ব্রোকার হাউজ নিয়মিত পরিদর্শন করবে বিএসইসি | Bangla News Express
Home / অর্থনীতি / ব্রোকার হাউজ নিয়মিত পরিদর্শন করবে বিএসইসি
ব্রোকার হাউজ নিয়মিত পরিদর্শন করবে বিএসইসি
ব্রোকার হাউজ নিয়মিত পরিদর্শন করবে বিএসইসি

ব্রোকার হাউজ নিয়মিত পরিদর্শন করবে বিএসইসি


দীর্ঘদিন ধরে চলমান প্রতিকূল বাজার পরিস্থিতির কারণে বিএসইসি ব্রোকারেজ হাউসগুলির নিয়মিত পরিদর্শন বন্ধ করেছিল। প্রায় দেড় বছর পর নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) ব্রোকারেজ হাউসগুলির নিয়মিত পরিদর্শন শুরু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এজন্য বিএসইসি স্টক এক্সচেঞ্জ এবং বিএসইসির কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে তিনটি সদস্যের কমিটি গঠন করবে।

রোববার কমিশনের জরুরি বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় যা ক্রেস্টকে সিকিউরিটিজ লিমিটেডের শেয়ার এবং অর্থ পরিশোধের বিষয়ে আলোচনা করার জন্য অনুষ্ঠিত হয়েছিল।

তদারকির জন্য দুটি ধরণের পরিদর্শন পদ্ধতি রয়েছে। প্রথমটি হ’ল বিশেষ দর্শন হিসাবে পরিচিত নির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে একটি ব্রোকারেজ হাউস বা স্টক ডিলার বা মার্চেন্ট ব্যাংক পরিদর্শন করা। অন্যটি হ’ল কমিশন কর্তৃক কোনও মার্চেন্ট ব্যাংক, ব্রোকারেজ হাউস এবং স্টক ডিলারের কোনও অভিযোগ ছাড়াই পরিদর্শন।

বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মোঃ সাইফুর রহমান বলেছেন, “দীর্ঘদিন ধরে চলমান প্রতিকূল বাজার পরিস্থিতির কারণে বিএসইসি নিয়মিত ব্রোকার হাউজ গুলো নিরীক্ষণ বন্ধ করে দিয়েছিল। কমিশন স্বল্প সময়ের জন্য এ জন্য পৃথক তিনটি কমিটি গঠন করবে।”

সিকিউরিটিজ অ্যাক্ট অনুসারে কাজের স্বচ্ছতা এবং সম্মতি যাচাইয়ের জন্য এই প্রতিষ্ঠানগুলির নিয়মিত পরিদর্শন করার বিধান রয়েছে। হাউসগুলো নিয়মিত পরিদর্শন না করা হলে আইন প্রয়োগ, শেয়ার কারচুপি, মার্জিন ঋণের বিধানে অনিয়ম এবং পরিচালকদের সুযোগ-সুবিধার ক্ষেত্রে বড় বিচ্যুতিতে সীমাবদ্ধতা থাকতে পারে বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন।

তাছাড়া, ব্যাক অফিসের সাথে সেন্ট্রাল ডিপোজিটরি বাংলাদেশ লিমিটেডের (সিডিবিএল) শেয়ারের ঘাটতি রয়েছে।

তিনি আরও বলেন,কেয়া কসমেটিকস লিমিটিড প্রায় দুই বছর এজিএম করেনি। তারা বিষয়টি নিয়ে কোর্টে গিয়েছে। আমরা চেষ্টা করবো তারা যাতে দ্রুত সমস্যা সমাধান করে এজিএম করে।

advertisement


পুঁজিবাজারের বিশ্লেষক অধ্যাপক আবু আহমেদ বলেছিলেন, “এ জাতীয় পরিদর্শন এত কার্যকর নয়। বিনিয়োগকারীদের শেয়ার বিক্রি থেকে প্রাপ্ত অর্থ কেন একীভূত গ্রাহক অ্যাকাউন্টে যাবে যখন তার অ্যাকাউন্টে যাওয়ার কথা? আইনটি “ব্রোকারেজ হাউস মালিকরা বিনিয়োগকারীদের শেয়ার বিক্রি করতে না পারে যাতে পরিবর্তন করা উচিত।”

তিনি আরও যোগ করেন যে বেসরকারী মালিকানাধীন হাউসগুলো যারা অবৈধভাবে পরিচালকদের বিভিন্ন সুবিধা প্রদান করে তাদের ক্ষেত্রে অনিয়ম বেশি ছিল। সেই হাউসগুলো চিহ্নিত করে শাস্তি দেওয়া উচিত।

বিএসইসি সূত্র জানায়, বিএসইসি প্রতিনিধিদের নিয়মিত হাউসগুলোতে পরিদর্শনে বাজারে প্রভাব পড়েছে। যাইহোক, যখন বাজারটি বেয়ারিশ হয় তখন একটি দর্শন বাজারের লেনদেনকে ব্যথা দেয়। সুতরাং, নিয়মিত পরিদর্শনগুলির পরিবর্তে অভিযোগের ভিত্তিতে বিশেষ পরিদর্শন এবং তদারকি বৃদ্ধি করা হয়।

উল্লেখ, ২০১৫-১৬ অর্থ বছরে ১৫টি,২০১৬-১৭ অর্থ বছরে ৩৭টি,২০১৭-১৮ অর্থ বছরে ১৯টি প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন করেছে। ২০১৯ সালে মাত্র ৫ টি প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন করেছে বিএসইসি।

সূত্র /শেয়ারবাজার নিউজ/এন


আপনার মূল্যবান মতামত দিন

আরও

সিনোবাংলা ইন্ডাস্ট্রিজের ইপিএস প্রকাশ

সিনোবাংলা ইন্ডাস্ট্রিজের ইপিএস প্রকাশ

 তৃতীয় প্রান্তিক (জানু-মার্চ’২০) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত সিনোবাংলা ইন্ডাস্ট্রিজ মিটেড। কোম্পানি সূত্রে …

বাংলাদেশের পোশাকশিল্প ঘুরে দাঁড়াচ্ছে

বাংলাদেশের পোশাকশিল্প ঘুরে দাঁড়াচ্ছে

করোনা ভাইরাসের মহমারীর কারণ দেখিয়ে পশ্চিমা দেশগুলো বাংলাদেশের পোশাকশিল্পে বহু ক্রয়াদেশ বাতিল করেছে। এতে হাজার …