ভাইভা পরীক্ষার জন্য করণীয়..

ভাইভা পরীক্ষার জন্য করণীয় কাজ গুলো

অনার্স ও মাস্টার্স পরীক্ষা প্রস্তুতি শিক্ষা
শেয়ার করুন:

🔰অনার্স চতুর্থ বর্ষ ভাইভা পরীক্ষার জন্য করণীয়..!

🔰নিচের টিপসগুলো অনুসরণ করলে হয়তো ভালো প্রস্তুতি নিতে পারবেন।
🔰সাধারণত লিখিত পরীক্ষা শেষ হবার ১৫- ৪০ দিনের মধ্যে ভাইভা নেয়া হয়।

🔰অনার্স চতুর্থ বর্ষের ভাইভা পরীক্ষার জন্য করণীয়…!
“”ড্রেসআপ”””
১.ছেলেদের জন্য ফরমাল শার্ট –
প্যান্ট -সো এবং অবশ্যই শার্ট ইন করতে হবে।
২.মেয়েদের জন্য নরমাল শাড়ি অথবা নরমাল ড্রেস।

“””পরীক্ষা দেওয়ার সময় করণীয়”””
১.ক্লাসে প্রবেশের পর স্যারকে সালাম দিতে হবে।
২.স্যার অনুমতি দেওয়ার আগ পর্যন্ত চেয়ারে বসা যাবে না। অবশ্যই অনুমতি দেওয়ার পর বসতে হবে।

৩.টেবিলের উপর হাত রাখা যাবে না।
হাত দুই পায়ের উপর রাখতে হবে।
৪.স্যারের চোখ বরাবর তাকাতে হবে। যাতে আই কন্টাক্ট ঠিক থাকে। এতে স্যার মনে করবেন আপনি ভাল একজন ছাত্র/ছাত্রী।

৫.প্রশ্নের উত্তর না পারলে বলবেন দুঃখিত মনে পড়ছে না।
পারিনা কখনো বলবেন না।
ভাইভা বোর্ডে মেধার চেয়ে আপনার ব্যবহার,এবং বিচক্ষণতা বেশি বিবেচনা করা হয়।
৬.নিজেকে স্বাভাবিক রাখতে হবে।

🔰গুরুত্বপূর্ণ সবচেয়ে বেশি কমন প্রশ্নপত্র..!
১.আপনার নাম কি?
২.আপনার নামের অর্থ কি?

৩.আপনার নামের একজন বিখ্যাত ব্যক্তির নাম বলুন?
৪.আপনার জেলার নাম কি আপনার জেলা টি কিসের জন্য বিখ্যাত? ৫.আপনার জেলার বা দেশের একজন বিখ্যাত ব্যক্তির নাম বলুন?
৬.আজ কি বার?

৭.আজ কত তারিখ?
৮.আজ বাংলা কত তারিখ?
৯.আপনি কি কোন পত্রিকা পড়েন?
১০.পত্রিকাটির সম্পাদকের নাম কি?
১১.আপনার নিজের সম্পর্কে ইংরেজিতে কিছু বলুন?
১২.আপনার ডিপার্টমেন্ট এর প্রধান কে?

১৩.আপনার ডিপার্টমেন্টের কয়েকজন শিক্ষকের নাম বলুন?
১৪.আপনার কোন পরীক্ষাটি সবচেয়ে ভালো হয়েছে?

“””উত্তরে: সব পরীক্ষা এতে সব বিষয় মিলিয়ে কয়েকটা প্রশ্ন করা হবে। তাতে উত্তর দিতে সহজ হবে।
এক বিষয়ে বললে সেই বিষয় থেকে অনেকগুলো প্রশ্ন করা হবে।

১৫.অবশ্যই সব লিখিত পরীক্ষার সব কুইজ প্রশ্ন গুলো পড়ে যেতে হবে।
১৬.প্রতিটি বিষয়ের গুরুত্বপূর্ণ ইংরেজি ওয়ার্ড মিনিং জানতে হবে।
🔰ভালো থাকবেন সবাই আল্লাহ হাফেজ…!

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *