অমঙ্গলের পূর্বাভাস পাওয়া সম্ভব। ইতিহাসজ্ঞান মানুষকে সচেতন করে তোলে।

বিভিন্ন মানবগোষ্ঠীর উত্থান-পতন এবং সভ্যতার বিকাশ ও পতনের কারণগুলো জানতে পারলে মানুষ ভালো-মন্দের পার্থক্যটা সহজেই বুঝতে পারে। ফলে সে তার কর্মের পরিণতি সম্পর্কে সচেতন থাকে। বলা যায়, জ্ঞানচর্চার শাখা হিসেবে ইতিহাসের প্রয়োজনীয়তা অপরিসীম। শিক্ষকের উক্তিটি ইতিহাসের প্রয়োজনীয়তার আলোকে যথার্থ।

প্রশ্ন ও মতামত জানাতে পারেন আমাদের কে ইমেল : info@banglanewsexpress.com

আমরা আছি নিচের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুলোতে ও

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.