আরও ৪ মামলা ইরফান ও তার সহযোগীর বিরুদ্ধে | Bangla News Express
Home / জাতীয় / অপরাধ / আরও ৪ মামলা ইরফান ও তার সহযোগীর বিরুদ্ধে
আরও ৪ মামলা ইরফান ও তার সহযোগীর বিরুদ্ধে
আরও ৪ মামলা ইরফান ও তার সহযোগীর বিরুদ্ধে

আরও ৪ মামলা ইরফান ও তার সহযোগীর বিরুদ্ধে

শেয়ার করুন:

ঢাকা-৭ আসনের সংসদ সদস্য হাজী সেলিমের ছেলে ইরফান সেলিম ও তার সহযোগী জাহিদের বিরুদ্ধে অস্ত্র ও মাদক আইনে পৃথক দুটি করে মোট চারটি মামলা করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। গতকাল মঙ্গলবার দিবাগত রাতে চকবাজার থানায় এসব মামলা করা হয়। রাত ১২টার দিকে চকবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মওদুত হাওলাদার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, মো. ইরফান সেলিম ও তার দেহরক্ষী মো. জাহিদকে গ্রেপ্তারের পর অস্ত্র ও মাদক আইনে দুজনের নামে পৃথক দুটিসহ মোট চারটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। ভ্রাম্যমাণ আদালতের মামলায় ইরফান সেলিম ও তার দেহরক্ষী জাহিদ কারাগারে থাকায় র‍্যাবের ৪ মামলায় তাদের গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

এর আগে সোমবার (২৬ অক্টোবর) ইরফান সেলিম ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে ধানমন্ডি থানায় হত্যাচেষ্টার মামলা হয়েছে। নৌবাহিনীর লেফটেন্যান্ট ওয়াসিফ আহমদ খান বাদী হয়ে সোমবার ভোরে মামলাটি দায়ের করেন।

মামলার আসামিরা হলেন- ইরফান সেলিম, তার বডিগার্ড মোহাম্মদ জাহিদ, হাজি সেলিমের মদিনা গ্রুপের প্রটোকল অফিসার এবি সিদ্দিক দীপু এবং গাড়িচালক মিজানুর রহমানসহ অজ্ঞাত আরও দুই-তিন জন। আসামিদের মধ্যে দীপুকে তিন দিন ও মিজানুরকে একদিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ।

মামলায় অভিযোগ করা হয়, রোববার (২৫ অক্টোবর) রাতে রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালের সামনে দিয়ে যাওয়ার সময় ওয়াসিফ আহমদের মোটরসাইকেলটিকে পেছন থেকে ধাক্কা দেয় হাজি সেলিমের গাড়ি।

ধাক্কা দেওয়ার কারণ জানতে পেছন পেছন এলে কলাবাগানের ট্রাফিক সিগন্যালে হাজি সেলিমের গাড়ি থেকে দুই-তিন জন ব্যক্তি নেমে ওয়াসিফ আহমদ খানকে ফুটপাতে ফেলে এলোপাতাড়ি মারধর করে।

advertisement


পরিচয় দেওয়ার পরও তাকে গালাগাল করে ও হুমকি দেয়। পরে ট্রাফিক পুলিশ এসে তাকে উদ্ধার করে। পথচারীরা এই দৃশ্য ভিডিও করেন, যা মুহূর্তেই ভাইরাল হয়ে যায়। পুলিশ হাজি সেলিমের গাড়িচালক মিজানুর রহমানকে গ্রেপ্তার ও গাড়ি জব্দ করে।

এর পরদিন সোমবার মামলা দায়েরের পর দুপুরে র‌্যাব পুরান ঢাকায় চকবাজারের ২৬ দেবীদাস লেনে হাজি সেলিমের বাসায় অভিযান চালায়। র‌্যাব হাজি সেলিমের ছেলে ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৩০ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ইরফান সেলিম ও তার দেহরক্ষী জাহিদকে হেফাজতে নেয়। বাসায় অবৈধভাবে মদ ও ওয়াকিটকি রাখার দায়ে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত তাদের দুজনকে এক বছর করে কারাদণ্ড দেন। তাদের ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে রাখা হয়েছে।

সূত্র/ আমাদের সময়

শেয়ার করুন:



আপনার মূল্যবান মতামত দিন

আরও

বোরকা পরে এসে চেয়ারম্যানকে গুলি

বোরকা পরে এসে চেয়ারম্যানকে গুলি

সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার কৈখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রহিমকে লক্ষ্য করে কয়েক রাউন্ড গুলি চালায় …

পুলিশের মোটরসাইকেলে আগুন, আ.লীগ প্রার্থীর বাড়িতে বিদ্রোহীদের হামলা-ভাঙচুর

পুলিশের মোটরসাইকেলে আগুন, আ.লীগ প্রার্থীর বাড়িতে বিদ্রোহীদের হামলা-ভাঙচুর

বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী আব্দুল হালিম চৌধুরী মিলনের বাড়িতে বিদ্রোহী প্রার্থী রুমা …